প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অস্ত্র-গুলি ও মাদকসহ চাঁদাবাজ চক্রের ৪ সদস্য গ্রেপ্তার

সুজন কৈরী : রাজধানীর তেজগাঁও ও মোহাম্মদপুর এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে ১ জন অস্ত্রধারী চাঁদাবাজ ও মাদক কাররবারীসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-২। এ সময় ১টি বিদেশী পিস্তল, ১ রাউন্ড গুলি ভর্তি ম্যাগজিনসহ ৬০পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

র‌্যাব-২ এর সহকারীপরিচালক (মিডিয়া) এএসপি মো. আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, রোববার ব্যাটালিয়নের একটি দল কাওরান বাজারের ২নং সুপার মার্কেট সংলগ্ন বিসমিল্লাহ রাইস এজেন্সী নামক দোকানের সামনে থেকে অস্ত্রধারী চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবসায়ী রনি (২৬) এবং মিলন মিয়াকে (২৪) গ্রেপ্তার করে।

প্রাথমিক অনুসন্ধান ও জিজ্ঞাসাবাদে র‌্যাব জানতে পেরেছে, অস্ত্র ব্যবহার করে রনি ও তার সহযোগীরা কারওয়ান বাজার এলাকায় বিভিন্ন কাঁচামাল ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদা আদায় করতেন। কেউ প্রতিবাদ করলে বা চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাদের উপর হিট এন্ড রান পদ্ধতিতে অতর্কিতে আক্রমণ করে নিমিষেই উধাও হয়ে যেতেন। রনি চাঁদাবাজি ছাড়াও মাদক ব্যবসা, চুরি, ডাকাতির সাথে সমান ভাবে সম্পৃক্ত। তারা বেশির ভাগ সময় সাধারণ মানুষকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে সবকিছু ছিনিয়ে নিতেন। এছাড়াও তেজগাঁও রেললাইন এলাকার মাদক ব্যবসাও নিয়ন্ত্রণ করতেন রনি। তার বিরুদ্ধে শুধুমাত্র তেজগাঁও থানায় বিভিন্ন ধারায় ১৩টি মামলা রয়েছে।

রনিকে গ্রেপ্তারের পর ভুক্তভোগী কারওয়ান বাজারের একজন আলু ব্যবসায়ী র‌্যাবকে জানান, ১ মাস আগে রনি এবং তার সহযোগীরা তাকে অপহরণ করে গ্রেপ্তার মিলন মিয়ার বাসায় নিয়ে যায় এবং রাতভর নির্যাতন করে ২০ হাজার টাকা মুক্তিপণ নিয়ে পরের দিন ছেড়ে দেন।

র‌্যাব কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, শনিবার র‌্যাব-২ এর অপর একটি পৃথক অভিযান চালিয়ে মোহাম্মদপুরের বেড়ীবাধ চৌরাস্তার মোড় সাহাবুদ্দিন মার্কেটের সামনে থেকে চাঁদাবাজি কালে চাঁদাবাজ চক্রের সদস্য সোহেল (৩৩) এবং লিটনকে (২৮) গ্রেপ্তার করে।

তাদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, তারা মোহাম্মদপুরের বেড়ীবাধ এলাকায় বিভিন্ন অটোরিকশা চালক, সিএনজি চালকসহ ওই এলাকার ব্যবসায়ীদের ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে চাঁদা আদায় করছিলেন। বিভিন্ন সময় চাঁদা না দিলে তাদের মারধর করা হতো এবং যানবাহন চালাতে দেওয়া হতো না।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত