প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মাদারীপুরে কিশোরীকে ধর্ষণ, মামলার ৫দিনেও গ্রেফতার হয়নি আসামী

আরিফুর রহমান: [২] মাদারীপুরে কিশোরী ধর্ষনের ঘটনায় মামলা দায়েরের ৫দিনেও গ্রেফতার হয়নি একমাত্র আসামী টমেন ত্রিপুরা। এতে ন্যায় বিচার পাওয়া নিয়ে শঙ্কিত নির্যাতিতার পরিবার। অভিযুক্ত টমেন ত্রিপুরা (২০)খাগড়াছড়ি জেলার উপেন্দ্র ওরফে পাটানর ত্রিপুরার ছেলে।

[৩] মামলার এজাহারে বলা হয়, গত ৫ ফেব্রুয়ারি ১২ বছর বয়সী ওই কিশোরীকে একা পেয়ে টমেন ত্রিপুরা জোর করে তার নিজের থাকার ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে এই ঘটনা কাউকে বললে কিশোরীকে হত্যার হুমকি দেয় টমেন। ভয়ে ওই কিশোরী প্রথমে তার পরিবারকে কিছু না জানিয়ে ঘটনা আড়াল করার চেষ্টা করে। পরবর্তীতে ওই কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে এলাকায় বিষয়টি জানাজানি হয়।

[৪] বিষয়টি টের পেয়ে সেবাশ্রম ছেড়ে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত টমেন ত্রিপুরা। এরপরে এ ঘটনার বিচার চেয়ে কিশোরীর মা গত ২৬ মার্চ রাতে মাদারীপুর সদর মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। কিন্তু মামলার ৫দিনেও পুলিশ একমাত্র আসামী টমেন ত্রিপুরাকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এতে নায্য বিচার পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় নির্যাতিতার পরিবার। এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে শিগগিরই টমেনকে গ্রেফতারকে আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ।

[৫] এলাকাবাসী জানায়, টমেন মাদারীপুর সদর উপজেলার কেন্দুয়া ইউনিয়নের উত্তর কলাগাছিয়া এলাকার নতুন প্রণবমঠের মন্টু মহারাজের সেবায়েত হিসেবে কর্মরত ছিলেন। কাজের স্বার্থে সে ওই প্রণবমঠের পাশে একটি টিনসেড করে বসবাস করেন। সেবাশ্রমের পাশের একটি গ্রামে ওই কিশোরীর বাড়িতে টমেনের যাতায়ত ছিল। টমেন ত্রিপুরার রান্নার লোক ছুটিতে থাকায় ওই কিশোরী টমেনের সেবাশ্রমে গিয়ে রান্না করত। এই সুযোগেই ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে টমেন। সম্পাদনা: সাদেক আলী

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত