প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রদর্শন ব্যবসাকে বাঁচাতে প্রয়োজন বাণিজ্যিক ছবি

ইমরুল শাহেদ: শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের প্রস্তাবিত একশ’ ছবির মধ্যে প্রথম ধাপের দশটি ছবির মধ্যে আটটি ছবির কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। অপর দুটি ছবি চৈত্র দুপুর ও ফেসবুক-এর কাজ শুরু হবে ৬ মার্চ থেকে। পরবর্তী ধাপের দশটি ছবির কাজও শুরু হতে পারে চলতি মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে। মহরতের সময় শাপলা মিডিয়া থেকে যে ত্রিশজন পরিচালককে চুক্তিবদ্ধ করা হয়েছে তাদের সকলের কাজই দ্রæত শুরু হয়ে যাবে।

শাপলা মিডিয়ার একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, আগামী ছয় মাসের মধ্যে এসব ছবির কাজ শেষ করা হবে। কারণ প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটির আরও কিছু নতুন পরিকল্পনা আছে। এসব ছবিতে শিল্পীদের মধ্যে কারা কাজ করছেন? এখন শিল্পী সংকট অনেক। হাতের কাছে যাদের পাওয়া যাচ্ছে তাদেরকে নিয়েই কাজ করা হচ্ছে। কোনো কোনো শিল্পী অনেকদিন থেকে চলচ্চিত্রের সঙ্গে জড়িত আছেন। কিন্তু সুযোগের অভাবে কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছুতে পারছেন না। তারা এবার সুযোগ পেয়েছেন। কিন্তু সুযোগের মধ্যে কিছু নিয়ম নীতি রয়েছে।

পরিচালক সেলিম আযম জানান, ‘ছবিগুলোর দৈর্ঘ্য ৯০ থেকে ১০০ মিনিটের মধ্যে। গান থাকছে এক থেকে দুটি।’ এর মানে ছবিগুলো সেন্সরে দেওয়া হবে না। সিনেমা হলে মুক্তি দেওয়ার জন্য কিছু বাণিজ্যিক শর্ত আছে। সেটা এখানে নেই। নাচ-গানের সংখ্যা, মারপিট দৃশ্য - অর্থাৎ বাজেট সীমিত হওয়ায় ব্যয়বহুল দৃশ্যগুলো বাদ দিয়েই ছবি বানাতে হচ্ছে। পরিচালক এফআই মানিক বলেছেন, তিনিও ছোট মা নামে একটি ছবি শাপলা মিডিয়া থেকে শুরু করতে যাচ্ছেন। তার ছবিতে থাকছে কলকাতার কয়েকজন শিল্পী এবং তিনি কাজ শুরু করবেন চাঁদপুর থেকে।

এই ছবিটি সিনেমা হলেই মুক্তি পাবে। এই একশ’ ছবিতে যারা কাজ করছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন আইরিন, বিপাশা কবীর, আঁচল, কায়েস আরজু, জয় চৌধুরী, এ্যানি, সেলিনা আফ্রিন, সাংকু জন, মাইসা, রাজন, শাকিলা পারভীন, আসমা ঝিলিক, সুপ্ত, সাইফ খান, তানহা মৌমাছি, সাদমান, শিপন মিত্র, প্রকৃতি ও তানভীর তনু। এদের মধ্যে কেউ কেউ এসেছেন মিডিয়ার অন্যান্য শাখায় কাজ করা থেকে। এই সমীকরণ বাণিজ্যিক ছবির ক্ষেত্রে একেবারেই অচল।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত