প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শাওগাত আলী সাগর: সাংবাদিকদের ব্যক্তিগত আচরণ ও নৈতিকতার প্রশ্ন

শাওগাত আলী সাগর: প্রয়োজনীয় নয় এমন ভ্রমণে কোথাও না যাবার নির্দেশনাটি কানাডার জনস্বাস্থ্য বিভাগের। এটি জনস্বাস্থ্য এবং জনস্বার্থ সংশ্লিষ্ট নির্দেশনা। কিন্তু এই নির্দেশনা উপক্ষো করে কানাডার সিবিসি রেডিওর নির্বাহী এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইকেল বিসোনিটি গিয়েছিলেন মায়মাী। প্রায় এক মাসের মতো সেখানে অবস্থান করেছেন তিনি। পুরো সময়টায় তিনি সিবিসি রেডিও‘র দায়িত্ব পালন করেছেন। ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ পলিসিতে তার দায়িত্ব পালনে কোনো সমস্যাই হয়নি। কিন্তু কানাডীয়ান পত্রিকা ‘ন্যাশনাল পোস্ট’ মাইকেলের মায়ামী ভ্রমণের বিষয়টি খবরে নিয়ে আসে। কানাডার বৃহৎ মিডিয়া করপোরেশনের একজন নির্বাহী জনস্বাস্থ্য সংক্রান্ত জাতীয় নির্দেশনা উপক্ষো করে ভ্রমণে গেছেন- এর যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে পত্রিকাটি।

মাইকেলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তিনি মায়ামীতে নিজের কন্ডোতে অবস্থান করেছেন, রেস্টুরেন্টে, শপিং মলে বা কোথাও ঘুরতে যাননি। তিনি জনস্বাস্থ্যের বিধি নিষেধ সম্পূর্ণভাবে মেনে চলেছেন। মায়ামী গেছেন তিনি পারিবারিক বাড়ি-ঘর সংক্রান্ত জরুরি পরিস্থিতির কারণে।

কিন্তু মিডিয়া মহলে নৈতিকতার প্রশ্ন উঠে। গণমাধ্যমের একজন শীর্ষ নির্বাহী হিসেবে জনস্বাস্থ্য নির্দেশনা উপক্ষো করার দৃষ্টান্ত নাগরিকদের কী বার্তা দেয় সেই প্রশ্ন সামনে আসে। বলা হয়, যে মিডিয়া নাগরিকদের স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করার পরামর্শ দেন, জনস্বাস্থ্যের নির্দেশনা মানতে বলে, রাষ্ট্রের নিয়ম মেনে চলতে পরামর্শ দেন সেই মিডিয়ার একজন শীর্ষ কর্মকর্তার বিনা প্রয়োজনে ভ্রমনে যাওয়া কেবল নৈতিকতার বিরোধীই নয়- এটি সম্পূর্ণ দ্বিচারিতা – ডাবল স্ট্যান্ডার্ড। তুমুল সমালোচনার মুখে শেষ পর্যন্ত মাইকেল বিসোনিটি সিবিসি রেডিওর কর্মীদের কাছে চিঠি লিখে এবং মিডিয়ায় বিবৃতি দিয়ে তার আচরণের জন্য গভীর দু:খ প্রকাশ করেন এবং ক্ষমা চান। সিবিসি অবশ্য তাকে চাকরিচ্যুত বা কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়নি।

সাংবাদিকদের ব্যক্তিগত আচরণও নাগরিকরা অনুসরণ করে, তাদের দ্বারা প্রভাবিত হয়। ফলে তাদের পেশা তো বটেই ব্যক্তিজীবনেও অত্যন্ত সতর্ক থাকতে হয়। মহামারীর সময়ে নাগরিকরা যখন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেছেন, তখন শীর্ষ কোনো সাংবাদিকের বেড়াতে যাওয়ার সংবাদ সংশ্লিষ্ট সাংবাদিকের নৈতিকতাকে প্রশ্নের মুখোমুখি দাড় করিয়ে দেন। ক্ষমা চেয়ে মাইকেল তার চাকুরি বাঁচাতে পেরেছেন, কিন্তু নাগরিকদের মনে তাকে নিয়ে যে বিরুপ মনোভাবের সৃষ্টি হয়েছে, সেটি সহজেই মুছে যাবে না। ফেসবুক থেকে মাসুদ হাসান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত