প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বানিয়াচংয়ে ৪০০ জনকে আসামি করে পুলিশের মামলা দায়ের

ডেস্ক রিপোর্ট: হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ের হাওরে পুরাখালের বাঁধ দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষের ঘটনায় ৪০০ লোককে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে বানিয়াচং থানা পুলিশ। বানিয়াচং থানার এসআই গৌতম সরকার বাদী হয়ে ৪২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৩৫০ জনকে আসামি করে গতকাল এ মামলাটি দায়ের করেন। মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এসআই আব্দুস ছাত্তারকে। ইত্তেফাক

মামলা দায়েরের পরপরই কামালখানী ও মজলিশপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে সংঘর্ষে জড়িত থাকার দায়ে ১০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এছাড়া অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এলাকায় পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে। এ বিষয়ে বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ এমরান হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষের ঘটনায় বেশ কয়েক জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। আহত পুলিশ সদস্যদের বানিয়াচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ চিকিত্সা দেওয়া হয়েছে। পুলিশের কর্তব্য কাজে বাধা এবং পুলিশ সদস্যদের আহত করার দায়ে পুলিশ বাদী হয়ে এ মামলাটি দায়ের করেছে।

গত শুক্রবার কামালখানী কানিভাঙ্গা নামকস্থানে পুরাখালে কামালখানী গ্রামের লোকজন বাঁধ দেওয়ায় মজলিশপুর গ্রামের লোকজন গত বৃহস্পতিবার বাঁধটি ভেঙে ফেলে দেয়। পরবর্তীতে কামালখানী গ্রামের লোকজন মজলিশপুর গ্রামের লোকজনের নিকট এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করে সঠিক জবাব না পেয়ে তাদেরকে বাঁধের এলাকা থেকে তাড়িয়ে দেয়। এতে মজলিশপুর গ্রামের লোকজন মাইকে ঘোষণা দিয়ে তাদের লোকজনকে ঘটনাস্থলে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে যাওয়ার জন্য আহ্বান জানায়। এ দিকে কামালখানী গ্রামের লোকজনও তাদের লোকজনকে ঘটনাস্থলে যাওয়ার জন্য আহ্বান জানায়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের শতাধিক লোক আহত হয়।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত