প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘এলিয়েন আছে, তাদের সঙ্গে ট্রাম্পের যোগাযোগ হয়েছে’

ডেস্ক রিপোর্ট : এলিয়েন বা ভিনগ্রহের প্রাণীর অস্তিত্ব আছে এবং তাদের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের যোগাযোগ হয়েছে। এমনই দাবি করেছেন ইসরায়েলের সাবেক স্পেস নিরাপত্তা প্রধান হাইম এশেদ (৮৭)। ইত্তেফাক

দেশটির ইয়েদিট আহারনোট পত্রিকায় দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমন দাবি করেন প্রায় ৩০ বছর ধরে ইসরায়েলে স্পেস নিরাপত্তার নেতৃত্ব দেওয়া হাইম এশেদ। এ সময় এলিয়েনদের সংস্থা ‘গ্যালাকটিক ফেডারেশনের’ সঙ্গে মার্কিন সরকারের একটি চুক্তির ব্যাখ্যা করেন তিনি।

গত শুক্রবার হিব্রু ভাষায় সাক্ষাতকারটি প্রকাশিত হয়। গতকাল মঙ্গলবার জেরুজালেম পোস্ট এর কিছু অংশ ইংরেজিতে প্রকাশ করলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এটি আলোচনার বিষয় হয়।

এনবিসি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আনআইডেন্টিফায়েড ফ্লাইং অবজেক্ট বা ইউএফও মনে করে যে মানবসমাজ এখনো তাদের অস্তিত্ব সম্পর্কে জানার জন্য প্রস্তুত না। তাই তারা এ বিষয়টি প্রকাশ করতে নিষেধ করেছে বলে জানান হাইম এশেদ।

এশেদ আরও জানান, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভিনগ্রহের প্রাণীর অস্তিত্ব সম্পর্কে জানেন এবং এ ব্যাপারে একটা সময় তিনি ‘তথ্য প্রকাশের দ্বারপ্রান্তে’ ছিলেন। তবে মানুষকে আতঙ্কিত না করতে ভিনগ্রহের প্রাণীরা তাকে এটি করতে নিষেধ করে।

এলিয়েনরাও মানবসমাজ সম্পর্কে জানতে একইভাবে আগ্রহী এবং তারা ‘মহাবিশ্বের বুনন’ সম্পর্কে বুঝতে চেষ্টা করছে বলে জানান তিনি।

অধ্যাপক ও অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল এশেদ বলেন, ‘মঙ্গল গ্রহের মাটির নিচে আমেরিকার মহাকাশচারী ও বিজ্ঞানীদের সঙ্গে তাদের সহযোগিতা চুক্তি হয়েছে। তারা আমাদের নিয়ে এখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার জন্য একটি চুক্তি সই করেছে।’

এ বিষয়ে এনবিসি নিউজের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হলে হোয়াইট হাউস ও ইসরায়েলি কর্মকর্তারা তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করেননি। পেন্টাগনের মুখপাত্র স্যু গফও কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

নাসার মুখপাত্র জানান, তাদের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য মহাবিশ্বের জীবন অনুসন্ধান। নাসা এখন পর্যন্ত কোনো ভিনগ্রহের প্রাণী খুঁজে পায়নি।

সর্বাধিক পঠিত