প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রামগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা

মনির হোসেন: [২] রামগঞ্জের রসুলপুর গ্রামে ১০ম শ্রেনীর মাদ্রাসার ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাপ্তি চাকমা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রিফাত আরা সুমি ও লামচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহেনারা পারভিন পান্না।

[৩] জানা গেছে, রসুলপুর গ্রামের হতদরিদ্র আবু তাহেরের কন্যা ও পানপাড়া ফাতেমা (রাঃ) দাখিল মাদ্রাসার ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী আফরোজা আক্তারের বিয়ে পারিবারিক ভাবে চন্ডিপুর ইউনিয়নের ফতেহপুর গ্রামে ঠিক হয়। মঙ্গলবার সকালে নির্বাহী কর্মকর্তা তাপ্তি চাকমা খবর পেয়ে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ও লামচর ইউপি চেয়ারম্যানকে বিয়ে বন্ধ করার নিদের্শ দেয়।

[৪] লামচর ইউপি চেয়ারম্যান মাহেনারা পারবিন নির্বাহী কর্মকর্তার নিদেশ পেয়ে মেম্বার ও গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে বিয়ের কার্যক্রম বন্ধ করে অভিভাবকদের লিখিত মুচলিকা গ্রহন করে। লামচর ইউপি চেয়ারম্যান মাহেনারা পারবিন বলেন,মেয়ের অভিভাবকরা আমার স্বাক্ষর জাল করে ভুয়া জম্মনিবদ্ধন করেছে। গরীব পরিবার হওয়ায় ইউএনও স্যারকে বুঝিয়ে অভিভাবকদের লিখিত মুচলিকা নিয়ে মেম্বারের জিম্মি ছেড়ে দিয়েছে। সম্পাদনা: সাদেক আলী

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত