প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ফ্রান্সের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক অবরোধের দাবি: ছাত্র আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত

শিমুল মাহমুদ: [২] বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের আব্দুস সালাম হলে এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার
মুবারক শানে মানহানীকর যে কোন বিষয় প্রচার, প্রকাশ ও প্রদানকারীর মৃত্যুদণ্ডের শাস্তি জারীর পাশাপাশি ফরাসী প্রেসিডেন্টের চরম দৃষ্টতা ও অমার্জনীয়
অপরাধের দায়ে ফ্রান্সের সাথে সমস্ত প্রকার কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন, সরকারি-বেসরকারীভাবে ফ্রান্সের সকল পন্য বয়কট, ব্যবসায়ী, অর্থনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন
করাসহ ওআইসি’র মাধ্যমে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপসহ দ্রুত শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের করতে হবে।

[৩] তারা বলেন, নবী ও রসূল, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে নিয়ে ফরাসী প্রেসিডেন্টের সরাসরি পৃষ্ঠপোষকতায় ব্যঙ্গচিত্র ও কার্টুন প্রচার
করা হচ্ছে। যা বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে ন্যাক্কারজনক ঘটনা। মুসলমানরা যা কখনোই বরদাস্ত করেনা। এমন জঘন্যতম অমার্জনীয় দৃষ্টতার বিরুদ্ধে আমরা
তীব্র প্রতিবাদ এবং কঠোর নিন্দা জানাচ্ছি।

[৪] বক্তারা বলেন, বিশ্বের ৩৫০ কোটি মুসলমান নবী ও রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে নিজের জান-মাল থেকেও বেশি ভালবাসে। উনার সমুন্নত
শান মুবারকে কোন ধরনের বেয়াদবী আমরা কখনোই বরদাস্ত করিনা। উনাকে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র ও কার্টুন প্রচার করে ফরাসী ম্যাক্রন গোষ্ঠী ক্ষমার অযোগ্য
অপরাধ করেছে।

[৫] বক্তারা বলেন, রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শান বিরোধী ব্যঙ্গচিত্র ও কার্টুনসহ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সর্বপ্রকার কার্যক্রম এই মূহুর্তেই
বন্ধ করো, করতে হবে। সম্মানিত দ্বীন ইসলাম বিরোধী সব অপতৎপরতার জবনিপাত এখনই করতে হবে।

[৬] মুসলিম দেশগুলোর প্রতি আহবান জানিয়ে বক্তারা বলেন, সমস্ত মুসলিম দেশ থেকে ফ্রান্সসহ সকল দুশমনে রসূলসহ তাদের সকল পণ্য বয়কট করতে হবে। ফ্রান্সের সাথে সমস্ত প্রকার কূটনৈতিক সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করতে হবে। ওআইসিকে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে একযোগে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপসহ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

[৭] সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন তালিমী মজলিশ ছাত্র আনজুমানের সভাপতি মুহম্মদ রিয়াদুজ্জামান, মুহম্মদ সিরাজুদ্দিন আখি, সেক্রেটারী মুহম্মদ মাসউদুর রহমান ফাহিম, উপদেষ্ঠা মুহম্মদ মাবরুরুল হক ফুয়াদ, মুহম্মদ সিরাজুদ্দিন, মুহম্মদ রহিত হাসান, আহমদ হুসাইন, উপস্থাপনা করেন, মুহম্মদ রাহাতুল আলম কাদেরী রাজ, মুহম্মদ বদরুল আরেফীনসহ আরও অনেকে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত