প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিমানবন্দরে অ্যামফিটামিন মাদক জব্দ পাচারের রুট ছিল বাংলাদেশ, গ্রেপ্তার ৭

সুজন কৈরী : [২] হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে জব্দকৃত সাড়ে ২৪ কোটি টাকা মুল্যের ১২ কেজি ৩২০ গ্রাম নতুন মাদক অ্যামফিটামিনের চালানের রহস্য উদঘাটন করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (ডিএনসি)। এই মাদক পাচারের ঘটনায় জড়িত মূলহোতাসহ ৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে অ্যামফিটামিন আমদানি ও বিক্রি চক্রের মূলহোতা হলেন আবুল কালাম আজাদ বান্টি। তিনি ভারতীয় চক্রের সঙ্গে যোগসাজশে পাচারের জন্য অ্যামফিটামিন মাদক সীমান্ত এলাকা বেনাপোল দিয়ে বাংলাদেশে আমদানি করেছিলেন। এরপর বান্টি অ্যামফিটামিনগুলো জুনায়েদ ইবনে সিদ্দিকী ও নজরুল ইসলামের কাছে বিক্রি করেন। বাংলাদেশকে রুট হিসেবে ব্যবহার করে এসব অ্যামফিটামিন মালয়েশিয়া হয়ে অস্ট্রেলিয়া পাচারের জন্য তারা কিনেছিলেন। ডিএনসির হাতে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

[৩] গ্রেপ্তার অন্যরা হলেন- মো. মাজেদ, রেজাউল হক বাবুল, জুনায়েদ ইবনে সিদ্দিকী, মো. নজরুল ইসলাম, বাবুল মজুমদার, বাপ্পী। তাদের মধ্যে মাজেদ হচ্ছেন মাদক পাচারের অন্যতম হোতা পলাতক রুবেলের ভগ্নিপতি। রেজাউল হক বাবলু হচ্ছেন স্ক্যান গ্লোবাল লজিস্টিকের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ফ্রেইট এন্ড লজিস্টিক্স এর লোডিং সুপারভাইজার। জুনায়েদ, নজরুল, বাবুল ও বাপ্পী হচ্ছেন শিপম্যান্টের প্যাকেজিং ও মাদক পাচারে জড়িত বলে জানিয়েছে ডিএনসি।

[৪] বুধবার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ডিএনসির প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থার মহাপরিচালক মোহাম্মদ আহসানুল জব্বার বলেন, হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কার্গো ভিলেজ থেকে গত ৯ সেপ্টেম্বর ৭টি কার্টনে তল্লাশি চালিয়ে জিন্সের প্যান্টের আড়ালে অভিনব কায়দায় লুকানো সাড়ে ২৪ কোটি টাকা মুল্যের ১২ কেজি ৩২০ গ্রাম সন্দেহজনক দ্রব্য জব্দ করা হয়। পরে ডিএনসির কেন্দ্রীয় রাসায়নিক পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষায় অ্যামফিটামিন পাওয়া যায়। যা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মাদক। বাংলাদেশ এক্সপ্রেস লিমিটেডের (আন্তর্জাতিক কুরিয়ার সার্ভিস ফেডেক্সের বাংলাদেশ এজেন্ট) পার্সেলে শিপারের নাম ছিল নেপচুন ফ্রেইট লিমিটেড। ঠিকানা উল্লেখ ছিল- বাড়ি-৫০১, রোড-১৪, কেরানীগঞ্জ। হংকং হয়ে অস্ট্রেলিয়ায় পাঠানো পার্সেলের প্রাপকের ঠিকানা উল্লেখ ছিল- আছেদাস সিং ৩৪ কলম্বিয়া রোড, মেলবোর্ন, নারে ওয়ারেন লিআইসি ৩৮০৫। রপ্তানিতে কাস্টমের জন্য ম্যানুয়ালি বিল অব এক্সপোর্ট দাখিল করে রপ্তানিকারকের পক্ষে মেসার্স ডিনামিক ট্রেডার্স এবং বাংলাদেশ এক্সপ্রেস লিমিটেড (ফেডেক্স) এজেন্ট ইউনাইটেড এক্সপ্রেস, ১৬৭, সার্কুলার রোড, ঢাকা। ওই সময় ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তদন্তকালে গ্রেপ্তারদের জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্য ও প্রযুক্তির সহায়তায় রাজধানীর মিটফোর্ড এলাকার মাহমুদা ম্যানশনের কালাম ট্রেড ইন্টারন্যাশনালের মালিক কেমিক্যাল ব্যবসায়ী আবুল কালাম আজাদ বান্টিকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বসিলা এলাকা থেকে চক্রের সদস্য মো. মাজেদ, জুনায়েদ ইবনে সিদ্দিকী, মো. নজরুল ইসলাম, বাবলু মজুমদার ও বাপ্পীকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ নিয়ে এ মামলায় মোট গ্রেপ্তারের সংখ্যা ১৩।

[৫] ডিজি আহসানুল জব্বার আরও বলেন, গ্রেপ্তারের পর বান্টি জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন, তিনি জুনায়েদ এবং নজরুলকে অ্যামফিটামিন পাউডার সরবরাহ করেছিলেন। তাদের সঙ্গে যোগাযোগের মধ্যস্থতাকারী হিসেবে দীন ও সাইফুল নামে দুজন ব্যক্তি কাজ করেছেন। বান্টি এসব মাদক পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের কেমিক্যাল ব্যবসায়ী হাবিব মাস্টারের মাধ্যমে চোরাইপথে অবৈধভাবে সংগ্রহ করতেন। হাবিব মাস্টারের সহযোগী রাজ খান মাদক সীমান্ত পার করিয়ে দেয়া এবং ড্রিমল্যান্ড, করতোয়াসহ বিভিন্ন কুরিয়ারের মাধ্যমে ঢাকা পৌঁছানোর ব্যবস্থা করতেন।

[৬] ডিএনসির মহাপরিচালক জানান, গ্রেপ্তার জুনায়েদ ও নজরুলের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের বরাত দিয়ে জানান, তারা ভারত থেকে জনৈক একজন ব্যক্তির মাধ্যমে অ্যামফিটামিন সংগ্রহ করে তৈরি পোশাকের কার্টনের মধ্যে বিশেষ প্রক্রিয়ায় কার্বণের লেয়ার বা আস্তর দিয়ে কাভিটি তৈরি করে মাদক মালয়েশিয়া হয়ে অস্ট্রেলিয়ায় পাচারের চেষ্টা করছিলেন। আসামি দীন ইসলাম ও সাইফুলকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

[৭] এক প্রশ্নের জবাবে ডিএনসির মহাপরিচালক বলেন, মাদক পাচার রোধে আমরা বিমানবন্দরে স্ক্যানার স্থাপন ও ডগ স্কোয়াড গঠনের উদ্যোগ নিয়েছি। সেখানে বিভিন্ন এজেন্সি কাজ করে। বিভিন্ন বিষয়ে অনুমতির ব্যাপার আছে। এছাড়া কুরিয়ার সার্ভিসগুলোকে নজরদারির মধ্যে আনতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। অপর প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মাদক পাচার রোধে আন্তর্জাতিক সহায়তা নেয়া হয় এবং হচ্ছে। অ্যামফিটামিনসহ অন্যান্য মাদকের বিষয়ে ডিএনসি ভারতের নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) সঙ্গে কথা হচ্ছে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত