প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শব্দ ব্যবহারে সাংবাদিকদের সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিলেন শিক্ষামন্ত্রী

শিমুল মাহমুদ: [২] শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আরও বলেন, কখনও কখনও একটি শব্দের জন্য বিভ্রান্তি তৈরি হয়ে যায়। আমি আপনাদের বিনয়ের সঙ্গে অনুরোধ করবো, এ বিষয়ে একটু সতর্ক থাকবেন।

[৩] তিনি বলেন, সাংবাদিকদের কাজটি জরুরি বলেই সেখানে সতর্কতার প্রয়োজন রয়েছে। আমরা কী বলছি, কেমনভাবে বলছি, তা ভাবাটা জরুরি। সবটাই সংবাদ কিনা, কোন তথ্য কতটা গুরুত্ব বহন করে, কোন তথ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হতে পারে কিনা, সেটি লাভের বদলে ক্ষতির কারণ হয়ে যেতে পারে কিনা এসব কারণেই এ বিষয়গুলোতে গুরুত্বের প্রয়োজন রয়েছে।

[৪] শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রত্যেকের পেশাতেই আনন্দের যেমন দিক রয়েছে, তেমনি সতর্ক থাকারও জায়গা রয়েছে। আমি বিশ্বাস করি, এই বিষয়গুলো চিহ্নিত করে সচেতন ও সতর্ক থাকবেন। কারণ, বস্তুনিষ্ঠতা খুব জরুরি, কোথাও যেনও কোনোভাবে বিভ্রান্তি তৈরি না হয়।

[৫] শুধু পরীক্ষানির্ভর মূল্যায়ন, সনদসর্বস্ব শিক্ষা ও জিপিএ-৫ বিষয়গুলোকে নিরুৎসাহিত করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমাদের অতিরিক্ত পরীক্ষা নির্ভরতা রয়েছে। পরীক্ষা মানেই অতিরিক্ত চাপ। এই চাপ শুধু শিক্ষার্থীদের জন্য নয়, অভিভাবকদের জন্যই, সেটি পুরো সিস্টেমের জন্য। তার সঙ্গে একটি সনদসর্বস্ব ব্যাপার রয়েছে। জাস্ট সার্টিফিকেট পেতে হবে। কিন্তু একটা কাগজের সঙ্গে আর কী পাচ্ছি? যেসব দক্ষতা যোগ্যতার কথা বলা হয়েছে, তা পেয়েছি কিনা, তা প্রয়োগ করতে পারবো কিনা? সে বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

[৬] বুধবার শিক্ষা বিষয়ক রিপোর্টারদের একাংশের একটি সংগঠন ‘এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ’ (ইরাব) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল মাধ্যমে যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী। সম্পাদনা: বাশার নূরু

সর্বাধিক পঠিত