প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ঋণ সীমা লঙ্ঘনের শীর্ষে বেসিক ব্যাংক, তালিকায় রয়েছে ১১ ব্যাংক

মো. আখতারুজ্জামান : [২] সমালোচনা থেকে বেড়িয়ে আসতে পারছে না রাষ্ট্রায়ত্ত বেসিক ব্যাংক। ঋণ আমানতের অনুপাত সীমা আইন লঙ্ঘন করার তালিকার প্রথমে চলে এসেছে ব্যাংকটি। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের জুন মাসের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

[৩] জানা যায়, অসাভাবিক ঋণের লাগাম টানতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ঋণ আমানতের অনুপাতে সীমা নির্ধারণ করে দিয়ে নির্দেশনা জারি করে। যা গত ১৫ এপ্রিল থেকে কার্যকর হয়েছে।

[৪] বাংলাদেশ ব্যাংকের এই নির্দেশনা না মানার তালিকায় চলে এসেছে রাষ্ট্রায়ত্ত বেসিক ব্যাংকের এডিআর ১১২ শতাংশের ওপরে রয়েছে, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ৯২ দশমিক ৯৭ শতাংশ এবং অগ্রণী ব্যাংকের ইসলামী শরীয়াভিত্তিক ইউনিট। বেসরকারি এবি ব্যাংকের ৯৩ দশমিক ৭০ শতাংশ, এক্সিম ব্যাংক ১০১ দশমিক ২৩ শতাংশ, ন্যাশনাল ব্যাংক ৯৮ দশমিক ৭২ শতাংশ, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক ৯৩ শতাংশ এবং ওয়ান ব্যাংকের এডিআর ৮৯ দশমিক ৭৪ শতাংশ।

[৫] পদ্মা ব্যাংকের এডিআর ১০২ দশমিক ০৬ শতাংশ, এনআরবি গ্লোবাল ৯৫ দশমিক ২৩ শতাংশ, ইউনিয়ন ব্যাংকের ৯৪ দশমিক ৬৫ শতাংশ এবং মিডল্যান্ড ব্যাংকের ৯০ দশমিক ৮৯ শতাংশ। এছাড়া বেসরকারি প্রিমিয়ার ব্যাংকের ইসলামী শরীয়াভিত্তিক ইউনিট ঋণ বিতরণ নির্ধারিত সীমার ওপরে রয়েছে। এর মধ্যে অগ্রণীকের ইসলামী শরীয়াভিত্তিক ইউনিট ১৪৯ দশমিক ৭৬ শতাংশ এবং প্রিমিয়ার ব্যাংকের ১২২ দশমিক ৫৩ শতাংশ।

[৬] একটি ব্যাংক আমানতের বিপরীতে কী পরিমাণ ঋণ দিতে পারবে তা নির্ধারণ করে দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ নির্দেশনা অনুযায়ী, আমানত অগ্রিম হার প্রচলিত ধারার ব্যাংকগুলো জন্য ৮৭ শতাংশ এবং ইসলামী শরীয়াভিত্তিক ব্যাংক ও প্রচলিত ধারার ব্যাংকের ইসলামী শরীয়াভিত্তিক কার্যক্রমের জন্য এডিআর ৯০ থেকে বাড়িয়ে ৯২ শতাংশ করা হয়েছে, যা চলতি বছরের ১৫ এপ্রিল থেকে কার্যকর রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত