প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] টাইম লাইন তৈরি করে কাজে গতি আনার তাগিদ: এলজিআরডি মন্ত্রী

আনিস তপন: [২] রোববার স্থানীয় সরকার বিভাগের সভাকক্ষে স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতাধীন দপ্তর/সংস্থা/সিটি কর্পোরেশনসমূহের সাথে ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

[৩] স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, উন্নয়ন প্রকল্পসহ যেসব কাজ আছে তা কোন সময় কি কাজ হবে, কখন হবে এবং কিভাবে হবে এর একটি নির্দিষ্ট টাইম লাইন অথবা ওয়ার্ক প্ল্যান প্রণয়ন করতে হবে। এতে যে কোনো কাজ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শেষ করা সহজ হবে। একইসঙ্গে পর্যালোচনা করে কাজের অগ্রগতি যাচাই করতে হবে।

[৪] প্রকল্পের কাজের মান প্রসঙ্গে তাজুল ইসলাম বলেন, দেশের উন্নয়নে নেওয়া যে কোন প্রকল্পে যদি নিম্নমানের কাজ হয়, দুর্নীতি হয় এবং মানুষের জন্য ক্ষতির কারণ হয় তাহলে সেই প্রকল্পের সঙ্গে জড়িত প্রকৌশলী, ঠিকাদার থেকে শুরু করে যারাই যুক্ত থাকবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

[৫] গুণগত মানসম্পন্ন কাজ করতে গিয়ে কেউ যদি বাধার সম্মুখীন হতে হয় বা কোনো প্রভাবশালী কাজ ব্যাহত করে তাহলে তা মোকাবেলার দায়িত্ব তাঁর মন্ত্রণালয় নেবে উল্লেখ করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, এ ব্যাপারে কারো সঙ্গে কোনো সমঝোতা হবে না।

[৬] মন্দ কাজের জন্য যেমন শাস্তি পেতে হবে তেমনি যারা ভালো কাজ করবেন তাদেরকে পুরস্কৃত করা হবে। ভালো কাজের জন্য পুরস্কৃত করা হবে বলেও এসময় জানান তিনি।

[৭] গত ২০১৯-২০ অর্থবছরে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির মূল্যায়নে ঢাকা ওয়াসা প্রথম, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর দ্বিতীয় এবং সিলেট সিটি করপোরেশন তৃতীয় স্থান অর্জন করায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান মন্ত্রী।

[৮] এছাড়াও আগামী অর্থবছরের জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতাধীন ২০টি দপ্তর/সংস্থা/সিটি কর্পোরেশনের সমূহের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের সাথে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের পক্ষে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষর করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত