প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শঙ্কর মৈত্র: ওয়াসার এমডি তাকসিম খান ১১ বছর ধরে একই পদে আছেন কীভাবে? কী যাদু আর কী মধু আছে ওয়াসায়?

শঙ্কর মৈত্র : ওয়াসার এমডি তাকসিম খান ১১ বছর ধরে একই পদে আছেন কীভাবে? কী যাদু আর কী মধু আছে ওয়াসায়? ১১ বছরে তাকসিম খানের সফলতা কী? সামান্য বৃষ্টিতে রাজধানী ডুবে যায়, পাড়া মহল্লায় জলাবদ্ধতা, ওয়াসার সরবরাহকৃত পানি নোংরা, গ্যাস পুড়িয়ে পানি ফুটিয়ে ফিল্টার করে খেতে হয়। অথচ পানির বিল প্রতিবছরই বাড়ানো হচ্ছে। এ গুলোই কী ওয়াসার সফলতা?

২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ পুনরায় ক্ষমতায় এসে ওয়াসার এমডি হিসেবে তাসকিম খানকে নিয়োগ দেওয়া হয়। তার পর স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের দুজন মন্ত্রী চলে গেলেন। সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম মারা গেলেন, খন্দকার মোশাররফ হোসেন পুরো মেয়াদ মন্ত্রিত্ব করে চলে গেলেন, বর্তমান মন্ত্রী তাজুল ইসলামেরও দুবছর চলে যাচ্ছে। কিন্তু এমডি হিসেবে তাসকিম খান বহাল তবিয়তেই আছেন। এ এক অদ্ভুত ঘটনা। দুর্নীতি অনিয়ম কতো অভিযোগ তার বিরুদ্ধে। কিন্তু কিছুই হয় না তার।

এক পরিসংখ্যানে জানা গেছে গত ১০ বছরে ঢাকা শহরে শুধু জলাবদ্ধতা নিরসনের পেছনেই ওয়াসা খরচ করেছে হাজার কোটি টাকা। কিন্তু এই টাকার কাজ কোথায় হলো? কোথায় খরচ হলো একজন টেক্সপেয়ার হিসেবে এটা জানার অধিকার কি আমার নেই? একজন নাগরিক হিসেবে আমি জানতে চাই, কোন ক্ষমতা কিংবা আইনবলে ১১ বছর ধরে এমডি হিসেবে একজন লোক ওয়াসাতে আছেন? গত ১১ বছরের এই এমডির খতিয়ান কী? এর জবাব কোথায় পাবো? ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত