প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

লুৎফর রহমান হিমেল: বাংলাদেশের মানুষ বিশ্বাসের মূল্য দেয়, তারা প্রতিহিংসাপরায়ণ নয়, তারা ক্ষমাশীল

লুৎফর রহমান হিমেল: বিশ্বাস অর্জন করার জন্য নিজেকেও বিশ্বস্ত হতে হয়। এ কারণেই মানুষ মানুষের ওপর বিশ্বাস রাখে। বিশ্বাস করে। বিশ্বস্ত হয়ে উঠে। বিশ্বাস থেকেই তৈরি হয় জগতের বড় বড় সব ভালো কাজ। প্রতিটি সফল উদ্যোক্তার মধ্যে এই গুনটি থাকে। এ কারণেই হয়তো রবি ঠাকুর বলেছেন, মানুষের ওপর বিশ্বাস হারানো পাপ। কিন্তু মানুষের ওপর এই বিশ্বাস মানুষকে সবচে বড় ক্ষতিটিও উপহার দেয়। ফাহিম সালেহ নামের যে বাংলাদেশি তরুণ উদ্যোক্তা নির্মমভাবে অ্যামেরিকায় খুন হলেন, তিনিও তার ব্যক্তিগত সহকারী টাইরেস ডেঁভো হ্যাসপিলের ওপর বিশ্বাস রেখেছিলেন। বিপুল পরিমান অর্থ চুরি করার পরও ফাহিম হ্যাসপিলকে ক্ষমা করে দেন। তাকে ধীরে ধীরে চুরি করা ফেরত দেওয়ার সুযোগ দেন। কিন্তু এই বিশ্বাস তাকে অকালে মৃত্যুর দুয়ারে ঠেলে দিল। ফাহিম সালেহ-র হত্যাকাণ্ডের পর স্থানীয় সাংবাদিকরা নিজেরাও ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। তারা প্রতিদিন প্রতি মুহূর্ত খবরটিকে হাইলাইটস করেছেন।

এমনকি টাইরেস হ্যাসপিলকে গ্রেপ্তার করে যখন গোয়েন্দা কাস্টোডিতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিলো, তখন উপস্থিত মিডিয়াকর্মীরা একের পর এক বাক্যবাণ ছুঁড়ছিলো ঘাতকের উদ্দেশ্যে, হেই টাইরেস। তুমি এমন মর্মান্তিক হত্যাকাণ্ড কীভাবে ঘটাতে পারলে? তোমার বসকে কেটে খণ্ড খণ্ড করার সময় তোমার কি একবারও মনে হয়নি সে তোমাকে মিলিয়ন ডলার চুরির জন্য তোমার বিরুদ্ধে পুলিশ রিপোর্ট করেনি। একবারও কি মনে হয়নি? এতো দয়াশীল একজন মানুষকে কীভাবে পারলে মারতে? ফাহিম সালেহ-র মতো একজন মেধাবী তরুন উদ্যোক্তার মৃত্যুতে দেশের সকল মানুষের মতো আমিও বড় বেদনা অনুভব করছি। তবে এর মধ্যেও একটি জিনিস ভেবে গর্ববোধ করছি যে, সাহেদদের মতো প্রতারকরা যেখানে বিশ্ব মিডিয়ায় খবর হচ্ছে, দেশের ভাবমূর্তি সঙ্কটে ফেলছে, সেই সময় ফাহিম সালেহ-র মতো তরুণের কথা উঠে আসছে ইতিবাচকভাবে। উঠে আসছে পলিমাটিতে গড়া কোমল বাংলাদেশের নামও। ইতিবাচকভাবে। বাংলাদেশের মানুষ বিশ্বাসের মূল্য দেয়। তারা প্রতিহিংসাপরায়ণ নয়। তারা ক্ষমাশীল। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত