প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ভোক্তা অধিকারের ১৭ কর্মকর্তার ১১ জনই কোভিড-১৯ সংক্রমিত

লাইজুল ইসলাম: [২] রাজধানীতে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের কর্মরত রয়েছে ১৭ জন কর্মকর্ত। যারা মূলত রাজধানীর বাজারগুলোতে অভিযান পরিচালনা ও অধিদপ্তরের দাপ্তরিক বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো করে থাকেন। এরাই বিভিন্ন সময় অভিযান পরিচালনার সময় কোভিড সংক্রমিত হয়েছেন। বিশেষ করে রোজার মধ্যে অভিযান পরিচালনার সময়।

[৩] রোববার কথা হয় উপ-পরিচালক আফরোজা রহমানের সঙ্গে। তিনি জানান দপ্তরের মোট ১৫ জন এই মুহুর্তে করোনয় সংক্রমিত হয়ে বাসায় ও হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এদের মধ্যে বেশির ভাগই কর্মকর্তা। এমনকি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক পর্যন্ত সংক্রমিত।

[৪] আফরোজা রহমান বলেন, এই অবস্থায় আমরা কেউ অফিসে যেতে পারছি না। বাসায় আইসোলোটেড রয়েছি। ঈদ এবার আমাদের সংক্রমিতদের খুবই চিন্তার মধ্যে দিয়ে কাটিয়েছি। তাদের এক সহকর্মীর তৃতীয়বার টেস্টেও কোভিড পজেটিভ এসেছে বলে দুঃখ প্রকাশ করছিলেন এই কর্মকর্তা।

[৫] সংক্রমিতদের মধ্যে রয়েছেন, মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) বাবলু কুমার সাহা, উপ-পরিচালক (উপসচিব) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার, উপ-পরিচালক আতিয়া সুলতানা, উপ-পরিচালক আফরোজা রহমান, সহকারী পরিচালক শাহনাজ সুলতানা, রজবী নাহার রজনী, তাহমিনা বেগম, রোজিনা সুলতানা,মাহমুদা আক্তার, অধিদপ্তরের সহকারী হিসাবরক্ষক জাহাঙ্গীর আলম, নমুনা সংগ্রহকারী আব্দুল কুদ্দুছ, অফিস সহকারী-কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক আব্দুল ওয়াহেদ, মহাপরিচালকের গাড়িচালক সোহেল আহমেদ, প্রধান কার্যালয়ের গাড়িচালক মিলিয়া খানম ও ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের গাড়িচালক মো. শরীফ মিয়া।

[৬] আফরোজা রহমান জানান, আমরা সবাই চেষ্টা করেছি সরকারের ও দেশের মানুষের সেবা করতে। সেখান থেকেই আমরা কাজ করেছি। এখন আমরা ভালো আছি। সুস্থ্য হয়ে আবার কর্মক্ষেত্রে ফিরতে চাই। সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তারা।

[৭] এদিকে, এতগুলো কর্মকর্তা এক সঙ্গে অসুস্থ হয়ে পরায় কার্যত অকার্যকর হয়ে পরেছে অধিদপ্তর। এত দিন পর অফিস খোলা থাকলেও উপস্থিতি হতে না পেরে বেশ কষ্ট লাগার কথা বলেছেন বেশ কয়েকজন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা বলেছেন, এতে বেশ ক্ষতি মুখে পরতে যাচ্ছে অধিদপ্তর। অল্প কয়েকজনকে নিয়ে অফিস চলছে এখন জানান তারা।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত