প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ভারত থেকে আসা পাহাড়ি ঢলে ডুবে গেল ২৫ গ্রাম

ডেস্ক রিপোর্ট : [২] ভারতের মেঘালয় রাজ্য থেকে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার সারি, পিয়াইন ও গোয়াইন নদীতে পানি বেড়ে প্লাবিত হয়েছে বিস্তীর্ণ নিম্নাঞ্চল।

[৩] এর ফলে ২৫ গ্রাম ও প্রধান সংযোগ সড়ক প্লাবিত হয়ে উপজেলার সঙ্গে অন্যান্য উপজেলার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ ছাড়া অসংখ্য বাড়িঘর ও আউশ ধানের বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কথা জানিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

[৪] পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) এর উপসহকারী প্রকৌশলী মো. জহিরুল ইসলাম সরকার জানান, ‘পাহাড়ি ঢলে সারি নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পিয়াইন ও গোয়াইন নদীর পানিও সারা দিন বেড়েছে। সীমান্তের ওপার মেঘালয়ে বৃষ্টিপাত বাড়লে স্থায়ী বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হবে।’

[৫] পাউবোর সারিঘাট গেজ স্টেশনের তথ্য অনুযায়ী সারি নদীর পানি মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় বিপৎসীমার ৬৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে যা সকাল ৬টায় ৩ সেন্টিমিটার উপরে ছিল। এ নদীতে নিরাপদ জলস্তরের সীমা ১১ দশমিক ৭৭ মিটার।

[৬] গোয়াইনঘাটের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নাজমুস সাকিব জানান, ‘এখন পর্যন্ত উপজেলার ২৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। উপজেলা সদরের সঙ্গে অন্যান্য উপজেলার সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পাশাপাশি জাফলং ও সারিঘাট এলাকার সঙ্গেও যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছে।’

[৭] গোয়াইনঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. সুলতান আলী জানান, ‘নিম্নাঞ্চলের বোরো ধান তোলার কাজ শেষ হওয়ায় সেদিক থেকে ক্ষতি হয়নি। তবে এখন পর্যন্ত ১৫ হেক্টরের মতো আউশ ধানের বীজতলা তলিয়ে গেছে। উপজেলায় ৩৫০ হেক্টরের মতো বীজতলা তৈরি করা হয়েছে। যদি পানি আরও বাড়ে এবং দুই-তিন দিন জমে থাকে তাহলে বীজতলার ক্ষতি হবে।’

[৮] এদিকে ভারতের সেন্ট্রাল ওয়াটার কমিশন (সিডাব্লিউসি) আসাম রাজ্যের জোরহাট ও সোনিতপুরে বন্যার পূর্বাভাস জারি করেছে বলে মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে হিন্দুস্থান টাইমস।

[৯] প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ২০ মে থেকে আসামের কিছু অংশ ও মেঘালয়ে ব্যাপক বৃষ্টিপাত হয়েছে।

[১০] ভারতের ন্যাশনাল ওয়েদার ফোরকাস্টি সেন্টারের প্রধান কে সাথী দেবীর বরাতে জানানো হয়, মেঘালয়, আসাম ও অরুণাচল প্রদেশে আরও অন্তত তিন দিন প্রবল বৃষ্টি চলবে।

ইত্তেফাক, দেশ রূপান্তর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত