প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রয়োজনীয় শ্রমিকদের ডেকে গার্মেন্টস কারখানা খোলছেন মালিকরা

বিশ্বজিৎ দত্ত : [২] কারখানায় কাজ কম, শুধুমাত্র নীটিং, ডাইয়িং ও সেম্পল সেকশন চালু করা হয়েছে। আগামী ২ মে সকল গার্মেন্ট ইউনিট চালু করা হবে। জানিয়েছেন বিকেএমই্এর সহসভাপতি মোহম্মদ হাতেম।

[৩] নীটিং গার্মেন্টের মধ্যে ১০৪টি খোলা হয়েছে। বিজিএমইএ ঢাকা ও আশোপাশের, সাভার আশুলিয়া ও চট্ট্রগ্রামের গার্মেন্ট খোলেছে।

[৪] কাজের ভিত্তিতে যখন যাদের দরকার তখন শ্রমিকদের ডেকে আনা হচ্ছে। অন্যদের বাড়িতে থাকতে বলা হয়েছে।

[৫] কারখানায় শ্রমিকদের সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে কারখানায় প্রবেশ করতে হয়। আবার ৩ ঘন্টা পর পর সাবান দিয়ে হাত ধোঁয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কারখানায় ঢোকার সময় ব্রিচিং পাউডার মেশানো জলে পা ১০ ২০ সেকেন্ড রেখে কারখানায় প্রবেশ করছে।

[৬]বিজিএমইএর সহসভাপতি জানিয়েছেন, মাস্ক দেয়া হয়েছে। কারখানায় এমনিতেই প্রত্যেকেই ৫ ফিট দূরে বসে কাজ করে। তবে তিনি আশংকা করছেন শ্রমিকদেও বাসস্থানের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে। তিনি বলেন, সচেতনতার কথা বলেছি। তার পরেও এক্ষেত্রে শ্রমিকদের বাসস্থানের বিষয়টি সরকারের দেকতে হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত