প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কোথাও পিপি পৌঁছায়নি এ কথাটি সত্য নয় : আইইডিসিআর

শাহীন খন্দকার : [২] করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত চিকিৎসকরা পার্সনাল প্রোটেকশন (পিপি) পড়ে এই কাজ করেন। আর এই পিপি কিভাবে স্বাস্থ্যকর্মীরা ব্যবহার করবেন সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কিছু নিয়ম জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর)।

[৩] শনিবার (২৮ মার্চ) কোভিড-১৯ এর সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে প্রেস ব্রিফিং-এ এক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য তথ্য ইউনিটের পরিচালক ডা. মোহাম্মাদ হাবিবুর রহমান এসব নিয়মের কথা বলেন। তিনি বলেন, ডাক্তার বা নার্সরা যে পিপি ব্যবহার করেন তা দুই ধরনের হয়। একটি ওয়ান টাইম ইউজ ও অন্যটি রি-ইউজেবল।

[৪] যে পিপিটিতে ওয়ান টাইম ইউজ লিখা থাকবে সেটি শুধুমাত্র একবারই ব্যবহার করা যাবে, দ্বিতীয় বার ব্যবহারের সুযোগ নেই। তবে যেসব পিপিতে রি-ইউজেবল লিখা থাকবে সেগুলো একাধিকবার ব্যবহার করা যাবে। তবে তা নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে। রি-ইউজেবল পিপি ব্যবহার নিয়ম উল্লেখ্য করে তিনি বলেন, প্রথমটি পিপিটি ব্যবহারের পর সঙ্গে সঙ্গে খোলে ফেলতে হবে। এরপর বালতির পানিতে (ডিটারজেন্ট বা সাবান মেশানো) আধা ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখতে হবে।

[৫] এই প্রক্রিয়ায় আধা ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখলে পিপিটি জীবানু মুক্ত হয়ে যাবে। তারপর এগুলোকে সম্পূর্ণ রিফ্রেশ করে আবারও ব্যবহার করা যাবে। পিপি সরবরাহের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত কোনো স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান পিপি পাইনি একথাটি বলা যাবে না। হয়তো পরিমাণে কম হতে পারে। যেমন দশটা পিপি একটা জায়গায় প্রয়োজন আমরা পাঁচটা পিপি দিয়েছি এরকম হতে পারে। আমরা প্রতিদিনই পিপি সংগ্রহ করছি এবং হাসপাতালে সরবরাহ করা হচ্ছে ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত