প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ফরিদপুরে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক, অতিরিক্ত পণ্য কেনার হিরিক

হারুন-অর-রশীদ,ফরিদপুর প্রতিনিধি : [২] ফরিদপুর জেলায় এখনও কোন করোনা ভাইরাস রোগি শনাক্ত হয়নি তারপরও বাজার ও হাটে ঘাটে চলছে জোর আলোচনা। বাজার গুলোতে ক্রেতাদের উঁপচে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা গেছে অতিরিক্ত নিত্য পণ্য কেনার জন্য। বৃহস্পতিবার হোম কোয়ারেন্টাইনের আইন লংঘন করায় দুজনকে জরিমানা করেছে চরভদ্রাসন উপজেলা প্রশাসন।

[৩] এর ভিতর ফরিদপুরে বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে ৪২ জনকে রাখা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে ২৩ জনকে। তবে তাদের শরীরে কোন করোনা ভাইরাস পাওয়া যায়নি। এরই ভিতর জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ সিভিল সার্জন অফিসে একটি কন্টোল রুম খুলেছে এ বিষয়ে। সেখান থেকে মনিটরিং করা হচ্ছে করোনা ভাইরাস বিষয়ে সব তথ্য।

[৪] এদিকে গত দুদিন ধরে ফরিদপুর জেলা শহরসহ সকল বাজার গুলোতে অতিরিক্ত নিত্য ভোজ্য পণ্য কেনার হিরিক লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যা রীতিমতো হুঁমড়ি খেয়ে পড়ার মতো। তবে এক সাথে এতো পণ্য কেনার কোন দরকার নেই বলে প্রশাসন থেকে বলা হলেও তারা শুনছেন না। জেলা প্রশাসন থেকে টিসিবি এর মাধ্যমে নিত্য ভোজ্য পণ্য বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

[৫] শহরের তিতুমীর মার্কেটে গিয়ে দেখা যায়, যে যার মতো পারছে অতিরিক্ত চাল, ডাল, তেল, চিনিসহ বিভিন্ন পণ্য কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। এসময় প্রতিটি দোকান আগের যে কোন সময়ের থেকে ভীড়ে ঠাসা ছিলো। দোকান গুলোতে দুপুরে অভিযান চালালেও প্রতিটি পণ্য বেশি দামে বিক্রি লক্ষ্য করা গেছে সন্ধ্যায়।

[৬] বাজারে এই বিষয়ে কয়েকজন ক্রেতার সাথে কথা হলে তারা বলেন, ভয়ে আমরা বেশি বেশি করে জিনিস কিনছি। কখন কি হয় সেই কারণে এতো বেশি বাজার করা। ফরিদপুরে এখনও করোনা শনাক্ত হয়নি বললেও তারা সেই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা যেতে রাজি নয়। তারা বলেন গুজব উঠেছে বেশি বেশি করে পণ্য কিনে রাখার জন্য তাই কিনছি।

[৭] করোনা ভাইরাস বিষয়ে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার সাংবাদিকদের বলেন, আমরা করোনা প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় স্থানীয় জন প্রতিনিধি, ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, ওয়ার্ড মেম্বার, স্বাস্থ্য বিভাগসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ নিয়ে এই কার্যক্রমে শামিল রয়েছে। সকলকে সাথে নিয়ে কাজ করে চলছি। এখনও ফরিদপুরে সার্বিক পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে তিনি জানান। তিনি আরো বলেন সকলকে তাঁর নিজ নিজ অবস্থানে থেকে আরো বেশি বেশি সর্তক হতে হবে। এদিকে জেলা প্রশাসন জেলা জুড়ে মাইকিং এবং লিফলেট বিতরণ করছে জনগণের মাঝে সচেতনতা বিষয়ে। সম্পাদনা:জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত