প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বগুড়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের এডি ৫দিন যাবত নিরুদ্দেশ

আরএইচ রফিক,বগুড়া থেকে : [২] বগুড়া আঞ্চলিক অফিসে সম্প্রতি যোগদানকারী সহকারী পরিচালক (এডি) মুহা : আবজাউল হোসেন তার কর্মস্থলে অনুপোস্থিত রয়েছেন। গত প্রায় ৫দিন যাবত তার কোন সন্ধান জানেননা সংশ্লিষ্ট অফিসের কেউ। সম্ভাব্য ভাবে তার সন্ধান করেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যাচ্ছেনা ।
গত ৯ ফেব্রুয়ারি বগুড়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে সহকারী পরিচালক (এডি) হিসাবে যোগদান করেন মুহা : আবজাউল হোসেন।
[৩] এদিকে একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে পাওয়া তথ্য মতে অতি সম্প্রতি বগুড়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে সহকারী পরিচালক (এডি) হিসাবে যোগদানের পর তার বিরুদ্ধে রাজশাহীতে দূদুকের একটি মামলা দায়েরের খবরে হঠাৎ করেই তিনি নিরুদ্দেশ হয়ে যান। সূত্র আরো জানায়, হাফেজ আহমেদ নামের একজন ভারতীয় নাগরিককে বাংলাদেশি নাগরিক দেখিয়ে বহিরা গমন রাজশাহী বিভাগীয় অফিস থেকে পাসপোর্ট প্রদান করায় তার নামে মামলা দায়ের করে দূর্নীতি দমন কমিশন( দুদক) রাজশাহী বিভাগীয় অফিস। । এ ঘটনার পর থেকে হঠাৎ করেই নিরুদ্দেশ হয়ে যান তিনি।

[৪] গত রবিবার ও সোমবার বগুড়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে পাসপোর্ট সংক্রন্ত ঘটনায় তার খোঁজ খবর করতে গেলে দু’একজন অসাম্যজস্য পূর্ন কথাবার্তা বললেও তার ব্যাপারে কেউ সঠিক তথ্য দিতে পারেননি।এদিকে অফিসের অপর একটি সূত্র দাবী করে জানানো হয় যে, তিনি ছুটিতে আছে এবং ঢাকায় যেতে পারেন তিনি । গত কয়েকদিন যাবৎ তার ব্যক্তিগত মোবাইলও কেন বন্ধ কেন থাকতে পারে অফিসিয়ালি তার পক্ষে কোন জোরালো তথ্য তারা জানাতে পারেনি তারা ।
এ বিষয়ে বিভিন্ন সূত্র ও মাধ্যমে জানা গেছে, বিগত ২০১৭ সালে আবজাউল হোসেন রাজশাহী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে কমরত ছিলেন। সে সময় ভারত থেকে নানা বাড়ী রাজশাহীতে বেড়াতে আসা হাফেজ আহমেদকে বাংলাদেশি নাগরিক হিসাবে দেখিয়ে পাসপোর্ট প্রদান করেন তিনি।
সূত্র আরো জানায়, হাফেজ আহমেদ বাংলাদেশ থেকে ভারত হয়ে বর্তমানে সৌদি আরবে অবস্থান করেছেন।
এদিকে এ বিষয়ে বিভিন্ন মিডিয়ায় তথ্য সম্বলিত তথ্য প্রকাশিত হলে বিষয়টি আমলে নেয় স্থানীয় দূদক অফিস। পরে দুদক কেন্দ্রীয় অফিসের নির্দেশে ঘটনাটি পঙ্কুনাপঙ্কুভাবে তদন্ত করা শুরু হয়।
[৫] তদন্ত শেষে গত ১২ মার্চ (বৃহস্পতিবার) সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দুদক রাজশাহী ,রাজশাহী আঞ্চলিক কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (এডি) মুহা আবজাউল হোসেন সহ অফিস সংশ্লিষ্ট মোট ৮ জনের নামে মামলা দায়ের করেন। মূলত বিষয়টি অবহিত হওয়ার পরে ওই দিন থেকে হঠাৎ করে বগুড়া থেকে নিরুদ্দেশ হয়ে যান বগুড়া পাসপোর্ট অফিসের( এডি) আবজাউল হোসেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত