প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বাংলাদেশে করোনাভাইরাস: ফেসবুকের যেসব গুজবে বিশ্বাস করবেন না

মশিউর অর্ণব: [২] চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে উৎপত্তি হওয়া এই ভাইরাস আক্ষরিক অর্থে দাবানলের মতোই ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের ১০৬ টি দেশে।

[৩] বাংলাদেশেও রোববার ৩ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্তের কথা জানিয়েছে আইইডিসিআর।

[৪] রোববার (৮ মার্চ) পর্যন্ত সারা বিশ্বে মোট মৃত্যু হয়েছে ৩,৬৬২ জনের, এবং মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৮ হাজারের কাছাকাছি।

[৫] করোনাভাইরাস নিয়ে বিশ্বজুড়ে ডালপালার মতো ছড়িয়েছে কিছু গুজব। পাশাপাশি ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে কিংবা ভাইরাসটির চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়েও মানুষের মাঝে প্রচলিত রয়েছে কিছু ভুল ধারণা।

[৬] এরকমই কয়েকটি প্রচলিত ধারণা এবং গুজবকে খণ্ডন করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

[৭] প্রচলিত আছে, কেবল বয়স্করাই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। অথচ যেকোনো বয়সীরাই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন। তবে বয়স্কদের দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অপেক্ষাকৃত কম বলে তাদের ঝুঁকি বেশি থাকে।

[৮] ফেসবুকে বলা হচ্ছে, চীন থেকে আসা কোনো চিঠি বা প্যাকেজ গ্রহণ করলে গ্রহণকারীর দেহে ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়াতে পারে। কিন্তু ধারণাটি সম্পূর্ণ ভুল, কারণ চিঠি বা প্যাকেজের মতো পণ্যদ্রব্যে ভাইরাসটি সক্রিয় থাকতে পারে না।

[৯] প্রচলিত আছে, পোষা প্রাণীর মাধ্যমে ছড়ায় করোনাভাইরাস। অথচ এখনও পর্যন্ত পোষ্য কুকুর-বিড়ালের মাধ্যমে ভাইরাসটির বিস্তারের কোনো সত্যতা প্রমাণিত হয়নি।

[১০] নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে, মুরগির মাংস, সামুদ্রিক মাছ, পশুর মাংস থেকে কঠোরভাবে দূরে থাকার কথা ফেসবুকে ভাইরাল হলেও, এধরনের কোনো খাবার এড়িয়ে চলার নির্দেশনা দেননি চিকিৎসকরা।

[১১] আরও একটি ভুল ধারণা হলো, নিউমোনিয়ার ওষুধে করোনাভাইরাসের চিকিৎসা করা যাবে। অথচ নিউমোনিয়ার ভ্যাকসিনে কেবল নিউমোনিয়াই সারে এবং এখনপর্যন্ত করোনাভাইরাসের কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কৃত হয়নি।

[১২] প্রচলিত আছে, করোনাভাইরাস যেহেতু নাসারন্ধ্রের মধ্য দিয়ে শ্বাসনালীকে আক্রমণ করে, তাই স্যালাইন দিয়ে রোজ নাক পরিস্কার করলে করোনাভাইরাস নাকের মাধ্যমে শরীরে প্রবেশ করবে না। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে দ্রবণ দিয়ে নাক পরিস্কার রাখলে সেটি সাধারণ ঠান্ডাজনিত অসুখকে দূরে রাখবে, করোনাভাইরাসকে নয়।

[১৩] আরও একটি ভুল ধারণা হলো, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে মৃত্যু নিশ্চিত। অথচ এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে মাত্র ৩.৪০ শতাংশ মানুষ মারা গেছেন।

[১৪] এছাড়াও নিয়মিত তিলের তেল, আদা, রসুন খেলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে দূরে থাকা যায় বলে বিশ্বাস করেন কিছু মানুষ। এই ধারণাগুলোও সম্পূর্ণ ভুল এবং অবৈজ্ঞানিক।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত