প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রথমবারের মতো ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচন হচ্ছে ইভিএম পদ্ধতিতে

আরিফ হোসেন: এ জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে, ৩০ হাজারের বেশি ইভিএম। সরকারি প্রিজাইডিং অফিসার সকাল ৭ টার মধ্যেই সবার উপস্থীতিতে কার্ড ইভিএম মেশিনে লাগানো হবে এবং ভোট শেষ হবার পরে কার্ডটি বের কোরে নেয়া হবে। এর আগে মেশিন থেকে কার্ডটি বের কোরতে পারবেনা। চ্যানেল ২৪

স্মার্ট কার্ড ও এন আইডি নম্বর দেখে ভোটারকে সনাক্ত করা হবে। ভোটারের ফিঙ্গার প্রিন্ট নেয়া হবে এবং স্মার্ট কার্ডের সাথে তথ্য মিলানো হবে। সব তথ্য সঠিক থাকলে ব্যালট ইউনিটে প্রবেশ কোরতে পারবে। তিন জন মনোনয়ন প্রার্থীকে পছন্দ মত ভোট দিতে পারবে। হাতের যটিলতার কারনে ফিঙ্গার প্রিন্ট না মিল্লে এই ক্ষেত্র পিজাইডিং অফিসারকে এক পার্সেন ভোট দেয়ার খমতা দেয়া হয়েছে এতে কোন খতি নেই।

নির্বাচন কমিশন সচিব মো.আলমগীর বলেন, এই এক পার্সেন্ট ভোট বেশি, এটা কোন সাধারন মানুষের জন্য নয় এটা আবার ডাটা প্যেজ থেকে জায়। কোন ভোটারের ক্ষেত্রে সে ব্যবহার করেছে সেই তথ্যও ইভিএমে থেকে যায়। এটা নিয়ে যদি কেউ চ্যালেঞ্চ করে আমার আঙ্গুলকাটা ছিল, আঙ্গুল কাটা না, প্রিজাইডিং অফিসার আমার ভোট দিয়ে দিয়েছে। এমন অভিযোগ থাকলে সেটা প্রমান হলে প্রিজাইডিং অফিসারের জেল হয়ে যাবে।

গণনা প্রক্রিয়া এখন অনেক সহজ, প্রতিটা ভোটার তিনটি কোরে ভোট দিবে। থালমাল পেপারে সাথে সাথে ভোট গণনা হয়ে যাবে। দ্বিতিয় বার আর গণনা করার প্রয়োজন নেই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত