প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খিলক্ষেতে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত দুজন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মিজানুরের খুনি, বলেছে পুলিশ

খালিদ আহমেদও মাসুদ আলদ : গতকাল ভোরে খিলক্ষেতের ডুমিনি (পূর্বাচল ৩০০ ফুট) এলাকায় হাতিরঝিল থানা-পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নাজমুল ইসলাম ও শাহীন ওরফে মোটা শাহীন নিহত হয়।

কিছুদিন আগে কারওয়ান বাজারসংলগ্ন উড়ালসড়কে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মিজানুর রহমানসহ পৃথক ঘটনায় চারজনকে যাত্রী হিসেবে অটোরিকশায় তুলে টাকা ও মুঠোফোন ছিনিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে হত্যা করে লাশ উড়ালসড়কে ফেলে দেন। এসব ঘটনায় গ্রেপ্তার তিন ছিনতাইকারীর জবানবন্দিতে নাজমুল ও শাহীনের নাম আসে।

তেজগাঁও বিভাগের পুলিশ জানায়, ৬ জানুয়ারি ভোরে পুলিশ রাজধানীর কারওয়ান বাজারসংলগ্ন উড়ালসড়কের ওপরে অজ্ঞাতনামা হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মিজানুর রহমানের গলায় ফাঁস লাগানো লাশ উদ্ধার করে। পকেটে থাকা এটিএম কার্ডের সূত্র ধরে মিজানুরের পরিচয় জানতে পারে পুলিশ। ওই হত্যা মামলার তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশ দুটি ছিনতাইকারী চক্রের খোঁজ পায়।

২৫ ও ২৬ জানুয়ারি ওই ঘটনায় পুলিশ ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য নুর ইসলাম, মো. জালাল ও আবদুল্লাহ ওরফে বাবুকে গ্রেপ্তার করে।  তারা আদালতে দেয়া জবানবন্দিতে বলেন, রাতে অটোরিকশা নিয়ে ছিনতাইয়ে বের হন তাঁরা এবং যাত্রী তুলে তাদের কাছ থেকে টাকা ও মুঠোফোন নিয়ে দুপাশ থেকে দুই সদস্য মাফলার বা গামছা দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে হত্যা করেন। এতে নাজমুল, শাহীনসহ ১০ জনের নাম প্রকাশ করেন। গত চার বছরে তারা আড়াই হাজার ছিনতাই করার কথা জানান।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত