প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারকে আরো ৩৫,০০০ কোটি সাহায্য দেবে রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া

রাশিদ রিয়াজ : চলতি আর্থিক বছর শেষ হওয়ার আগে অন্তত একবার আরবিআইয়ের পরিচালন পর্যদ বৈঠকে বসবে। সেই বৈঠকে অন্তর্বর্তী ডিভিডেন্ট নিয়ে সরব হতে পারেন ভারত সরকারের মনোনীত ডিরেক্টররা। আর্থিক সংকটে জর্জরিত মোদী সরকার। খরচ পরিবর্তিত থাকলেও প্রত্যাশা মতো আয় হয়নি। যার জেরে আর্থিক ঘাটতির লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়া একপ্রকার নিশ্চিত। এই পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণের জন্য কেন্দ্র ফের রিজার্ভ ব্যাংকের কাছে হাত পেতেছে। সূত্রের খবর, অন্তর্বর্তী ডিভিডেন্টে চেয়ে অর্থ মন্ত্রকের তরফে দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে আবেদন করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরবর্তী বোর্ড মিটিংয়ে কেন্দ্রকে অন্তর্বর্তী ডিভিডেন্টে দেওয়ার প্রসঙ্গ উঠতে চলেছে বলে সূত্র উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে।

সূত্রের খবর, চলতি আর্থিক বছর শেষ হওয়ার আগে অন্তত একবার আরবিআইয়ের পরিচালন পর্যদ বৈঠকে বসবে। সেই বৈঠকে অন্তর্বর্তী ডিভিডেন্ট নিয়ে সরব হতে পারেন সরকারের মনোনীত ডিরেক্টররা।

তা ছাড়া আগামী ১ ফেব্রুয়ারি সাধারণ বাজেট পেশের পরে একদিন আরবিআইয়ের কেন্দ্রীয় বোর্ডে সৌজন্যমূলক ভাষণ দেবেন নির্মলা সীতারমন। ওই ভাষণে সাধারণ বাজেটের দিশা সম্পর্কে সবিস্তার ব্যখ্যা করবেন অর্থমন্ত্রী। প্রতি বছরই প্রথা অনুসারে বাজেট প্রস্তুত হওয়ার কয়েক দিন পরে এমন বৈঠকে বক্তব্য পেশ করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীরা।

সংসদে পেশ করা বাজেটে চলতি আর্থিক বছরের জন্য ₹৭.০৩ ট্রিলিয়ন আর্থিক ঘাটতির লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছিল। যা জিডিপির ৩.৩ শতাংশ। কিন্তু যা পরিস্থিতি তাতে ইতোমধ্যে আর্থিক ঘাটতির লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়েছে মোদী সরকার। সরকারি ঘোষণা শুধু সময়ের অপেক্ষা। আর এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের একমাত্র ভরসা রিজার্ভ ব্যাংক। এই দফায় অন্তর্বর্তী ডিভিডেন্টে বাবদ আরবিআইয়ের থেকে কেন্দ্র অন্তত ৩৫,০০০ কোটি টাকা চাইতে পারে। আর এই অনুরোধ আরবিআই গ্রহণ করলে এই নিয়ে টানা তিন বছর দেশের সর্বোচ্চ ব্যাংকের থেকে অন্তর্বর্তী ডিভিডেন্ট বাবদ অর্থ কেন্দ্রের কোষাগারে ঢুকবে।

কেন্দ্রীয় সরকারকে ১,৭৬,০৫১ কোটি টাকার অর্থ সাহায্য দেওয়ার সিদ্ধান্ত আগেই নিয়েছে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক। ইকনমিক ক্যাপিটাল ফ্রেমওয়ার্ক  পর্যালোচনার পর ২০১৮-১৯ অর্থবছরের উদ্বৃত্ত হিসেবে ১,২৩,৪১৪ কোটি এবং অতিরিক্ত খাতে আরও ৫২,৬৩৭ কোটি দেওয়ার কথা জানিয়েছে কেন্দ্ৰীয় ব্যাংক। এর মধ্যে চলতি আর্থিক বছরে কেন্দ্র পাচ্ছে ১ লাখ ৪৮ হাজার কোটি টাকা। তার পরেও আয়-ব্যায়ের ফারাক মেটাতে আরবিআইয়ের কাছে হাত পাততে হচ্ছে সরকারকে। এই সময়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত