প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অবৈধ পকিংয়ে রাজধানীতে বাড়ছে যানজট, হোতা গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তা-কর্মচারিরা

শেখ নাঈমা জাবীন : বাস, প্রাইভেটকার, কাভার্টভ্যানসহ ছোট বড় যানবাহনের অবৈধ পারকিংয়ের কারণে রাজধানীর সড়কগুলোতে বাড়ছে যানজট। অবৈধভাবে পাকিং করা এসব গাড়ির বেশিরভাগ সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারিদের। চালকদের অভিযোগ, পাকিংয়ের নির্দিষ্ট স্থান না থাকায় রাস্তায় পাকিং করতে বাধ্য হন তারা। একাত্তর টিভি

রাষ্ট্রের প্রধান প্রশাসনিক ভবন সচিবালয়ের পশ্চিম পাশের আব্দুল গনি সড়ক। সড়কটি দিয়ে যাতায়ত করেন সচিবালয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারিরা। পাশেই পরিবহন পুল থাকলেও সড়কের উপর তিন সারিতে অবৈধভাবে কর্মকর্তাদের গাড়ি পার্কিং করে রাখা হয় সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত। এতে যানবাহনের স্বাভাবিক চালাচল ব্যহত হয়। সৃষ্ট হয় যানজট।

অবৈধ গাড়ি পাকিং দণ্ডনীয় অপরাধ বলা হলেও রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ন কর্মকর্তাদের গাড়ির অবৈধ পাকিং নিয়ন্ত্রনে অসহায় ট্রাফিক পুলিশ। ট্রাফিক ইন্সপেক্টর জাহাঙ্গীর কবির বলেন, কেউ অবৈধ গাড়ি পাকিং করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

বাণিজ্যিক এলাকা মতিঝিলস্থ বাংলাদেশ বিমানের প্রধান কার্যালয়ের সামনে অবস্থিত ১২ তলা ভবনের নেই নিজস্ব পাকিং ব্যাবস্থা। একই অবস্থা এই এলাকার অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ভবনেরও। গুলিস্তানের গোলাপশাহ মাজার থেকে ঢাকা দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনের সামনের সড়কটি এখন টেম্পু স্ট্যান্ড হিসেবে ব্যবহ্নত হচ্ছে। শত শত টেম্পুর কারণে এখানেও স্বাভাবিক যান চলাচল ব্যহত হচ্ছে।

কাঁচাবাজার হিসেবে কারওয়ানবাজারের পরিচিত থাকলেও এখানে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ন সরকারি-বেসরকারি অফিস রয়েছে। সড়কটি ৬০ফুট প্রশস্ত হলেও বিভিন্ন অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারিদের গাড়ির অবৈধ পাকিংয়ে দখল হয়ে আছে সড়কের ৪৮ফুট অংশ। বাকি রাস্তা ব্যাবহারের সুযোগ পাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের বহু চেষ্টার পর তেজগাঁওয়ে সাত রাস্তা মোড় থেকে ট্রাক স্ট্রান্ডটি সরিয়ে আলাদা পাকিংএর ব্যাবস্থা করলেও ভূমিজরিপ অফিসের ৩০ফুট রাস্তাটি এবার দখলে নিয়েছেন কাভার্টভ্যান চালকরা।

রাজধানীর অভিজাত এলাকা বনানীর কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ। চারলেনের এই সড়কটি ৬০ ফুট প্রশস্ত হলেও অবৈধ পাকিংয়ের কারণে একটি লেনও ব্যাবহারের করা যাচ্ছে না। সড়কের দুইপাশে অন্তত ৩৫টি বহুতল ভবন থাকলেও, নিজস্ব পাকিং রয়েছে মাত্র ৬টি ভবনের।

এছাড়া নগরের বিভিন্ন স্থানে ফুটপাত দখল করে খাবারের দোকান গড়ে উঠলেও ভাবান্তর নেই কারোরই। তৎপরতা নেই ট্রাফিক পুলিশ বিভাগ বা সিটি কর্পোরেশনের। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অবৈধ পাকিং উচ্ছেদ করা গেলে কমবে রাজধানীর যানজট, বাড়রে গাড়ির গতি।

সম্পাদনা : আহমেদ শাহেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত