প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

কাদের মনোনয়নে বিদেশ যাচ্ছেন ১৪০ নার্স!

বাংলাট্রিবিউন: সাত বিষয়ে প্রশিক্ষণের জন্য ১৪০ জন নার্স চলতি মাসেই থাইল্যান্ড ও ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন। আর হজ মিশনের মেডিক্যাল টিমের জন্য সৌদি আরব যাবেন আরও ৫৪ জন নার্স। তবে যোগ্যতা ও জ্যেষ্ঠতা বিচার না করেই স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের কিছু কর্মকর্তা তাদের প্রশিক্ষণে পাঠাচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। যারা বিদেশে প্রশিক্ষণের সুযোগ পাচ্ছেন তাদের কারও নাম নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতর থেকে প্রস্তাবও করা হয়নি। অধিদফতরের প্রস্তাব করা তালিকা থেকেই প্রশিক্ষণের জন্য নার্সদের বিদেশে পাঠানোর নিয়ম হলেও এবার তা অনুসরণ করা হয়নি বলেও অভিযোগ উঠেছে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, এই অনিয়মকে যিনি নিয়ম বানিয়েছেন তিনি হলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেকের একান্ত সচিব (উপসচিব) মো. ওয়াহেদুর রহমান। নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতরের সহকারী পরিচালক শিরিনা আক্তার ও ডুপ্লিকেটিং মেশিন অপারেটর এনামুল হককে নিয়ে সিন্ডিকেট তার। সরকারি হাসপাতালের নার্সদের নিয়োগ, পদায়ন ও বদলি নিয়েও তার বিরুদ্ধে বিস্তার অভিযোগ আছে। তবে তিনি সব অভিযোগ অস্বীকার করেন।

চেষ্টা করেও শিরিনা আক্তারের কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি। আর এনামুল হক বলেন, তিনি সাধারণ কর্মচারী। অফিসারদের নির্দেশ মানাই তার কাজ।

অভিযোগ উঠেছে, বিদেশে প্রশিক্ষণের সুযোগ দেওয়ার নামে প্রত্যেক নার্সের কাছ থেকে ৩ থেকে সাড়ে ৩ লাখ টাকা করে নেওয়া হয়েছে। আর অর্থের লেনদেন প্রাধান্য পাওয়ায় যোগ্যরা বঞ্চিত হয়েছে।

নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতরের পরিচালক (প্রশাসন) শিরীনা দেলহুরা বলেন, উন্নত সেবা প্রশিক্ষণের জন্য যাদের বিদেশে পাঠানো হচ্ছে তাদের সম্পর্কে অধিদফতর কিছুই জানে না। কারা, কীভাবে, কোন যোগ্যতার ভিত্তিতে সুযোগ পাচ্ছেন তা মন্ত্রণালয়ই বলতে পারবে।

ট্রেইনিং অন ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ), ট্রেইনিং অন জেরিয়াট্রিক নার্সিং, ট্রেইনিং অন রেসপিরেটরি নার্সিং ও ট্রেইনিং অন পেডিয়াট্রিক নার্সিং শীর্ষক চারটি প্রশিক্ষণ থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হবে। ২৪ মে শুরু হয়ে ২০ জুন পর্যন্ত চলবে এই প্রশিক্ষণ। প্রতিটি ব্যাচে ২০ জন করে নার্স প্রশিক্ষণের সুযোগ পাচ্ছেন।

আর ট্রেইনিং অন অনকোলজি/পেডিয়াট্রিক/মিডওয়াইফারি/কার্ডিওলজি নার্সিং, ট্রেইনিং অন মিডওয়াইফারি/কার্ডিওলজি/নেফ্রোলজি নার্সিং ও ট্রেইনিং অন পেডিয়াট্রিক/কার্ডিওলজি/মিডওয়াইফারি/অনকোলজি নার্সিং শীর্ষক তিনটি প্রশিক্ষণ ইন্দোনেশিয়াতে অনুষ্ঠিত হবে। ২৮ মে শুরু হয়ে ২৪ জুন পর্যন্ত চলবে প্রশিক্ষণ। প্রতিটি ব্যাচে ২০ জন করে নার্স প্রশিক্ষণের সুযোগ পাচ্ছেন।

সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে সোচ্চার বাংলাদেশ নার্সেস অ্যাসোসিয়েশন (বিএনএ)। বিএনএ’র পক্ষ থেকে গত ৩ এপ্রিল স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রীর কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। বিএনএ মহাসচিব মো. জামাল উদ্দিন বাদশা লিখিত অভিযোগে বলেন, ‘অধিদফতরের একজন সহকারী পরিচালক ও তার সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি সাধারণ নার্সরা। সিন্ডিকেট যেকোনও কাজ যেমন বদলি/পদায়ন-এমনকি হজ মেডিক্যাল টিমে নাম অন্তর্ভুক্তি স্বজনপ্রীতি ও অর্থের বিনিময়ে করে থাকে। প্রশাসন, শিক্ষা, বিভিন্ন ট্রেনিং প্রোগ্রাম এমনটি বাজেটও নিয়ন্ত্রণ করে সিন্ডিকেট।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত