প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বদিকে দিয়ে মাদক নিয়ন্ত্রণ, শাজাহান খানকে দিয়ে সড়ক নিয়ন্ত্রণ, সংসদে বিতর্ক

আসাদুজ্জমান সম্রাট : সাবেক নৌ-পরিবহন মন্ত্রী ও সড়ক পরিবহন নেতা শাজাহান খানকে সড়কে দুর্ঘটনা রোধে সুপারিশ প্রণয়ন কমিটির সভাপতি করায় অনির্ধারিত বিতর্ক হয়েছে জাতীয় সংসদে। সোমবার সংসদে মাগরিবের বিরতির আগে প্রশ্নোত্তর পর্বে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে সম্পূরক প্রশ্ন করতে গিয়ে বিষয়টির অবতারণা করেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির (জাপা) সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম। সম্পূরক প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘বদিকে দিয়ে মাদক নিয়ন্ত্রণ, শাজাহান খানকে দিয়ে সড়ক নিয়ন্ত্রণ। গতবার শাজাহান খানের একটা হাসি নিয়ে কতকিছু ঘটলো। সেই শাজাহান খানকে প্রধান করে গঠিত কমিটি সরকারের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে কতটা সক্ষম হবে?’

জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ এখানে ব্যক্তি কোনো বিষয় নয়। আমি দেখব সড়কে শৃঙ্খলা আনয়নে ও দুর্ঘটনা প্রতিরোধে কমিটি কি সুপারিশ তৈরী করে।’ পরে ওবায়দুল কাদেরের কাছে সম্পূরক প্রশ্ন করতে গিয়ে সরকার দলীয় এমপি শামীম ওসমান এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘শাজাহান খান একজন সম্মানিত ব্যক্তি। তার হাসির জন্য ঘটনা ঘটেছে নাকি ঘটনা ঘটানো হয়েছিল, সেটা দেখার বিষয়।’

মাগরিবের বিরতির পর অধিবেশনে কার্যপ্রণালী বিধির ২৭৪ বিধিতে ব্যক্তিগত কৈফিয়ত দিতে ফ্লোর নেন শাজাহান খান। তিনি বলেন, ফখরুল ইমাম মাদক আর সড়ক দুর্ঘটনাকে এক কাতারে দাঁড় করিয়েছেন। তিনি আমার সম্পর্কে যেসব মন্তব্য করেছেন তা অত্যন্ত দুঃখজনক ও নিন্দনীয়। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই। শাজাহান খান বলেন, আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে চাই- সড়ক দুর্ঘটনার জন্য শুধু চালকরাই দায়ী নন। যেখানে চালক দায়ী থাকবে সেখানে চালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অন্য যারা দায়ী থাকবে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে। সড়ক দুর্ঘটন রোধে সুপারিশ প্রণয়নে আমাকে সভাপতি করে যেই কমিটি করা হয়েছে, আমরা কার্যকর ব্যবস্থা নেব। দুর্ঘটনার হার আরও কমবে। আমি দায়দায়িত্ব নিয়েই কথা বলছি। এসময় তিনি ফখরুল ইমামে বক্তব্য প্রত্যাহার কিংবা এক্সপাঞ্জের দাবি জানান।

শাজাহান খান বলেন, সড়ক পরিবহন নিরাপত্তা কাউন্সিলের বৈঠকে রবিবার আমাকে ওই কমিটির সভাপতি করা হয়েছে। সেখানে কেউ আমার বিরোধিতা করেনি। আমি একটা দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছি। আগে ট্রাকের সামনে দুই ফুট বাম্পার ও হুক থাকতো। আজ সেগুলো দেখবেন না। আজকের বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গাসহ বসে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম- এই বাম্পার ও হুক থাকবে না, এগুলো খুলতে হবে। পুলিশের সঙ্গে আমরা নিজেরা গিয়ে সেই বাম্পার ও হুক খুলেছি।

সড়ক পরিবহন খাতের এই নেতা বলেন, সড়ক পরিবহন অত্যন্ত স্পর্শকাতর সেক্টর। ১৯৭২ সাল থেকে আমি আমি শ্রমিক রাজনীতি ও ট্রেড ইউনিয়ন করি। সেই কারণে শ্রমিকদের নিয়ে কথা বললে আমার গায়ে লাগে। ২০১৩-১৪ সালে যখন বিএনপি-জামায়াত গাড়ি ও গার্মেন্টস কারখানায় আগুন দিচ্ছিল তখন আমি শ্রমিকদের নিয়ে প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছি। যার কারণে ২০১৪ সালের পর আর একটি গার্মেন্টস কারখানায়ও জ্বালাও-পোড়ানোর ঘটনা ঘটেনি। শ্রমিকদের স্বার্থ

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সুপারিশমালা প্রণয়নের জন্য শাজাহান খানকে প্রধান করে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। রবিবারের বৈঠকে যখন শাজাহান খানের নাম প্রস্তাব করা হয় তখন কেউ কিন্তু বিরোধিতা করেননি। তার নেতৃত্বে আরও ১৪ জন সদস্য রয়েছেন। অতীতে কোনো ব্যক্তির কারণে কোনো সমস্যার উদ্ভব হয়েছে কিনা সেটা আমি দেখব নাসেই সুপারিশের ভিত্তিতে আমরা পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করব। এসময় প্রশ্নকারী ফখরুল ইমামের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দেখুন না, আপনি যতটুকু আশা করছেন তার চেয়েও ভালো রিপোর্ট আসতে পারে।’ পরে সম্পূরক প্রশ্ন করতে গিয়ে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ