প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন বলেছেন, সবচেয়ে বেশি দুর্নীতি ভূমি মন্ত্রণালয়ে

কেএম নাহিদ : স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন বলেছেন, আমার কথা না সরকারের মন্ত্রী বলেছেন সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্থ মন্ত্রণালয় ভুমি মন্ত্রণালয়। কারণ এক ইঞ্চি খুঁটি যদি সরিয়ে নেয়া হয়, আর যদি লম্বায় একমাইল হয়, তাহলে কয়েক বিঘা জমি এর মধ্যে গিলে খাওয়া সম্ভব। আমাদের সমম্নয়হীনতা, আইন না মানার প্রবণতার মাসুল দিচ্ছি। যুগ যুগ ধরে এটাই হয়ে আসছে। আমাদের ভূমি মন্ত্রণালয়ের কিছু অসাধু কর্মচারীর কর্মকর্তা যোগসাজশে দিন দিন দেশে এই অবৈধ কর্মকাণ্ড চলছে, আর এর মাধ্যমে ক্ষতি হচ্ছে আমাদের দেশের সাধারণ মানুষ। তিনি বলেন, সময় এসেছে নদী দখল মুক্ত করার পাশাপাশি এসব দখলবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার। যেসব কর্মচারী টাকা নিয়ে নদীর চারপাশে জমিগুলো বরাদ্দ দিয়েছে তাদের আইনের আওতায় আনা উচিত। বুধবার ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের আজকের বাংলাদেশ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, আর একটি প্রতিষ্ঠান রাজউক। তারা কি করে অবৈধ দখলকৃত জায়গায় স্থাপনা করা অনুমতি দিলো। তারা বলছে তারা লোক নেই এসব দেখছে না, এটা ভোকাস কথা ছাড়া আর কি। সমন্বয়হীনতা নাকি অন্যায় ঢেকে রাখার প্রবণতা আমি বুঝতে পারছি না।

তিনি বলেন,নদীগুলোকে মেরে ফেলছি। কলকারখানা বর্জ্য ফেলছি, এমন কি লঞ্চের যে সব মলমূত্র এগুলোও নদীতে ফেলা বন্ধ করতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের ঢাকাই একমাত্র শহর যার চারপাশে নদীবেষ্টিত সুমিষ্ট পানি আছে যা আমরা কাজে লাগাতে পারি। অপরূপ পর্যটন কেন্দ্র করার পাশাপাশি আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে সুন্দর ঢাকা উপহার দিতে পারি। সরকার যে নদীকে দখল মুুক্ত করে একটি সুন্দর পরিকল্পনা নিয়েছে, তাকে আমি সাধুবাদ জানাই। এই উদ্ধার করা নদী যেনো আবার দখল না হয় এটাই আশা করছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত