প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দশ বছরেও উৎপাদনে আসেনি কয়লাভিত্তিক নতুন কোনো বিদ্যুৎকেন্দ্র

আব্দুস সালাম : বিদ্যুৎ বিভাগ বৃহৎ প্রকল্পগুলোর কাজের গতি বাড়াতে চায়। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রীর আশায় জাতীয় গ্রিডে যোগ হবে পায়রা, রামপাল ও মাতারবাড়ি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাজ। সময় টিভি

নির্মাণাধীন কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হলে পায়রা থেকে আসত ৫৭ শতাংশ বিদ্যুৎ। তুলনামূলকভাবে পিছিয়ে আছে আলোচিত রামপাল ও মাতারবাড়ির কাজ। তবে সরকারের নতুন মেয়াদে গতি আসবে সব প্রকল্পেই, নতুন করে পায়রা, মাতাবাড়ি ও মহেশখালীতে শুরু হবে আরো কয়েকটি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাজ।

পাওয়ারসেল এর মহাপরিচালক প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন বলেন, পায়রায় বড় হাব হবে উৎপাদন হবে ৫-৬ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ, মাতারবাড়িতে উৎপাদন হবে ৫ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ এবং মহেশখালীতে ১০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০২২ সালের মধ্যে আরো তিন-চারটি প্রল্পের কাজ শুরু হবে।

কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রতুলনামূলক কম খরচে টেকসই প্রাথমিক জ্বালানি হিসেবে গুরুত্ব দেয়া হবে কয়লাকে। সে অনুযায়ী চলতি বছরে জানুয়ারির মধ্যেই ঢাকা, চট্রগ্রাম, বরিশাল ও খুলনায় প্রায় ৫ হাজার মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিকল্পনা নেয়া হয়। বর্তমান সরকারের প্রথম মেয়াদেই পরিকল্পনা অনুযায়ি এ কাজগুলো সম্পাদন করতে পারলে এতোদিনে ৩০ শতাংশ বিদ্যুৎ আসতো এই সাশ্রয়ী জ্বালানি থেকে। কিন্তু সেইসব পরিকল্পনা কাগজে কলমে সীমাবদ্ধ থাকায় কয়লা থেকে বিদ্যুৎ আসছে মাত্র তিন শতাংশ। যার যোগান দিচ্ছে দিনাজপুর বড়পুকুরিয়ার বিদ্যুৎ কেন্দ্র।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত