প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আক্রান্ত মানুষটি খালিহাতেই সিংহটিকে মেরে ফেললেন

সালেহ্ বিপ্লব : বাধ্য হয়ে গলা টিপেই তিনি পাহাড়ি সিংহটিকে মেরে ফেলেছেন তিনি। স্বেচ্ছায় ঠিক নয়, প্রাণ বাঁচানোর তাগিদেই তাকে এটি করতে হয়েছিলো। উত্তর আমেরিকায় সিংহের আক্রমণে মারাত্মক আহত হয়েও ভাগ্যক্রমে প্রাণে বেঁচে যাওয়া লোকটির নাম জানা যায়নি এখনো, তবে কলরাডো পার্কস এন্ড ওয়াইল্ডলাইফ (সিপিডব্লিউ) কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তিনি শংকামুক্ত। বিবিসি

অন্যান্য দিনের মতো সোমবার বিকেলে  উত্তর কলরাডোর পাহাড়ি অঞ্চলে খ্বু পরিচিত পার্ক ট্রেইলে দৌড়াতে গিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি। হঠাৎ শব্দ পেয়ে পেছনে তাকান, বুঝে ওঠার আগেই এক পাহাড়ি ক্যুগারের আক্রমণের শিকার হন। ঘটনাস্থল ডেনভার থেকে ১০৬ কিলোমিটার দূরে, সিটি অব ফোর্ট কলিন্সের কাছাকাছি। হর্সটুথ মাউন্টেনের ওয়েস্ট রিজ ট্রেইলে দৌড়াচ্ছিলেন মানুষটি, যার নাম কর্তৃপক্ষ এখনো প্রকাশ করেনি।

সিংহের আক্রমণে লোকটির মুখ, কব্জি, পা ও পিঠে গুরুতর জখম হয়। নিজেকে বাঁচানোর জন্য তিনি সিংহের নাখমুখ ও গলা জাপটে ধরেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। শ্বাসরুদ্ধ হয়ে প্রাণীটির মৃত্যু হয়, প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর এমনই জানিয়েছেন সিপিডব্লিউ’র কর্মকর্তারা।

সিংহটি বয়সে কিশোর ছিলো, ওজন ছিলো ৩৬ কেজি। সিংহ হিসেবে তেমন বড়োসড়ো না হলেও মানুষকে মেরে ফেলার মতো যথেষ্ট শক্তি এই বয়সী সিংহের থাকে। সিংহটিকে মেরে ফেলার পর কোনরকমে পার্ক থেকে বের হয়ে আসেন আক্রান্ত ব্যক্তি, তারপর সাহায্য চেয়ে ফোন করেন।

কলরাডো পার্কস এন্ড ওয়াইল্ডলাইফ-এর (সিপিডব্লিউ) নর্থইস্ট রিজিওনের ম্যানেজার মার্ক লেসলি বলেন, সিংহের আক্রমণের শিকার হলে নিজেকে বাঁচানোর জন্য যা যা সম্ভব, সব করতে হয়। ওই ভদ্রলোক তাই করেছেন।
তবে পাহাড়ি সিংহ কাউকে আক্রমণ করেছে, এমন দুর্ঘটনা খুবই কম ঘটে। সিপিডব্লিউ জানিয়েছে, সিংহের আক্রমণে গত একশ’ বছরে বড়োজোর জনাদশেক মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। সংখ্যাটি এরচেয়ে বেশি নয়।

সাধারণত অসুস্থ বা ক্ষুধার্ত সিংহরা চট করে মানুষকে আক্রমণ করে বসে, আর আক্রান্ত হলে দৌড় না দেয়ার পরামর্শই দিয়েছেন বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞরা। দৌড়ালে বরং দ্রুত সিংহের থাবায় প্রাণ হারানোর সম্ভাবনা বাড়ে, সহজাত প্রবৃত্তির কারণে সিংহ ধাওয়া করে শিকারকে মেরে ফেলে। না দৌড়ে বরং অন্যভাবে বাঁচার চেষ্টা করাই শ্রেয়, যেমনটি করে নিজের প্রাণ বাঁচাতে সমর্থ হয়েছেন হামলার শিকার ওই ব্যক্তিটি। বাজে রকম ভাবে আহত মানুষটির কাছ থেকে এখনো জানা যায়নি, ঠিক কীভাবে তিনি সিংহটিকে মেরেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত