প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপি নেতা ‘খন্দকার মোশাররফ’র সঙ্গে ‘আইএসআই

ডেস্ক রিপোর্ট : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সঙ্গে এক ব্যক্তির ফোনালাপ হাতে পাওয়ার দাবি করেছে থাইল্যান্ড ভিত্তিক নিউজ পোর্টাল এশিয়ান ট্রিবিউন। তাদের দাবি, মেহমুদ নামের ওই ব্যক্তি পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিস ইন্টেলিজেন্সের (আইএসআই) কর্মকর্তা।

ফোনালাপটি তাদের দু’জনেরই কিনা সেটা যাচাই করা সম্ভব হয়নি। তবে এশিয়ান ট্রিবিউনের দাবি, ৭ মিনিটের ফোনালাপটির বিষয়ে তাদের কাছে তথ্যপ্রমাণ আছে।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপিকে সাহায্য করার জন্য আইএসআই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে ফোনালাপে দাবি করেন মেহমুদ নামের ওই ব্যক্তি। ফাঁসকৃত ফোনালাপে নির্বাচনে বিএনপিকে জয়ী করতে আইএসআই’র কাছে খন্দকার মোশাররফকে সাহায্য চাইতে শোনা যায়। এজন্য একপর্যায়ে তিনি চীনকে ম্যানেজ করার জন্য মেহমুদের কাছে সাহায্য চান। মেহমুদ তার জবাবে জানান চীনের সঙ্গে বিএনপিকে সাহায্যের ব্যাপারে তাদের (আইএসআই) যোগাযোগ চলছে। বিএনপির এ নেতাকে আইএসআই’র বিশ্বস্ত বন্ধু বলে আখ্যায়িত করেন। খন্দকার মোশাররফও তাদের বন্ধু হয়েই থাকতে চান বলে মেহমুদকে আস্বস্ত করেন।

ফোনালাপে এ বিষয়টি স্পষ্ট যে আগেও পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থার এই এজেন্টের সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন বিএনপির সিনিয়র এ নেতা।

দু’জনের ফোনালাপটি তুলে ধরা হল-

মোশাররফ: আসসালামু আলাইকুম ভাইজান।

মেহমুদ: আসসালামু আলাইকুম ভাইজান। কেমন আছেন?

মোশাররফ: ভালো আছি। ধন্যবাদ।

মেহমুদ: অনেকদিন পর আপনার সঙ্গে কথা বলে ভালো লাগছে।

মোশাররফ: জী, জী। আমার কথা মনে আছে! ওই যে শেষবার ইসলামাবাদের একটা হোটেলে আমাদের সাক্ষাৎ হয়েছিলো।

মেহমুদ: হ্যাঁ, হ্যাঁ। এখন মনে পড়ছে।

মোশাররফ: হোটেলে আপনি একজন অতিথির সঙ্গে এসেছিলেন আমার সঙ্গে দেখা করতে।

মেহমুদ: হ্যাঁ, হ্যাঁ। মনে পড়েছে।

মোশাররফ: কেমন আছেন আপনি? কোথায় আছেন?

মেহমুদ: আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি। আমি এখন দুবাই আছি। যদি সম্ভব হয় এবং সময় পেলে আমার সঙ্গে দেখা করেন। আপনার সঙ্গে দেখা করা জরুরি।

মোশাররফ: অবশ্যই। আমি কিছু বলতে চাই। আমরা এখন বাংলাদেশে বেশ সমস্যার মধ্যে আছি। আমার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা চলছে। একটি মামলায় আমার পাসপোর্ট জব্দ করা হয়েছে। আমি দেশের বাইরে যেতে পারছি না। এই হলো আমার অবস্থা।

মেহমুদ: আমার যতদূর মনে পড়ে আপনি আমাদের একজন এজেন্টের সঙ্গে দেখা করেছিলেন।

মোশাররফ: হ্যাঁ, আমি আপনাদের একজন কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলাম।

মেহমুদ: ঠিক আছে। তবে আমাদের সঙ্গে আপনার দেখা হওয়াটা জরুরি।

মোশাররফ: দেখা হলে তো ভালই হতো। তবে আমরা এখন ভীষণ সমস্যার মধ্যে আছি। এই বিপদ থেকে আপনারাই আমাদের উদ্ধার করতে পারেন। আপনারা সবই জানেন।

মেহমুদ: জ্বী, জ্বী।

মোশাররফ: আমার মনে হয় আপনি সবই জানেন।

মেহমুদ: আপনি বাংলাদেশে আমাদের একমাত্র প্রকৃত বন্ধু। আমরা আপনার সঙ্গে আমাদের কৌশল নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছিলাম।

মোশাররফ: আমি আপনাদের বন্ধু হিসেবেই থাকতে চাই। যদিও আপনাদের সঙ্গে সরাসরি সাক্ষাত করাটা আমার পক্ষে এখন সম্ভব নয়। সেটি করতে পারলে উপকৃত হতাম। তবে আমি বাংলাদেশে আপনাদের এজেন্টের সঙ্গে সাক্ষাত করবো। আপনি সেটার খবর অবশ্যই পাবেন। আমি বলতে চাই, আপনারা যদি চীনকে ম্যানেজ করতে পারেন তবে এই নির্বাচনে আমরা ভালো ফল পেতে পারি।

মেহমুদ: অবশ্যই। আমরা চীনের বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছি। কাজ অলরেডি শেষ হয়ে গিয়েছে। আপনার সঙ্গে সরাসরি সাক্ষাত হলে আরো অনেক বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যেত। যাই হোক সেটি তো আর সম্ভব হচ্ছে না।

মোশাররফ: আপনারা চাইলে এখানে আমি আপনাদের যেকোনো লোকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে কথা বলতে পারি। তবে আমার পক্ষে বিদেশে গিয়ে সাক্ষাৎ করাটা সম্ভব নয়।

মেহমুদ: বুঝতে পেরেছি। তবে আপনি চিকিৎসা বা ওমরাহ করার বাহানায় বিদেশে আসতে পারলে আপনার সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করা যেত। যাই হোক, আমাদের এজেন্ট আপনার সঙ্গে শীঘ্রই দেখা করে কথা বলবে।

মোশাররফ: হুমম। আপনাদের কোন দায়িত্বপ্রাপ্ত এজেন্ট যদি আমার সঙ্গে দেখা করে, তবে সেটি উত্তম হয়। সেক্ষেত্রে আমি আপনাদের এজেন্ট বা আপনাদের সঙ্গে পরবর্তীতে আলোচনা করবো।

মেহমুদ: অবশ্যই। আমারা সর্বাত্মক চেষ্টা করবো আপনাদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করার। আপনি যা বললেন তা আমি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানাবো। আশা করি, বিভিন্ন ইস্যুতে আমরা এক সঙ্গে কাজ করবো। একই সঙ্গে আমরা বিভিন্ন সময়ে আমাদের এজেন্ট মারফত আপনাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখবো। আপনাদের জন্য কাজ করার ব্যাপারে আমরা সর্বোচ্চ প্রস্তুত।

মোশাররফ: ধন্যবাদ। অনেক ধন্যবাদ।

মেহমুদ: আপনাকেও ধন্যবাদ। এখন আমাদের উভয়ের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ সময়। এসময় একে অপরকে সহায়তা করতে হবে। তবেই আমাদের মিশন সফল হবে ইনশাআল্লাহ।

মোশাররফ: আমরা যেটা অনুধাবন করতে পেরেছি যে, একে অপরকে সাহায্য করতে হবে। কারণ আমরা ভীষণ বিপদের মধ্যে আছি। আমাদের সাহায্য দরকার।

মেহমুদ: অবশ্যই, অবশ্যই। বিষয়টি নিয়ে আমরা কাজ শুরু করে দিয়েছি। যেভাবেই হোক বিপদ থেকে উদ্ধার পেতে হবে। যেহেতু আপনি বলছেন সরাসরি সাক্ষাৎ সম্ভব নয়, তাই আমরা ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করার চেষ্টা করছি। যদি কোনদিন সম্ভব হয় আপনার সঙ্গে দেখা হবে।

মোশাররফ: অবশ্যই। আমি চেষ্টা করছি পাসপোর্ট ফিরে পেতে। পাসপোর্ট হাতে পেলেই আপনাদের সঙ্গে দেখা করবো।

মেহমুদ: জ্বী।

মোশাররফ: এবং আমি এখানে (ঢাকায়) আপনাদের এজেন্টের সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করবো।

মেহমুদ: অবশ্যই। ঢাকায় আমাদের এজেন্টের সঙ্গে আপনার সাক্ষাতের বিষয়টি আমরা দেখছি। এরপরও আপনার সঙ্গে আমাদের নিয়মিত যোগাযোগ থাকবে ইনশাআল্লাহ।

মোশাররফ: আমিও ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগ রক্ষা করার চেষ্টা করবো। সেক্ষেত্রে আপনি আমাকে আপনাদের পুরনো বন্ধু হিসেবে ভাবতে পারেন।

মেহমুদ: অবশ্যই। এজন্যই কিন্তু আপনার সঙ্গে আমি যোগাযোগ করেছি।

মোশাররফ: আপনার সহযোগিতার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। আমি জানি আপনারা আমাদের ভুলে যাবেন না। যার কারণেই কিন্তু আপনি আমার সঙ্গে যোগাযোগ করার সর্বাত্মক চেষ্টা করেছেন।

মেহমুদ: অবশ্যই, অবশ্যই।

মোশাররফ: আমি আপনাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখবো। বন্ধুত্বের খাতিরে হলেও আমাদের মধ্যে যোগাযোগ থাকবে।

মেহমুদ: ইনশাআল্লাহ। আপনি এবং আপনার পরিবারের জন্য শুভকামনা রইলো।

সূত্র : সময় নিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ