প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দাওরায়ে হাদিসে কী পড়ানো হয়?

আমিন মুনশি : সম্প্রতি ‘আল হাইআতুল উলয়া লিল-জামি’আতিল কাওমিয়া বাংলাদেশ’ এর অধীন কওমি মাদরাসাগুলোর দাওরায়ে হাদিসের (তাকমিল) সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রির (ইসলামিক স্টাডিজ) সমমান প্রদান বিল ২০১৮ ‘ পাস করেছে বাংলাদেশে সরকার।

গত ১৯ সেপ্টেম্বর রাতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের ২২তম অধিবেশনে বিলটি পাস হয়।

বাংলাদেশ ব্যুরো অব অ্যাডুকেশনাল ইনফরমেশন অ্যান্ড স্ট্যাটিসটিকস-এর ২০১৫ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সারাদেশের ১৩ হাজার ৯০২টি মাদরাসায় বর্তমানে প্রায় ১৪ লাখ শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছেন। কওমি মাদরাসার পক্ষ থেকে বলা হয় শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৭ লাখের কম নয়।

পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, ১২ হাজার ৬৯৩টি মাদরাসায় ১০ লাখ ৫৮ হাজার ৬৩৬ জন ছেলে পড়াশোনা করছে আর ১ হাজার ২০৮টি মাদরাসায় ৩ লাখ ৩৯ হাজার ৬১৬ জন নারী পড়াশোনা করছেন।

উনিশ শতকে ভারতীয় উপমহাদেশে প্রতিষ্ঠিত দারুল উলুম দেওবন্দ মাদরাসার মাধ্যমে কওমি শিক্ষাব্যবস্থার প্রচলন হয়। ভারতের দেওবন্দ মাদরাসার অনুসরণ করে বাংলাদেশেও কওমি মাদরাসা শিক্ষা চালু রয়েছে। সিলেবাস প্রণয়নের ক্ষেত্রেও দেওবন্দের অনুসরণ করা হয়।

দাওরায়ে হাদিসের শিক্ষার্থীরা তাকমিলের আগে ১০ বছরের কওমি পাঠ শেষ করে আসেন। ওই ১০ বছর সময়ের মধ্যে ২৪টি বিষয় পড়েন। এর মধ্যে ইসলামের মৌলিক শিক্ষা ছাড়াও রয়েছে আরবি, উর্দু ও ফার্সি ভাষা। প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত বাংলা ব্যাকরণ, সাহিত্য, গণিত, ইংরেজি, ইতিহাস, ভূগোল ও সাধারণ বিজ্ঞানও রয়েছে।

যা রয়েছে দাওরায়ে হাদিস (তাকমিল) এর সিলেবাসে

দাওরায়ে হাদিসে ভর্তি হওয়ার শিক্ষার্থীরা কোরআন ও হাদিসের আলোকে ইসলামের তাত্ত্বিক বিষয় অধ্যায়ন করেন। মূল বিষয় হলো হাদিস। এর মধ্যে রয়েছে সিয়াসিত্তাহ। অর্থাৎ ছয়টি বিশুদ্ধ হাদিসগ্রন্থ।

এগুলো হলো সহিহ বুখারি শরিফ যার মাঝে ৭ হাজার হাদিস, সহিহ মুসলিম শরিফ, তাতে ৯ হাজার হাদিস, সুনান আন নাসাই, সুনান আবু দাউদ, জামি আল তিরিমিজি ও সুনান ইবন মাজাহ।

সরাসরি আরবি পড়ানো হয় এসব হাদিসের কিতাবগুলো। এ হাদিসগুলোর ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ করা হয় আরবিতে বা বাংলায়।

ইসলামি আইন বিষয় হাদিসের সংকলন মুয়াত্তা ইমাম মালিক ও মুয়াত্তা ইমাম মুহাম্মদ ও তাহাবি শরিফও আছে সিলেবাসে।

যেসব বিষয়ে মাস্টার্স সমমান দাওরায়ে হাদিস (তাকমিল) পরীক্ষা অুনষ্ঠিত হয়

সহিহ বুখারি (১ম খণ্ড), সহিহ বুখারি (২য় খণ্ড পূর্ণ) , সহিহ মুসলিম (১ম খণ্ড), সহিহ মুসলিম (২য় খণ্ড), উলূমুল হাদিস (হাদিস অধ্যায়নের মূলনীতি), জামেউত তিরমিযি-(১ম খণ্ড), (জামেউত তিরমিযি (২য় খণ্ড) ও শামায়েলুত তিরমিযি, আবু দাউদ, নাসায়ী ও ইবনে মাজা শরিফ, শরহু মায়ানিল আসার (ত্বহাবি শরিফ), মুআত্তা ইমাম মালিক ও মুআত্তা ইমাম মুহাম্মাদ, কুরআন সহিহ শুদ্ধ করে না পড়তে পারলে সনদ দেয়া হয় না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত