Skip to main content

চট্টগ্রামে শিবির সভাপতিকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে ছাত্রলীগ

ডেস্ক রিপোর্ট : চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) শাখার শিবির সভাপতি জামিল আহম্মদকে পরীক্ষার হল থেকে আটকের পর বেধম মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে চুয়েট ছাত্রলীগ। ওই সময় একটি ছুরিও পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়। ছাত্রলীগের দাবি এই ছুরিটি নিয়ে পরীক্ষা দিতে এসেছিলো জামিল আহম্মদ। জামিল আহম্মদ ঠাকুরগাঁও জেলার পূর্ব গোয়ালপাড়া এলাকার মিজানুর রহমানের ছেলে এবং চুয়েটের কম্পিউটার সাইন্স বিভাগের শিক্ষার্থী। এই ঘটনায় রাউজান থানায় শুক্রবার দুপুরের দিকে জামিল আহম্মদকে একমাত্র আসামী করে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করেছে চুয়েট ছাত্রলীগ সভাপতি মোহাম্মদ বাকের। চট্টগ্রাম জেলার রাউজান থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কেপায়েত উল্লাহ এসব তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধায় ছাত্রলীগের চুয়েট শাখার সভাপতি মোহাম্মদ বাকের ফোন করে জানায় চুয়েট শিবির সভাপতিকে আটক করা হয়েছে। পরে আমরা সেখানে গিয়ে তাকে নিয়ে আসি। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দায়েরের পর বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ছাত্রলীগের চুয়েট শাখার সভাপতি মোহাম্মদ বাকের বলেন,  আমরা গোপনে খবর পাই শিবিরের চুয়েট সভাপতি জামিল আহম্মদ অস্ত্র নিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে এসেছে। ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ে আমরা সেখানে যাই। ওই সময় আমাদের দেখে পালানোর চেষ্টা করলে তাকে আমরা আটক করি। বাকেরের ভাষ্য, আটকের পর তার কাছ থেকে একটি দেশিয় তৈরী অস্ত্র (এক হাত লম্বা একটি ছুরি) উদ্ধার করি। পরে আমরা রাউজান থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে তাকে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় তাকে একমাত্র আসামী করে একটি মামলা করেছি। - পরিবর্তন

অন্যান্য সংবাদ