প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

অপরকে খুশি করাই সবচাইতে আনন্দের কাজ – ডক্টর ইউনুস

নূর মাজিদ: ভারতের প্রযুক্তিখাতের শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয় ইনফোসিস ইলেকট্রোনিক সিটি ক্যাম্পাসে চলছে ইউনুস সেন্টারের ‘অষ্টম সামাজিক ব্যবসায় দিবস’। এর আগে প্রতি বছর ইউনুস সেন্টার ঢাকায় সামাজিক ব্যবসায় দিবসের অনুষ্ঠান পালন করলেও এবার তা উদযাপন করছে বেঙ্গালুরুতে। এবারের সামাজিক ব্যবসায় দিবসের প্রতিপাদ্য ‘এ ওয়ার্ল্ড অব থ্রি জিরোজ : জিরো প্রোভার্টি, জিরো আন-এমপ্লয়মেন্ট এবং জিরো কার্বন এমিশন’, অর্থাৎ এমন একটি বিশ্ব যেখানে বেকারত্ব, দারিদ্র ও পরিবেশ দূষণ শুন্যের অংকে নেমে আসবে। ডক্টর মুহাম্মদ ইউনুস এমন এক পৃথিবীর স্বপ্নই তার লেখা বই ‘এ ওয়ার্ল্ড অব থ্রি জিরো’তে উল্লেখ করেছেন।

বাংলাদেশ এবং পুরো বিশ্বে ইউনুস সেন্টারের পরিচালিত কার্যক্রমের বাস্তবসম্মত সফলতার উদাহরণ দিয়েই তিনি তার বইয়ে এমন পৃথিবী তৈরির সম্ভাবনার কথা লিখেছেন। সেই বইটির প্রতিপাদ্য নিয়ে আয়োজিত ইউনুস সেন্টারের অষ্টম সামাজিক ব্যবসায় দিবসের তৃতীয় দিনে এক মনো-মুগ্ধকর বক্তব্য রাখেন ডক্টর ইউনূস। সেসময় তিনি সামাজিক ব্যবসায় এবং ব্যক্তি উদ্দ্যোগ এবং সৃজনশীলতার মাধ্যমেই বর্তমান পৃথিবীর তিনটি বড় সমস্যার সমাধান সম্ভব বলে জানান।

সামাজিক ব্যবসায় উদ্দ্যোগ শুরু করবার জন্য প্রথম যে জিনিসটি প্রয়োজন তা হলো অপরকে খুশি করবার ইচ্ছা। এমনটাই মনে করেন ডক্টর ইউনূস। এসময় তিনি বলেন, আমাদের মূল অনুপ্রেরণা হওয়া উচিৎ অবহেলিত-দুঃখী মানুষের মুখে হাঁসি ফোটানো। আর এই উদ্দেশ্যকে পুঁজি করেই তিনি তরুণদের সামাজিক ব্যবসায়ে উদ্যোগ নেবার আহ্বান জানান।

এসময় তিনি বলেন, তোমাদের কাছে গাড়ি, বাড়ি, ব্যাংক ব্যালান্স, কোম্পানির শেয়ার অনেক কিছুই থাকবে এক সময়। কিন্তু, সম্পদ আমাদের একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ আনন্দই দিতে পারে। বিশেষ করে ভোগের যে আনন্দ তার অবশ্যই একটি সীমারেখা আছে। কিন্তু অন্যকে আনন্দ দেবার মাঝে যে তৃপ্তি ও সুখ আছে তা অপরিসীম। সেই সুখ অর্জন করতেই সামাজক ব্যবসায়ে তরুণদের সম্পৃক্ত হওয়া উচিৎ।

তিনি আরো বলেন, আমার বইতে আমি বর্তমান পৃথিবীর যে বড় তিনটি সমস্যা দারিদ্র, বেকারত্ব এবং পরিবেশদূষণ দূর করবার কথা বলেছি, তা আমার কাছে কখনোই অসম্ভব বলে মনে হয়নি। বরং আমি মনে করি অসম্ভবের একটি সীমা আছে। আমরা ছোট ছোট অসম্ভবকে সম্ভব করতে করেতেই একদিন অসম্ভব শব্দটিকে অকার্যকর করে তুলব।

তরুণদের উদ্দেশ্য ইউনুস আরো বলেন, কারো জন্যেই বসে থাকার কোন সুযোগ আর তোমাদের হাতে নেই, এখন সময় উদ্দ্যোগ নেবার। সামগ্রিক সমাজ তখনই এগোবে যখন ব্যক্তি উদ্দ্যোগে অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখিয়ে দেয়া হবে। ইউনুস সেন্টার(ভিডিও + প্রেস রিলিজ)

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত