প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাষ্ট্রায়াত্ব ব্যাংকে টাকা চাওয়া টোটালি আনফেয়ার

আশিক রহমান : রাষ্ট্রায়াত্ব ব্যাংকের কাছে বেসরকারি ব্যাংকগুলোর টাকা চাওয়া টোটালি আনফেয়ার বলে মনে করেন অর্থনীতিবিদ ও রুপালী ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ড. আহমদ আল কবির। আমাদের অর্থনীতির সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, রাষ্ট্রায়াত্ব ব্যাংক থেকে বেসরকারি ব্যাংকগুলো স্বল্প সুদে টাকা চাওয়ার ব্যাপারটি অপ্রত্যাশিত। রাষ্ট্রায়াত্ব ব্যাংকগুলো কেন বেসরকারি ব্যাংকগুলোকে টাকা দেবে? সরকারকে চাপ দিয়ে এ ধরনের সুযোগ আদায় করে নেওয়া ঠিক নয়। সরকারকে এ বিষয়ে আরও পুঙ্খানুপুঙ্খ বিচার-বিশ্লেষণ করার প্রয়োন আছে।

তিনি আরও বলেন, সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকÑ দুই জায়গাতেই সমস্যা রয়েছে। বেসরকারি কিছু ব্যাংকে হয়তো সমস্যা, সংকট রয়েছে, কিন্তু সব জায়গায় নয়। সব বেসরকারি ব্যাংক সংকটে নেই। ভালো আছে অনেক ব্যাংকই। তারা ভালো ব্যবসাও করছে। লাভজনকও। যে মুষ্টিমেয় কয়েকজন ব্যাংকার খারাপ, তারাই এটাকে বিভিন্নভাবে চাপ দিয়ে সরকারকে ব্যবহার করার চেষ্টা করছে, আর অন্যরা সেই সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করছে। ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংলাদেশ (বিএবি) এ চাওয়া টোটালি আনফেয়ার। এ ধরনের বিশেষায়িত সুযোগ দেওয়ার কোনো সুযোগ ব্যাংক নীতিমালায় নেই।

এক প্রশ্নের জবাবে ড. আহমদ আল কবির বলেন, সরকারি বা বেসরকারি ব্যাংকÑ সবার উদ্দেশ্য ব্যবসা। এখানে প্রতিযোগিতা আছে, সেটা থাকবেও। যদি সরকারের নিজস্ব কোনো ব্যাংক থাকে সেখান থেকে ঋণ নেবে, বিভিন্নভাবে ব্যবহার করবে। এটার জন্য আলাদা নীতি থাকতে পারে, তবে বাকি সবার জন্য একই নীতি থাকা উচিত। তিনি বলেন, এক ব্যাংক আরেক ব্যাংকে টাকা দেবে, একটা কোনো ধরনের সংকট নয়। কিন্তু বড় বিষয় হচ্ছে, সরকারি ব্যাংকগুলোর কাছে আরও বেটার অপশন থাকে তাহলে কেন অন্য ব্যাংককে টাকা দেবে। তবে এটা ভলিন্টিয়ার হতে পারে, কিন্তু সরকারের উপর তা জোর করে চাপিয়ে দেওয়া উচিত নয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ