প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শনিবার পদ্মাসেতুর দ্বিতীয় স্প্যান বসানো হতে পারে

নিজস্ব প্রতিবেদক: পদ্মা সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান ৭বি আজ শনিবার (২৭ জানুয়ারি) বসানো হতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রকল্প সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীরা।

শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সেতু সংশ্লিষ্ট একাধিক দায়িত্বশীল প্রকৌশলী এ খবর জানান। ৭বি স্প্যানটি (সুপার স্ট্রাকচার) ৩৮ ও ৩৯ নম্বর পিয়ারের ওপর বসবে। সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

প্রকৌশলীরা জানান, দ্বিতীয় স্প্যান বসানোর কাজ বিভিন্ন কারণে বারবার পিছিয়েছে। এর আগে গত মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি), পরে বৃহস্পতিবার এই স্প্যান বসানোর কথা ছিল। তবে শনিবার স্প্যানটি বসবে বলে তারা শতভাগ আশাবাদী। সকাল ১০টার দিকে স্প্যান বসানো হতে পারে বলেও জানান তারা। তবে কোনও কারণে সকালে বসানো সম্ভব না হলে বিকালেও স্প্যান বসানোর কাজ হতে পারে বলে জানিয়েছেন এক প্রকৌশলী।

এদিকে ড. জামিলুর রেজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার থেকে পদ্মা সেতুর ১১ সদস্যের বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এখানে পাঁচ জন বিদেশি বিশেষজ্ঞও রয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে এই টিম মাওয়া হয়ে জাজিরা সার্ভিস এরিয়ায় আসেন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় এই সভা শুরু হয়। দুপুর ১টায় বিরতি দিয়ে আড়াইটায় আবার শুরু হয় সভা। তারপর সভা চলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত।

শুক্রবারও প্রায় একই রুটিনে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত সভা চলে। পাইল, সুপার স্ট্রাকচার, সাব স্ট্রাকচারসহ বিভিন্ন ইস্যুতে সভা অনুষ্ঠিত হলেও এর এক নম্বর এজেন্ডা হচ্ছে ১৪টি পিলারের নকশা চূড়ান্ত করা।

প্রকৌশলীরা জানিয়েছেন, শনিবার বিকালে সভা শেষে এই ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেওয়া হতে পারে। বিভিন্ন পেপার ওয়ার্ক করে শনিবারের মধ্যে একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছানো যাবে এবং ঠিকাদারদের তা জানিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে তারা আশাবাদী।

এদিকে, বারবার দ্বিতীয় স্প্যান বসানোর তারিখ পেছানোর ব্যাপারে এক প্রকৌশলী জানান, ‘স্প্যান বসানোর কাজটি একটি ‘মেজর গ্রাউন্ড ওয়ার্ক’। এখানে কিছু প্যারামিটার আছে। প্যারামিটারের সবকিছু পরীক্ষা করে এবং চ্যানেলে কিছু সমস্যা ছিল যা মোটামোটিভাবে সমাধান করে শনিবার স্প্যানটি বসানো যাবে বলে আশা করছি।’

দ্বিতীয় স্প্যানটিকে বহন করে ৩ হাজার ৬০০ কিলোজুলের ক্ষমতার ভাসমান ‘তিয়ান ই’ ক্রেনটি ৩৪ ও ৩৫ নম্বর পিয়ারের মাঝ বরাবর রয়েছে। আশা করা যাচ্ছে শনিবার ৭বি স্প্যানটি পিয়ারের ওপর বসবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত