প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আন্তর্জাতিক সিম বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিল

ডেস্ক রিপোর্ট : নিয়ম ভেঙে দেশের অভ্যন্তরে আন্তর্জাতিক সিম, রিম ও ডাটা কার্ড বিক্রির অভিযোগে বিপণনকারী ছয় প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিল করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীন প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টারের (এনটিএমসি) এক চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিটিআরসি।

বিটিআরসিকে দেয়া এনটিএমসির চিঠিতে বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমে তথ্যপ্রযুক্তির অপব্যবহারের কারণে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও সন্ত্রাস দমন চ্যালেঞ্জিং হয়ে পড়ছে। কোনো কোনো লাইসেন্সধারী প্রতিষ্ঠান বিটিআরসির নীতিমালা ভঙ্গ করে দেশের অভ্যন্তরে আন্তর্জাতিক সিম, রিম ও ডাটা কার্ড বিক্রি করছে বলে বিভিন্ন সূত্র ও নজরদারির মাধ্যমে নিশ্চিত হয়েছে এনটিএমসি। অবৈধ এ কার্যক্রম একই সঙ্গে রাষ্ট্রীয় ও জনগণের নিরাপত্তার পথে বড় ধরনের ঝুঁকি তৈরি করছে।

বণিক বার্তার প্রতিবেদনে জানা গেছে, এনটিএমসির এ চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে তাদের আন্তর্জাতিক সিম, রিম ও ডাটা কার্ড বিক্রির তথ্য চেয়ে চিঠি পাঠায় বিটিআরসি। এ নির্দেশনার ভিত্তিতে লাইসেন্স পাওয়া আট প্রতিষ্ঠানের মধ্যে তথ্য দিয়েছে ছয়টি। এসব তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, সবচেয়ে বেশি ১ লাখ সিম বিক্রি করেছে ইন্ট্রাকো লিমিটেড। এসব সিম মূলত হজে গমনকারীদের কাছে বিক্রি করা হয়েছে বলে দাবি করেছে প্রতিষ্ঠানটি। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির লাইসেন্স বাতিল ঘোষণা করেছে বিটিআরসি।

অন্যদিকে যে দুটি প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চালু রয়েছে, সেগুলো হলো— ইউজিআই ট্রেড কোম্পানি ও ফোরডিএল বাংলাদেশ লিমিটেড। বিটিআরসিকে দেয়া তথ্য অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠান দুটি এখন পর্যন্ত যথাক্রমে ২১৯ ও ৫৩টি সিম বিক্রি করেছে। অন্য তিন প্রতিষ্ঠান এ বিষয়ক কোনো তথ্য সরবরাহ করেনি।

প্রতিষ্ঠানগুলোর দেয়া তথ্য পর্যালোচনার পর এনটিএমসির সঙ্গে বৈঠক করে বিটিআরসি। বৈঠকে নীতিমালা লঙ্ঘন করে দেশের অভ্যন্তরেই সিম, রিম ও ডাটা কার্ড বিক্রির মাধ্যমে নিরাপত্তা ঝুঁকি সৃষ্টিকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশ করা হয়। এর ভিত্তিতেই ছয় প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন।

বিটিআরসির ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা এ প্রসঙ্গে বলেন, দেশের বাইরে ব্যবহারের জন্য সিম বিক্রির উদ্দেশ্যে এসব প্রতিষ্ঠানকে লাইসেন্স দেয়া হয়েছিল। এদের বিরুদ্ধে নিয়ম ভেঙে দেশেই সিম, রিম ও ডাটা কার্ড বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠানগুলোর লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে।

এনটিএমসি সূত্রে জানা গেছে, এ অনিয়মতান্ত্রিক অবৈধ আন্তর্জাতিক সিম ক্রয়-বিক্রয়ের সুবিধা নিয়ে জঙ্গি, সন্ত্রাসী, কখনো কখনো অনুপ্রবেশকারীরাও দেশের ভেতরে নাশকতা চালানোর পরিকল্পনা করছে। অনিবন্ধিত ও রোমিং সার্ভিস এনাবলড এসব আন্তর্জাতিক সিম, রিম ও ডাটা কার্ড ব্যবহারের ফলে ব্যবহারকারীর পরিচয় যেমন সঠিকভাবে নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না, তেমনি একই সঙ্গে কোন ভৌগোলিক স্থান থেকে ভয়েস কল করা হচ্ছে বা কোথা থেকে রিসিভ করা হচ্ছে; তারও সঠিক তথ্য সংগ্রহ করা সম্ভব হচ্ছে না। ফলে ব্যবহারকারীর ফিজিক্যাল বা ভার্চুয়াল অবস্থান নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না। বিষয়টিকে দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকির কারণ বলে আখ্যা দিয়েছে এনটিএমসি।

দেশের ভৌগোলিক সীমানার মধ্যে এসব আন্তর্জাতিক সিম, রিম ও ডাটা কার্ড ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকলেও আইন অমান্য করে স্থানীয়ভাবেই তা সক্রিয় অবস্থায় বিক্রি করছিল অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো। দেশের অভ্যন্তরে লাইসেন্সধারী সেলফোন নেটওয়ার্ক অপারেটরদের কাছে ব্যবহূত সিমগুলোর তথ্য না থাকায় এনটিএমসির লফুল ইন্টারসেপশন (এলআই) সিস্টেমের মাধ্যমে এগুলো মনিটরিং ও নজরদারির আওতায় আনা সম্ভব হচ্ছিল না। ফলে আইন প্রয়োগকারী ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর পক্ষে অপরাধ ও অপরাধী শনাক্ত করা কঠিন হয়ে পড়ে। এতে করে এসব সিম ব্যবহার করে অপরাধীদের রাষ্ট্রবিরোধী তত্পরতায় লিপ্ত হওয়াটা অনেক সহজ হয়ে পড়ে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত