শিরোনাম
◈ তিস্তায় নৌকাডু‌বিতে শিশু নিহত ◈ নৌকাডুবিতে নিখোঁজ অভিবাসীর খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে ইতালির কোস্টগার্ড ◈ উড়তে থাকা যুক্তরাষ্ট্রকে মাটিতে নামিয়ে আনলো দক্ষিণ আফ্রিকা ◈ ১৪ দিনে রেমিট্যান্স এলো ১৬৪ কোটি ডলার ◈ শরীয়তপুরে চেম্বার থেকে আইনজীবীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার ◈ বিশ্বকাপের সুপার এইট শুরু, শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ   ◈ সেনাবাহিনী প্রধানের ৯, ১৭ ও ৩৩ পদাতিক ডিভিশনে বিদায়ী দরবার ◈ নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে শেখ হাসিনা শুক্রবার দিল্লি যাচ্ছেন, ২২ জুন শীর্ষ বৈঠক ◈ দেশ ছাড়িনি, চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে আছি: আছাদুজ্জামান মিয়া  ◈ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে উত্তর কোরিয়া-রাশিয়া একে অপরকে সাহায্য করবে, কৌশলগত অংশীদারত্ব চুক্তি সই

প্রকাশিত : ০৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১২:০৫ দুপুর
আপডেট : ০৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১২:০৫ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

পাকিস্তানকে নকল করে বোলিংয়ে উন্নতি করেছে ভারত : রমিজ রাজা

স্পোর্টস ডেস্ক: কয়েক বছরে দারুণ উন্নতি করেছে ভারতের বোলিং ইউনিট। বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটিং দল থেকে বোলিং দল হিসেবেও নিজেদের শক্তিশালী করেছে ভারত। জসপ্রিত বুমরাহ-মোহাম্মদ সিরাজদের কল্যাণে অনেক সিরিজও জিতেছে তারা। ভারতের বোলারদের উন্নতি দেখে সন্তুষ্ট রমিজ রাজা। যদিও পাকিস্তানের সাবেক এই অধিনায়ক মনে করেন, তাদেরকে নকল করে বোলারদের এমন উন্নতি করেছে ভারত।
 
পাকিস্তানকে বরাবরই বলা হয়ে থাকে বোলারদের দল। গ্রেট ওয়াসিম আকরাম-উমর গুল থেকে বর্তমানের শাহীন শাহ আফ্রিদি কিংবা হারিস রউফ। পাকিস্তানের জয়ে বরাবরই বড় ভূমিকা থাকে পেসারদের। বাবর আজমের দলেও রয়েছেনে বেশ কয়েকজন পেসার। - ক্রিকফ্রেঞ্জি
 
শাহীন আফ্রিদির সঙ্গে রউফ, মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়র, নাসিম শাহ, হাসান আলীরা। সবশেষ এশিয়া কাপ কিংবা ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতকে হারানোর পেছনে বড় অবদান রেখেছিলেন তারা। এদিকে সবসময় ব্যাটিং দল হিসেবে খ্যাতি পাওয়া ভারত বদলে গেছে সবশেষ কয়েক বছরে। আইপিএল কিংবা ঘরোয়া ক্রিকেটের মাধ্যমে বের করে এনেছে এক ঝাঁক পেসার।
 
জসপ্রিত বুমরাহ থেকে মোহাম্মদ শামি, সিরাজ, আর্শদীপ সিং, হার্শাল প্যাটেল, উমরান মালিকরা দাপট দেখাচ্ছেন ভারতের জার্সিতে। দারুণ বোলিং ইউনিটের সুফলও পাচ্ছে দেশটি। ভারত ও পাকিস্তানের বোলিং ইউনিটের সঙ্গে তুলনা করতে গিয়ে রমিজ জানান, রউফকে দেখে উমরান আর শাহীন আফ্রিদিকে দেখে আর্শদীপকে নিয়ে এসেছে ভারত।
 
নিজের ইউটিউব চ্যানেলে রমিজ বলেন, আমি প্রায়ই অনুভব করি ভারত পাকিস্তানকে দেখেছে এবং তাদের বোলিং আক্রমণকে একই ভাবে তৈরি করেছে। হরিস রউফের মতো পেস বোলিং করেছে উমরান মালিক, শাহিন আফ্রিদির মতো বাঁ-হাতি অ্যাঙ্গেল নিয়ে এসেছেন আর্শদীপ। ওয়াসিম জুনিয়র মিডল ওভারে চিপস ইন করেন এবং হার্দিক পান্ডিয়াও করেন। দুজনের পেস সমান। শিভম মাভিও একজন ভালো বোলারের ভূমিকা পালন করছে।
 
পেস বোলিংয়ে পাকিস্তানকে এগিয়ে রাখলেও স্পিনে ভারতকে এগিয়ে রাখছেন রমিজ। পাকিস্তান দলে বর্তমানে বিশ্বমানের স্পিনার বলতে কেবলই শাদাব খান। ভারতে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের সঙ্গে রয়েছেন রবীন্দ্র জাদেজা, অক্ষর প্যাটেল, যুবেন্দ্র চাহাল, কুলদীপ যাদবের মতো স্পিনাররা।
 
যারা কিনা একাই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারেন। ভারত ও পাকিস্তানের স্পিন বিভাগের তুলনা করে রমিজ বলেন, ভারতের স্পিন বিভাগ পাকিস্তানের চেয়ে একটু ভালো। যখনই আমি উভয় দলকে খেলতে দেখি তখনই পাকিস্তানের কী উন্নতি করতে হবে, তা আমি সব সময়ে বলে থাকি। সম্পাদনা: এল আর বাদল
 
এলআরবি/এইচএ
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়