শিরোনাম
◈ গাজায় যুদ্ধবিরতি হলেও হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে হামলা বন্ধ হবে না:ইসরায়েল ◈ চার মাসের মধ্যেই প্রাথমিকে ১০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ◈ পিলখানা হত্যাকাণ্ডের দিবসটির গুরুত্ব বাড়াতে সরকার কার্যকর উদ্যোগ নেবেন, আশা জি এম কাদেরের ◈ সরকার সংবাদপত্রের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করে না: আইনমন্ত্রী ◈ ফিলিস্তিনের বিপক্ষে অপতথ্য ছড়ানো প্রতিরোধে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে হবে: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ◈ বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির তদন্ত প্রতিবেদন পেছাল ◈ গাজায় যুদ্ধ নয়, গণহত্যা চলছে ইসরায়েল: লুলা দা সিলভা ◈ গ্রামীণ টেলিকমসহ তার প্রতিষ্ঠানগুলোর লভ্যাংশ কাউকে দেয়া যায় না: ড. ইউনূস   ◈ মুখ খুলে মানুষ গণতন্ত্রের কথা বলতে পারছে না: ড. ইউনূস  ◈ স্বাস্থ্যসেবা বিকেন্দ্রীকরণ শুরু হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৩:৩৪ রাত
আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৮:৫৪ সকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

সরকারের সিস্টেম সাধারণ মানুষের কোনো উপকারে আসছে না: জি এম কাদের

জিএম কাদের

রিয়াজুর রহমান রিয়াজ: এই দেশটা এখন কিছুটা হলেও দোজোগের সমতুল্য হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রামে একটি কমিউনিটি সেন্টারে জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলুর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, সাধারণ মানুষের কাছে এ দেশটা এখন দোজোগের মত অবস্থা হয়ে গেছে। মানুষ এখন খেতে পারে না, চলতে পারে না, আয় ইনকাম নাই, প্রতিদিনই জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে। এসব দেখার যেন কেউ নেই। সরকার কি সিস্টেম চালু করছে সেটা আমার জানা নেই। তবে এই সরকারের কোন সিস্টেম সাধারণ মানুষের কোনো উপকারে আসছে না।

জিএম কাদের বলেন, দলীয়করণের কারণে এক শ্রেণির মানুষ আইনের ঊর্ধ্বে অবস্থান করছে।

দেশে এমন একটি সংস্কৃতি সৃষ্টি হচ্ছে যেখানে সৎ, নিষ্ঠাবান ও মেধাবীরা বিভিন্নভাবে ঘৃণিত হচ্ছে, লাঞ্ছিত হচ্ছে। তারা কোনো ভাবে সমাজে টিকে থাকতে পারছেন না।

আর যারা বিভিন্নভাবে দুর্নীতি, অনিয়ম করেছে, যাদের কোনো দেশপ্রেমিক নেই, তাদেরই উত্থান ঘটছে। তারাই সব জায়গায় সম্মানিত হচ্ছে। ফলে দেশে সুশাসনের অভাব দেখা দিয়েছে। 

তিনি আরও বলেন, ‘দেশের মালিক সাধারণ জনগণ। সরকারকে নির্বাচিত করার অধিকার যেমন জনগণের আছে, তেমনি সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা করার অধিকারও তাদের আছে। মানুষকে কথা বলার অধিকার দিতে হবে। দেশের মালিক হিসেবে দেশের মানুষের যে কোনো পরামর্শ দেওয়ার অধিকার রয়েছে।

সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে ছিলেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, প্রধান বক্তা ছিলেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু। চট্টগ্রাম উত্তর জেলা শাখার সভাপতি মোহাম্মদ নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির অতিরিক্ত মহাসচিব অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভুঁইয়া, চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি সোলায়মান আলম শেঠ, প্রয়াত জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলুর স্ত্রী জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা ড. মেহেজেবুন্নেসা রহমান টুম্পা, যুগ্ম মহাসচিব আশিক আহমেদ ও জাতীয় পার্টি চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সদস্য সচিব সফিক উল আলম চৌধুরী প্রমুখ।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়