শিরোনাম
◈ ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যহতি পেলেন ড. ইউনূস ◈ আওয়ামী লীগ এখন লোক ভাগানোর দলে পরিণত হয়েছে: রিজভী ◈ দ্বিতীয় দফায় ২৯টি দেশি পর্যবেক্ষক সংস্থাকে নিবন্ধন দিলো ইসি   ◈ আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোট হবে না, জানালেন জাতীয় পার্টি মহাসচিব চুন্নু ◈ টাইপিংয়ে ভুলের কারণে সংসদে পাস হওয়া শ্রম আইন ফেরত দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি: আইনমন্ত্রী ◈ ঢাকার রিকশা ও রিকশাচিত্র পেল ইউনেস্কোর স্বীকৃতি ◈ সোনার দাম ভরিতে ১৭৫০ টাকা কমিয়েছে বাজুস ◈ নির্বাচন হলে দেশে আবারো বাকশাল ফিরে আসবে: এবি পার্টি ◈ পিসিটি পরিচালনা চুক্তি বাংলাদেশে সৌদি বিনিয়োগ বাড়াতে সহায়ক হবে: প্রধানমন্ত্রী ◈ মানবাধিকার দিবসে বিএনপি-জামায়াত সারাদেশে বিশৃঙ্খলার ষড়যন্ত্র করছে: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত : ২১ নভেম্বর, ২০২৩, ০৯:২৮ রাত
আপডেট : ২১ নভেম্বর, ২০২৩, ০৯:২৮ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

 ইউরোপের সঙ্গে আরও ভালো ব্যবসার প্রত্যাশা ইইউ রাষ্ট্রদূতের

মাজহারুল মিচেল: [২] বাংলাদেশে নিযুক্ত ইইউ (ইউরোপিয় ইউনিয়নের) প্রতিনিধি দলের প্রধান চার্লস হোয়াইটলি মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বাংলাদেশ ডিসাইডস: দ্য ইয়ুথ স্পিকস (বিডিওয়াইএস)’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান।

[৩] হারনেট টিভির প্রতিষ্ঠাতা সিইও ও এমডি আলিশা প্রধানের পরিকল্পনা ও ভাবনায় এই অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বের আয়োজন করে হারনেট ফাউন্ডেশন। এ ব্যাপারে চার্লস হোয়াইটলি তার ভেরিফাইড এক্স একাউন্টে একটি পোস্ট দেন।

[৪] বাংলাদেশের সঙ্গে ক্রমবর্ধমান সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বাংলাদেশে নিযুক্ত ইইউ প্রতিনিধি দলের প্রধান চার্লস হোয়াইটলি ওই পোস্টে বলেছেন, তারা ইউরোপের থেকে বাংলাদেশে আরও ব্যবসা বাড়াতে আগ্রহী এবং সে অনুযায়ি এগিয়ে নিতে চান। একই সঙ্গে ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের নবম বৃহত্তম ভোক্তা বাজার হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

[৫] তিনি বলেন, বাংলাদেশ ক্রমেই একটি আকর্ষণীয় বাজার হয়ে উঠছে। এ কারণেই আমাদের সম্পর্ক বিভিন্ন পর্যায়ে একটি অংশীদারিত্বে পরিণত হচ্ছে।

[৬] রাষ্ট্রদূত হোয়াইটলি বলেন, ভবিষ্যতের মূল ইস্যুগুলোতে তরুণদের কথা শোনা জরুরি। অর্থনীতি ও বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ নিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময়ের মূল্যবান সুযোগ করে দিয়েছে আজকের এই আয়োজন। ইইউ বিশ্বব্যাপী তরুণদের সহায়তা করছে, যার মধ্যে গত বছর গৃহীত আমাদের ইয়ুথ অ্যাকশন প্ল্যানও রয়েছে।

[৭] রপ্তানি বহুমুখীকরণের গুরুত্ব তুলে ধরে ইইউ রাষ্ট্রদূত বলেন, তৈরি পোশাক পণ্য এখনও বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্যে আধিপত্য বিস্তার করছে।

[৮] তিনি কৃষি খাতে বাংলাদেশের প্রশংসা করে বলেন, এ খাতের সাফল্য  আশ্চর্যজনক এবং বাংলাদেশ এখন প্রধান ফসলের ক্ষেত্রেও স্বয়ংসম্পূর্ণ।

[৯] ইইউ রাষ্ট্রদূত নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নে যৌথ প্রচেষ্টার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, আমি বাংলাদেশে নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নে অনেক বেশি মনোযোগ দেখতে পাচ্ছি।

[১০] তিনি গার্মেন্টস খাতের বিপ্লবের কথা উল্লেখ করেন এবং এটি কীভাবে নারীদের জন্য চাকরির সুযোগ সৃষ্টি করে তা তুলে ধরেন।

[১১] ইইউ বাংলাদেশের প্রধান বাণিজ্যিক অংশীদার। এখন উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা অর্জনের পথে বাংলাদেশ ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাজারে শুল্ক ও কোটামুক্ত প্রবেশাধিকারের সদ্ব্যবহার করেছে এবং ‘এভরিথিং বাট আর্মস’ ব্যবস্থার আওতায় ইইউতে বৈশ্বিক আমদানির ৬০ শতাংশেরও বেশি অংশ অর্জন করেছে।

[১২] বাংলাদেশ ইবিএর সবচেয়ে বড় সুবিধাভোগী, ২০২২ সালে ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাজারে রপ্তানি ২৪ বিলিয়ন ইউরোতে পৌঁছেছে। সম্পাদনা: তারিক আল বান্না

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়