শিরোনাম
◈ দেশজুড়ে সহিংসতার ঘটনায় অভিযান, গ্রেপ্তার ২৭৪৭ ◈ আজ বিদেশি কূটনীতিকরা ধ্বংসযজ্ঞ পরিদর্শনে যাবেন ◈ চলমান সংকটে রাজশাহীতে কৃষিখাতে দিনে ২০ কোটি টাকার ক্ষতি ◈ কারফিউ শিথিল সময়ে চলবে দূরপাল্লার বাস ◈ প্রাণহানি ও ধ্বংসাত্মক ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেছে সম্পাদক পরিষদ ও নোয়াব ◈ ড. ইউনূস রাষ্ট্রদ্রোহী কাজ করেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বাংলাদেশের সহিংসতা বন্ধে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি জরুরি আহ্বান জানিয়েছেন ড. ইউনূস ◈ নরসিংদী কারাগার থেকে পালানো ১৩৬ কয়েদির আত্মসমর্পণ ◈ কতজন শিক্ষার্থী মারা গেছেন, জানতে সময় লাগবে: শিক্ষামন্ত্রী ◈ বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য ভিসা বন্ধ করল আরব আমিরাত

প্রকাশিত : ০৫ মে, ২০২৪, ০৬:৩৩ বিকাল
আপডেট : ০৫ মে, ২০২৪, ০৬:৩৩ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ভিয়েনায় বাংলা নববর্ষ উদযাপন

আনিসুল হক, ভিয়েনা, অস্ট্রিয়া: বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে বাংলা নববর্ষ-১৪৩১ উদযাপন করেছে অস্ট্রিয়া প্রবাসী বাঙালিরা।

বাংলা নববর্ষষ উপলক্ষে কিশোরগঞ্জ অস্ট্রিয়া সমিতির উদ্যোগে শনিবার (৪মে ২০২৪) ভিয়েনার ভিএইচএস ফ্লরিসড্রফে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

কিশোরগঞ্জ অস্ট্রিয়া সমিতির সভাপতি শ্রী রুহী দাস সাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন, ডা: অনুপমা হক।

প্রধান অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ দূতাবাস ও স্থায়ী মিশন ভিয়েনার রাষ্ট্রদূত আসাদ আলম সিয়াম।
বিশেষ অতিথি ছিলেন, সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি এম. নজরুল ইসলাম, অস্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার হাফিজুর রহমান নাসিম, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান শ্যামল, সর্ব ইউরোপিয় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বায়জীদ মীর, অস্ট্রিয়া বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি রবিন মোহাম্মদ আলী, ভিয়েনাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের অনারারি কাউন্সেলর বলফগাং বিনিঙ্গার ও কিশোরগঞ্জ অস্ট্রিয়া সমিতির সহ-সভাপতি শ্রী বিপ্লব সরকার।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, অস্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আক্তার হোসেন, সাইফুল ইসলাম জসিম, মাহমুদ রাজ্জাক তুলি, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব খান শামীম, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ আলী, কিশোরগঞ্জ অস্ট্রিয়া সমিতির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম প্রমূখ।

রাষ্ট্রদূত আসাদ আলম সিয়াম তাঁর বক্তব্যে দেশবাসী, প্রবাসী বাংলাদেশি ও অস্ট্রিয়ার জনগণকে এ উপলক্ষ্যে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান। তিনি বাংলা নববর্ষ উদযাপনের বর্ণাঢ্য ইতিহাস তুলে ধরে বলেন, 'পহেলা বৈশাখ বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের অবিচ্ছেদ্য অংশ এবং জাতির সবচেয়ে সর্বজনীন উৎসব।'

এম. নজরুল ইসলাম তাঁর বক্তব্যে আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, 'বাংলা নববর্ষের এই জাতীয় আয়োজন আমাদের তথা সমগ্র বাঙালির কাছে অসাম্প্রদায়িক চেতনার এক উৎসব। এ ধরনের আয়োজনে আমাদের আত্মপরিচয় ও শেকড়ের সন্ধান মেলে। এ জাতীয় আয়োজন
অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াই এবং ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত, সুখী-সমৃদ্ধ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রেরণা দেয়।'

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে ছিল মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন, স্থানীয় শিল্পীগণ।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন, সঙ্গীত শিল্পী নাহিদ খান সুমি। তবলায় ছিলেন, বিশ্বজিত ও মিউজিকের দায়িত্বে ছিলেন, মইন।

অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতা করেছেন, মিতা সাহা ও জাকিয়া ইকবাল।

বাংলাদেশ দূতাবাস ও স্থায়ী মিশন ভিয়েনার কাউন্সেলর জনাব তারাজুল ইসলাম, কাউন্সেলর জনাব তানভীর আহমেদ তরফদার, সহকারি কনস্যুলার অফিসার জনাব জুবায়দুল হক চৌধুরীসহ বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাঙালি নারী, পুরুষ ও ছোট ছেলেমেয়েরা আনন্দঘন এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

আপ্যায়নের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়