শিরোনাম
◈ শুক্রবার কমছে সয়াবিন তেলের দাম ◈ ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞে চুপ থেকে বিএনপি-জামায়াত গাজায় গণহত্যার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বঙ্গবন্ধু জাতিসংঘেরও ১৫ বছর আগে শিশু আইন প্রণয়ন করেন: আইনমন্ত্রী  ◈ বিপিএলের ফাইনাল ম্যাচের সময় চূড়ান্ত করলো বিসিবি ◈ সাবেক স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ চিকিৎসক লতা মারা গেছেন ◈ সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে ঔষধ-পত্র ও চিকিৎসা সামগ্রী প্রদানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ◈ বিদ্যুতের দাম বাড়ছে ৮.৫০ শতাংশ, ফেব্রুয়ারিতেই কার্যকর ◈ ২ দিনের রিমান্ড শেষে ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ কারাগারে ◈ বর্তমানে মত প্রকাশের স্বাধীনতার ছিটেফোটাও নেই: রিজভী ◈ রমজানে আল-আকসা খোলা রাখতে ইসরায়েলের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বান

প্রকাশিত : ০২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ০৮:১৪ সকাল
আপডেট : ০২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ০৮:১৪ সকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ভারতের পাঞ্জাবে বুলডোজার দিয়ে ভাঙা হল দরগাহের দেওয়াল, ক্ষুব্ধ মুসলিমরা

রাশিদুল ইসলাম: ভারতের পাঞ্জাবের জলন্ধরে পৌর কর্পোরেশন বুলডোজার দিয়ে একটি দরগাহের দেওয়াল ভেঙে দেওয়ায় মুসলিমরা ক্ষুব্ধ হয়েছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে পৌর কর্পোরেশনের ওই পদক্ষেপের কথা জানাজানি হতেই ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষজন। এরপর মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকজন জড়ো হয়ে মডেল টাউনস্থিত মিউনিসিপ্যাল কমিশনার অভিজিৎ কপলিশের বাড়ির সামনে ধর্না-অবস্থানে স্লোগান দিয়ে ওই ঘটনার প্রতিবাদ জানান। ধর্নার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান পুলিশের ডিসিপি জগমোহন সিং। তিনি মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকজনকে বুঝিয়ে বলেন, তিনি সকালে কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে সমস্যার সমাধান করবেন। পারসটুডে

অন্যদিকে, মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকজন বলেন, পৌর কর্পোরেশনের উচিত যেভাবে দেয়ালটি ভেঙে ফেলা হয়েছে সেভাবেই নির্মাণ করে দেওয়া। এই বিষয়ে ডিসিপি জগমোহন বলেন, তিনি সকাল ১১ টায় কর্পোরেশনের কর্মকর্তাদের সাথে একটি বৈঠকের ব্যবস্থা করবেন, সমস্যা যাই হোক, তারা নিজেরাই বসে সমাধান করবেন। তিনি বলেন,  ধর্না-অবস্থান কর্মসূচিতে পরিবেশ খারাপ হয়। এরপর আশ্বাস পেয়ে অবস্থান-বিক্ষোভ শেষ করেন প্রতিবাদী মানুষজন।

মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষজন বলেন, তাদের সম্প্রদায়কে দমন করার চেষ্টা চলছে। ক্ষুব্ধ মুসলিমরা বলেন, দরগাহের দেয়ালে নয়, তাদের বিশ্বাসের ওপর বুলডোজার চালিয়েছে কর্পোরেশন। বেলা ১১টার মধ্যে কোনো সমাধান না হলে কর্পোরেশন দেয়াল নির্মাণ না করলে তারা বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করবেন। মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকজন আরও বলেন, কর্পোরেশন যদি প্রাচীরকে অবৈধ মনে করত, তাহলে নোটিশ দিতে পারত,  কিন্তু কর্পোরেশন কোনও নোটিশ না দিয়েই রাতের অন্ধকারে চোরের মত এই ব্যবস্থা নিয়েছে।  

মুসলিম নেতারা আরও বলেন, কোনো অবৈধ নির্মাণ ভাঙতে হলে নোটিশ দিতে হয়, কিন্তু কর্পোরেশন কোনো নিয়ম মানেনি। অন্যদিকে, ওয়াকফ বোর্ডের প্রশাসক এডিজিপি এমএফ ফারুকী বলেছেন, কর্পোরেশন যে জমিতে প্রাচীরটি ভেঙে দিয়েছে তা ওয়াকফ বোর্ডের। কেউ যাতে দখল করতে না পারে সেজন্য তাদের জমি ঢেকে দেওয়াল তৈরি করা হয়েছিল।   

কিন্তু পৌর কমিশনার অভিজিৎ কপলিশের দাবি- জমিটি পৌর কর্পোরেশনের। নিজেদের জায়গা রক্ষার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ওয়াকফ বোর্ডের প্রশাসক এডিজিপি এমএফ ফারুকী বলেন, কর্পোরেশনের কাছে যদি কোনও নথি থাকে তবে তা দেখান। বিনা নোটিশে দেয়াল ভেঙে ফেলা অন্যায়।  

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়