প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পুরুষ সঙ্গী না থাকায় বাড়ছে না জিরাফের সংখ্যা

এ,এইচ সবুজ: [২] গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে হরিণ, বানর, জেব্রা, ময়ুর এমনকি বাঘের পরিবারেও সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু পার্কে পুরুষ জিরাফ না থাকায় বংশবৃদ্ধি হচ্ছে না জিরাফ পরিবারে। বর্তমানে এ পার্কে ৩টি জিরাফ রয়েছে। এ ৩টি জিরাফই স্ত্রী লিঙ্গের।

[৩] এদিকে দর্শণার্থীরা ও সাফারি পার্ক কর্তৃপক্ষ জানান, গাজীপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে বাঘ, সিংহ, ভালুক, হাতি, ময়ুর, বিভিন্ন প্রজাতির হরিণ, বানর, জিরাফ, জেব্রা, কুমির, সাপ, নীলগাই, উটপাখিসহ প্রায় ৭০ প্রজাতির বন্যপ্রাণী রয়েছে। এসব বন্যপ্রাণীর প্রায় প্রত্যেক পরিবারেরই বংশ বৃদ্ধি হচ্ছে। ফলে এ পার্কে বন্যপ্রাণীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। নতুন করে অর্থ ব্যয় করে এসব বন্যপ্রাণী কিনতে হচ্ছে না। কিন্তু জিরাফ পরিবারে পুরুষ জিরাফ না থাকায় এ পরিবারে বংশবৃদ্ধি হচ্ছে না। বংশবৃদ্ধি না হলে একসময় জিরাফ শূন্য হয়ে পড়বে সাফারি পার্ক। বংশ বৃদ্ধির কারণে এ পার্কে গত দুই বছরে জেব্রা পরিবারের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে গেছে। শুধুমাত্র পুরুষ জিরাফ না থাকায় বাড়ছেনা জিরাফ পরিবারের সদস্য সংখ্যা।

[৪] ঢাকার মিরপুর চিড়িয়াখানায় একাধিক পুরুষ জিরাফ রয়েছে। সেখান থেকেও পুরুষ জিরাফ গাজীপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে আনা সম্ভব হলে এ পার্কেও জিরাফের বংশ বৃদ্ধি হতো। বন্যপ্রাণী ও ঊর্ধ্বতন বন কর্মকর্তারা চেষ্টা করলে হয়তো তা সম্ভব হতে পারে। এতে দেশে জিরাফের সংখ্যাও বৃদ্ধি পেত। কোনো কিছুই বংশবৃদ্ধি না হলে একদিন তা বিলীন হয়ে যাবে। তেমনি জিরাফ পরিবারেও বংশবৃদ্ধি না হলে একদিন হয়তো দেশ জিরাফ শূন্য হয়ে পড়বে।

[৫] সাফারি পার্কের একজন দর্শনার্থী আওলাদ হোসেন মামুন বলেন, দীর্ঘদিন পর সাফারি পার্কে উন্মুক্ত বনের ভেতর বন্যপ্রাণী দেখতে এসেছি। এ পার্কে অসংখ্য হরিণ, বানর, জেব্রা দলে দলে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এছাড়াও রয়েছে বাঘ, সিংহ, ভালুক, হাতি, বনগাই, সাপ ও কুমিরসহ নানা প্রজাতির অসংখ্য পাখি। বনের ভেতর আলাদা আলাদা বেষ্টনীতে উন্মুক্তভাবে ছেড়ে দেয়া হয়েছে এসব বন্যপ্রাণীদের। গাড়ির ভেতর বসে দেখতে খুবই চমৎকার লাগে। বনের ভেতর লম্বা গলায় উঁচু গাছের লতা পাতা খাচ্ছে তিনটি জিরাফ। এসব বন্যপ্রাণীরা বনের ভেতর ঘাস ও লতা-পাতা খাচ্ছে ঘুরে বেড়াচ্ছে মনো মুগ্ধকর একটি পরিবেশ। দেখতে ভীষণ ভালো লাগে।

[৬] এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সহকারি বন সংরক্ষক মোঃ তবিবুর রহমান জানান, এ পার্কে বন্যপ্রাণীদের মধ্যে প্রায় সকল প্রাণীরই বংশবৃদ্ধি হচ্ছে। একমাত্র জিরাফ ছাড়া। এখানে বর্তমানে তিনটি স্ত্রী জিরাফ রয়েছে। তবে পুরুষ জিরাফ না থাকায় জিরাফের বংশবৃদ্ধি হচ্ছে না। স্ত্রী জিরাফের সঙ্গী হিসেবে পুরুষ জিরাফ এ পার্কে আনা হলে জিরাফ পরিবারে বংশবৃদ্ধি হবে বলে আশা করছি।

[৭] তিনি আরো জানান, ঢাকার মিরপুর চিড়িয়াখানায় একাধিক পুরুষ জিরাফ রয়েছে। সেখান থেকে পুরুষ জিরাফ সংগ্রহ করতে পারলে, পার্কের অন্যান্য প্রানীর মতো জিরাফ পরিবারের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। সম্পাদনা: হ্যাপি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত