প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কোভিড-১৯ নিউমোনিয়া জনিত মৃত্যুর সংখ্যা দুই মিলিয়ন যোগ হয়েছে: ডা. প্রবীর কুমার সরকার

শাহীন খন্দকার: [২] পৃথিবীতে নিউমোনিয়ার মতো আর কোন সংক্রমন জনিত কারণে শিশুর এত প্রাণহানি ঘটে না। তিনি বলেন, এবার বিশ্ব নিউমোনিয়া দিবসের প্রতিপাদ্য নিউমোনিয়া, বায়ুদূষণ, দলবায়ু পরিবর্তন প্রতি বছর ১২ নভেম্বর বিশ্ব নিউমোনিয়া দিবস পালন করা হয়। ২০০৯ সাল থেকে সারা বিশ্বে এই দিবসটি উদযাপিত হচ্ছে।উদ্দেশ্য নিউমোনিয়া রোগ নির্ণয়, প্রতিকার এবং প্রতিরোধ সম্পর্কে সম্যক সচেতনতা গড়ে তোলা।

[৩] শিশু হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. প্রবীর কুমার সরকার আরও বলেন, নিউমোনিয়া শিশুদের মারাত্মক প্রাণঘাতী রোগগুলোর মধ্যে অন্যতম। পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশু আক্রান্ত হলে মৃত্যুর আশংকা বেশি থাকে। তবে আমাদের দেশেও শিশু মৃত্যুর প্রধান কারন নিউমোনিয়া।

[৪] তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী ২০ লাখ শিশু এ রোগে আক্রান্ত । বাংলাদেশ আক্রান্তের হার-এর দিক দিয়ে দিয়ে পঞ্চম স্থানে। সারা বিশ্বে ২০১৯ সালে ৬ লাখ৭২,হাজার শিশুসহ ২দশমিক ৫ মিলিয়ন মানুষের জীবন নিয়েছে। কিন্তু ২০২০ সালে কোভিড-১৯ থেকে নিউমোনিয়া জনিত মৃত্যুর সংখ্যা আরও দুই মিলিয়ন যোগ হয়েছে এবং মোট মৃত্যু সংখ্যা হয়েছে চার মিলিয়নের বেশি।

[৫] নিউমোনিয়া (ফুসফুস-প্রদাহ) সর্ম্পকে তিনি বলেন, ফুসফুসের অভ্যন্তরে ছোট ছোট বায়ুপূর্ণ থলি যাকে আলভিওলি বলে। সাধারণত আলভিওলিগুলিতে বাতাস ভরা থাকে। নিউমোনিয়া হলে ওই আলভিওলিগুলো পুঁজ ও তরলে ভরে যায়। ফলে শরীরে অক্সিজেন এর ঘাটতি দেখা দেয়। নিউমোনিয়া যে কোন ব্যাক্তির-ই হতে পারে, তবে শিশুদের ও বৃদ্ধদের ক্ষেত্রে এটি বেশি দেখা যায়। তবে নিউমোনিয়ার জন্য দায়ী সবচেয়ে পরিচিত ব্যাকটেরিয়া হল স্ট্রেপটোকক্কাস নিউমোনি এবং হেমোফিলাস ইনফ্লুয়েঞ্জা-বি (ঐরন), রেসপিরেটরি সিনসিটিয়াল ভাইরাস।

[৬] নিউমোনিয়া: ছত্রাকঘটিত এটি হিটোপ্লাজমা ক্যাপসুল্যাটাম, ব্লাস্টোমাইসিস, ক্রিপ্টোকোককাস নিউওফরম্যানস, নিউমোকিসস্টিস জিরোভেচি এবং কোকিসিডিওয়েড ইমিটিস ছত্রাক দ্বারা কদাচিৎ ঘটে থাকে। নিউমোনিয়ার লক্ষণ হচ্ছে কাশি-শ্বাসকষ্ট,জ্বরসহ দ্রুত এবং অগভীর শা¦স(শ্বাসকার্যের সমস্য) । আরো বলেন, ৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের ক্ষেত্রে বক্ষ প্রাচীর ভেতরের দিকে ঢুকে যাওয়া। ঘাম এবং কাঁপুনি। ক্ষুধামন্দা। মাথা ব্যাথা। বমি বমি ভাব এবং বমি। বুক ব্যাথা।

[৭] ডা. প্রবীর কুমার বলেন, নিউমোনিয়া রোগের ঝুঁকির অন্যতম কারণগুলো অপুষ্টি, মাতৃ দুগ্ধবঞ্চিত শিশুসহ বায়ুদূষণ, একটি ঘরে একাধিক লোকের বাস। বাবা মায়ের ধূমপান, জন্মগত হৃদরোগ, দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা, দীর্ঘস্থায়ী রোগ, ৬৫ বছর বা তার বেশি বয়সী ব্যক্তি ঝুকির মধ্যে রয়েছেন। কোভিড-১৯ নাটকীয়ভাবে নিউমোনিয়ায় মৃত্যু বৃদ্ধি পেয়েছে। কোভিড-১৯ এ এই বছরে নিউমোনিয়ায় মৃতের সংখ্যা ২ মিলিয়ন যোগ করেছে। তাই ২০২০ সালে, নিউমোনিয়ায় মৃত্যুর ৪৫% কারণ কোভিড-১৯ নিউমোনিয়া।

 

সর্বাধিক পঠিত