প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সুনামগঞ্জ শহরকে অপরাধমুক্ত রাখতেই ১৬৪টি সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে: পুলিশ সুপার

আল-হেলাল: [২] সুনামগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান বিপিএম,অপরাধ প্রবণতা দূর করার লক্ষ্যে পুলিশ প্রশাসনকে সহযোগীত করতে সকল শ্রেণিপেশার মানুষকে এগিয়ে আসার উদাত্ত আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন,সুনামগঞ্জ পুলিশ প্রশাসন এখন উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে অপরাধ প্রবণতা রোধে এখন আরো সক্রিয় ও শক্তিশালী হয়েছে। বিগত করোনাকালীন সময়ে বিভিন্ন জায়গায় অপরাধ প্রবনতা বৃদ্ধি পেলেও সুনামগঞ্জের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি আমরা স্বাভাবিক রাখতে সক্ষম হয়েছি।

[৩] শুধু গ্রামগঞ্জই নয় জেলা সদরেও সার্বিকভাবে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ছিল এবং এখনও আছে। সুনামগঞ্জ শহরে ১৬৪টি সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। এর ফলে সারা শহরে মাদক, চুরি, ডাকাতি, ইভটিজিংসহ নানা ধরণের অপরাধ প্রবণতা অনেকটা নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। তবে পুলিশের একার পক্ষে সব কিছুই নিয়ন্ত্রন করা অনেক সময় কঠিন হয়ে যায়। এজন্য শহরের নাগরিক সমাজ ও সচেতন মহলের সহযোগিতা সবচেয়ে বেশী প্রয়োজন। আমরা শুধু সিসি ক্যামেরা লাগিয়ে বসে থাকবনা।

[৪] সবকিছু ঠিকমতো মনিটরিংও করবো। ১১ অক্টোবর সোমবার সকাল ১১টায় সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানা প্রাঙ্গনে সুনামগঞ্জ শহরকে সিসি ক্যামেরা নেটওয়ার্কের আওতায় নিয়ে আসা উপলক্ষে বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জেলা পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বিপিএম একথা বলেন। পর্যায়ক্রমে সকলের সমন্বিত প্রচেষ্টায় সুনামগঞ্জ শহরে সকল ধরনের অপরাধ কর্মকান্ড পুলিশের নিয়ন্ত্রনে চলে আসবে বলে তিনি দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন। পরে সদর মডেল থানার নিয়ন্ত্রণ কক্ষে লাল ফিতা কেটে সিসি ক্যামেরার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার।

[৫] সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে ও সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সহিদুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মত বিনিময় সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আবু সাঈদ,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) পারভেজ আলম চৌধুরী, ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মোঃ শামসুল ইসলাম ও জেলা ডিএসবির ওসি আনোয়ার হোসেন মৃধাসহ পুলিশ প্রশাসনের স্থানীয় কর্মকর্তাগন মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন। সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) এজাজুল ইসলাম,এই আই প্রদীপ চক্রবর্তী,এস আই শরিফ উদ্দিন,এস আই অঞ্জন সরকার,এস আই রুপক কর্মকার,এস আই কামরুল হাসান,এস আই আমির হোসেন,এস আই জাহাঙ্গীর হোসেন,এস আই কবির উদ্দিন,এসআই সুবীর সরকার,এস আই আবু সায়েম,এস আই আবির দাস,এস আই আব্দুর রাজ্জাকসহ সদর মডেল থানার পুলিশ কর্মকর্তা ও ফোর্সগন সভা সুচারুরুপে সম্পন্ন করতে দায়িত্ব পালন করেন।

[৬] মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু, সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ও মোহনা টিভির জেলা প্রতিনিধি কুলেন্দু শেখর দাস তালুকদার, রিপোর্টার্স ইউনিটির সহ-সভাপতি ও ডেইলি আওয়াম টাইম প্রতিনিধি আল-হেলাল,দৈনিক সুনামগঞ্জ খবরের স্টাফ রির্পোটার মোঃ আকরাম উদ্দিন,ইনডিপেডেন্ট টিভির প্রতিনিধি মোঃ জাকির হোসেন,দৈনিক বণিক বার্তার প্রতিনিধি আল আমিন, দৈনিক খোলাকাগজ প্রতিনিধি শহীদ নুর আহমদ,বৈশাখী টিভির প্রতিনিধি কর্ন বাবু দাস,দৈনিক ভোরের কাগজের প্রতিনিধি আসাদ মণিসহ স্থানীয় সাংবাদিকগন সভায় পৌর শহরের আরো গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলো সিসি ক্যামেরা নেটওয়ার্কিং এর আওতায় আনার উপর গুরুত্বারোপ করে বক্তব্য রাখেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত