প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মোজাফ্ফর হোসেন: বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ বর্তমান আওয়ামী লীগের প্রেরণা ও আদর্শ হয়ে উঠুক, না-হলে শোকের মাসে আমাদের শোক আরও তীব্র হবে

মোজাফ্ফর হোসেন: বাংলাদেশে আওয়ামী লীগ উপমহাদেশের অন্যতম অভিজ্ঞ ও সফল রাজনৈতিক দল, ঐতিহাসিকভাবেই। সেই দল একটা দীর্ঘ সময় টানা রাজনৈতিক ক্ষমতায়। কিন্তু দলটি নেতৃত্বের জায়গায় কেন এতো দেউলিয়াত্ব হলো যে হেলেনা জাহাঙ্গীরের মতো জোকার কাম ধান্দাবাজ, সুবিধাবাদী মানুষ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় দলটির একটি উপকমিটির সদস্য হয়! আমাদের সঙ্গে সবচেয়ে বেশি মশকরা করা হয় তাকে যখন কয়েক বোতল মদ আর হরিণের চামড়া দেখিয়ে ধসাতে হয়। আজ বলি, হেফাজতের মামুনুলকে যখন নারী-ইস্যুতে ধসিয়ে দেওয়া হয় তখন আমি খুশি হইনি। কারণ সে তার চেয়ে গুরুতর অপরাধ করেছে। সে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করেছে। সে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার মদদ জুগিয়েছে যখন বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ আমরা উৎযাপন করছিÑতাকে ধরার জন্য সেটুকু যথেষ্ট ছিলো না? মামুনুলকে ‘কটাক্ষ’ করে আজ ঝুমন দাশ যদি অন্যায়ভাবে কারাগারে থাকে তাহলে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধকে কটাক্ষ করে মামুনুলরা ন্যায়সঙ্গতভাবেই কারাগারে যেতে পারে না?
আওয়ামী লীগের কাছে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের অনুভূতির চেয়ে কি ধর্মানুভূতি (আসলে মামুনুলাভূতি) বড় হয়ে গেলো? আমি রাজনৈতিক চাল বুঝি না, আমি বুঝি বঙ্গবন্ধু নিজে ক্ষমতাসীন আপাত প্রতাপশালী পাকিস্তান শাসকগোষ্ঠীর চোখে চোখ রেখে কথা বলতেন, ঘুরিয়ে কথা বলতেন না। মামুনুলদের মতো ধঞ্চার সঙ্গে কেন ঘুরিয়ে কথা বলতে হবে? এক্ষেত্রে বরঞ্চ বর্তমান আওয়ামী লীগ একটা ক্ষতি করে দিচ্ছে। কীভাবে? মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে কটাক্ষ করা যাবে, কিন্তু নারী কেলেঙ্কারি/পরোকীয়া করা যাবে না। উল্টাপাল্টা কাজ করা যাবে কিন্তু বাসায় মদ রাখা যাবে না। অর্থাৎ শেষ পযন্ত মৌলবাদী রক্ষণশীল অনুভূতিকেই প্রতিষ্ঠা দেওয়া।
প্রসঙ্গে আসি। হেলেনা জাহাঙ্গীরকে বহিষ্কার করার পর তাকে প্রতারক হিসেবে তুলে ধরার নানা আয়োজন করা হচ্ছে। কেন, আগে প্রতারক ছিলেন না? কে বা কারা তাকে পৃষ্ঠপোষকতা দিলেন? দেশে যোগ্য ও দলীয় ঐতিহ্যের প্রতি একনিষ্ঠ নিবেদিত লোক আছেন, তাদের গুরুত্ব দেওয়া হোক। আগস্ট মাসের শুরুতে দলটির কাছে প্রত্যাশা করি, দলটি যেন জোকার ও ধান্দাবাজ সর্বস্ব দল হয়ে না ওঠে। বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ বর্তমান আওয়ামী লীগের প্রেরণা ও আদর্শ হয়ে উঠুক। না-হলে শোকের মাসে আমাদের শোক আরও তীব্র হবে। আগস্টের শুরুতে বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করতে গিয়ে এই কথাগুলো মনে হলো। জয় বাংলা। লেখক : কথাসাহিত্যিক

সর্বাধিক পঠিত