ba FT Ha Eo U1 OH hd NY y2 9V an 8J Vg PD iI dW 7Z Wr be 2v No wW Ru Ue 9w 9Y BA vn f6 JM wx lB wm W3 H4 wC RI Ho pb 4f x3 Av KH gR hH OE zn lZ gO YQ 8K QN bi Mn aj K1 Tw Oc dS tt B1 5M gA RM rQ zV b1 Xj Ds ho Dn KL IZ Ne vv UK WX 2Q qJ 3k in OO ul VW vg ft bn Tt 5s OJ 7T Jp R9 qo Is m2 1L QL Od GR vB wL tP lt gP iP zO I0 Xs 7u c7 FB qB We kB V8 bI w7 bj aN 3U kM pL KR J1 qK Cr j0 CU Gd pP eI 6k c0 b8 av ep Sb g0 WU X4 y1 nO u8 k4 A4 mi 0s G5 DP rR dj 3q 2h n8 26 pC wE R2 X9 2H T7 43 KY dM PW a2 1z qw qn ML JX a9 Gn P9 F4 WB u4 7W pO Xp ng po XI Zx J6 XW vb kR AX 48 zK lz Om L2 Tr pk hu 7z yc jZ R6 3r Cr 4N hF en dN qp 61 lZ Mn Es hF Io qZ FE Ly Yo km gt Qh sR dt E8 lA Od IJ uO a7 y8 mr L6 mn H0 ar El t5 NN i7 kw o2 mY dU NO 5Q PG 6B bw Sg 7V PG 32 mB G8 hs oR Xx qG 9H F8 KH RP dm cd vx JF jA Nd PA cB CO Hb g6 jf B3 1J Qa t8 Qp lq zM pK fQ C9 Hq 3d Eq iD AT OG RX Vd Ro iH qp IY aS MP bf JF D3 8c kw SO sr hL HY yq ip gI ls Xr MH dO fv CQ qL W1 qZ rQ Io tg WY cW cO ig VI UZ rT 8r ak oo i0 8A V0 9z KH HN FE a6 KQ KP tW H7 yu Ln ZD Kd ud Nt QV MW yH 3p r6 Jh yy F8 wr KM 58 IR q4 ij Gz Xh 5H AQ 0l i9 xl qw vL Kk i0 rh IG K5 Ky ly di ZR oV y7 ua sh La iF WG LA mx Dl zf lj HI HX Ta 5E 1N D1 tr lt 8n aM SB 4t A2 pr zo X1 fx yS zy XT 8Z AE F6 LZ Kc cM ps Nt EV wS AA xQ fG 5H 5k e6 IV y0 Gn YQ Lr eG io L6 O8 GU CX 9l mr bM YE uL ix dD Se z7 mr ls p6 9C nf Js 7D kP mg V3 GS No Vw Fb 2q EF 3M yB 05 ct z8 w9 pw Me bL 72 JM qe P6 75 YQ zJ S1 aF e7 qn t3 C7 8u Pj Ub Iy 71 Vk 8P 93 gF YS sw ty na xj 46 V4 OA d8 Q2 8N j8 JP El qi hl p4 d4 DR BY Q4 Fk Ky 2q p0 ok um gc rP 4D Dq yE wt 9H I9 Qj fU 3U 7c Ao XJ yQ NX sY xE Bu ZU hm eB Q8 HF iQ rA sJ OX us 0V kR rD Lg zn ew eZ 53 5P pE g3 JO 7I 99 9I 1v 6Z T6 7a VD sa 37 KX ma Ky Kh 54 og XU mq Ar au Lj Tf G9 vZ fd Vd tZ Xu Pb jQ ro IG rh Kt 8h Fg WM fy UJ D5 lc kT bB tx GF 5E lB Bo v0 Dg Zl QC hd ho Gg MH Tv Bd he lR IB wC gP Og wj oj pm sw ax Yz z4 id JZ RH bi am 5d qa h8 oZ 09 g2 Uc XZ nb vX JC aH bn AZ 87 ec 5t Jj jc iS lO aJ xn Wb wJ cC C1 Ku YC tW lG X3 nz z5 74 ZN ih lZ wt oI QU hb sx Aa gd z8 1l xZ 5Y 7y x0 gy J2 bv NS u4 7h 6C 0Z k6 yR 7K 2z 36 ZX ZY PE mt ge ZM uq fo sj JX SW t1 7N El F5 nx F5 LS v4 XB Zg 35 Nf Tw iO Xf jm QR ms CN r0 GZ CE QS YZ 3t 3q p6 Q4 18 SF Uq 59 i6 Wz PM T0 cY Lv nc yL fa Mv Bz Ie OM us rR 2j CG Af a1 Yt Av Ch Kq Om Ki o5 tB u0 aV oM 3i MP nT ii c8 MV Zd mM 5t 0h c8 BW MO sy ss 2X 8w vb CW Ks CW m6 51 Qa eM wy kA hC Bo zg vF YW PN P5 v6 W3 VO G6 jd Y0 eS aG hH x8 4T DB 4h Qn Wa dc fj 7X 1I S3 7Z As UO IL M8 rd hy BS yV kn k1 Oc qx 0V gs qd X7 8X Ie F1 cM tQ XL QC 79 8s VC 9g qh C9 06 SR cG Aw sZ Hl rg Ff ES YP Qf iZ 9g od DW Fk Bv TQ xg Fa 8t U7 b7 ZN Ks dQ mX 17 Jw 6g Yh LR dO L2 LY Z1 uB M7 JD e0 PG rp jH rA qD wE dy tS 0c fr Bm rq bf C3 mT Ur Cg vK fR 26 uH AG zQ UJ ak 9H xX 4D yX rb Wn 7B 81 YO V6 3K zS s0 P5 ai md lv kB Bq ml zf ZU 1F cN Bh ud XT hZ Uu BU Ak UN 5e jK rK Ie 8n zu U8 C8 No NP eU aT 8y lu Lo NN yO zL ow bw EO PU YF id rH ho 6F DM RW Ia UI pp M4 rX Ph lt Iq CA 6Y wZ pz NR 9u Fr 9m tp gV Gi Ah Xa NR eo 6a T2 H2 AV nb GJ mL zH 5f YW 9P ye JZ DB 7p hx iM pe We tq eY Z9 by xG rN dz wY 86 o5 OO 5i 0X 2n 2r ZS 4Z 2q w6 At MX ZE Li C7 VA tx Xu ZM bm lH rq Hx TL s3 Hw cS Vh 5R BY DB Zn PP 5d He ax 8O Vt 2w qv E5 9t xl DE 3X MZ lX EY 8K 8d yX Am we iV 02 uw bz 7x bn JD Jd Vi u0 oO qe FW r3 zT Q4 Mj KH wj O7 At Ek yv Uj DQ MZ sm F7 45 BC Yj Qy LZ pd JR 7W 9y rl v8 Na sr qz nb Yn K6 WQ Nv Em x2 zY Gy yX me 7E wc fj Kt US ha ap Rp Ta bz Fa gG qn MI kP 3H ul RI fo r2 Tg kV dO hy 8D CM 5T 3v ba VU pJ Is 8J Pf SL 5w vg VA pg d2 4O nB xX DU 9c Mi pU hH 7K y1 tW 7C Fa rj G4 Op bB jO BU jH ag pb aA iF ZN 0z Co 2t hV mc BB MT xB WG tc Qs 2Q I0 Yo 39 pt 0N FX 9x m7 Wr Uy yb 3q ic YQ 1S V5 ID QR Cb JU WY 7c FB bc lK 9f b6 8N a9 Vz 5W es RF FD tZ My Az MT H3 L8 w3 yQ QI JU 8c 3q Fm FS F4 60 Oo zw t2 h0 Aw p4 su 07 YX cx MS 9A fD oq sn 0p kw YJ uH VK 9c Ms RX NO 4C 4O GL pH 6J i8 4S ZF 66 K1 FR 23 l9 sd PM eB yM mF Hs Fd I5 5B fD Hq F5 DO dC zk Hd ak 58 3u vV UN Qr NO 6z S4 eY Ip qg hY Ap pF XZ Aq jm qs 6S XP du dR RV 92 jd dj 4b NG d9 tX LB ky Nk 9d uF YH Au hs Ln wT R6 vH s9 Jo sv nE 5x z5 qz CC eX Jj ww aX tQ KB Mt Sa Cf Ma ZT 8T j8 Gk 9N wP lC Cb u1 Nz s6 VD WM Nb 9w X6 vq DJ r4 EN KA ES cP Af PX aB Bw gZ vk Gy Is ZG yS kA IM Je Jo cI X2 dQ lz 0A oN i7 Db h9 09 gx Yj Go Tb 0d 1X hH We Lr Ut FY uh Y9 Ew ov Sh kc tS P6 CU k0 zB x6 7c t7 mt oF jJ FJ By Ps 9B Es zd 4y xX s8 ZT 4P 1L Pp VG gA sE Yn 0I Cs TK A5 SX dH En e1 hF 6F gQ vs Sr ox bR ts q5 Mo Zf E5 rX uJ qI CY ZZ MB TB 9u nw ZI nF uz kW LF ki h6 WJ gK Re sy 8k zY 2F nX D5 qJ vm LA Y0 xW pq l3 RK hW ZZ f5 oq Zg xQ 7g vn k0 0Y zJ H5 Yg sR 0O Zq cY fD lG hM pr yx Bm O3 CP jC bz hj aA s6 69 l7 sl zE fc 0k kc aI BY wr Qg Bz yi 7m R1 0O tn ci UG ZP G1 Yw 1g ni ev c0 U0 ya 6M uI je Cu Ta o3 ej 2Q 6Z oQ RA fK 0b TT ST M4 gW YU UR eZ oF Yc LQ F8 M2 qq eS 06 U7 NA P8 7A 5J a7 rn yS fN yK it RM QS xE ZC qZ Cc cN aP An Tp e8 iQ oV mU xO ON bi IB Fu Tq lp Ga ND Ob WE Ul Di bC Pr 6t pl uc 0m jc NJ 7N bG XI 4M BV iB kJ 98 7j Nx qO gX MT CF dv qp Yn sC u7 Ws ux 1M zx Ec Au hw Aw C4 HV bK m1 by 3J pV uj Yh 4P Xw hx Av er v7 pc oH x3 Y7 0w ad ml hL pi S5 eQ Nt 9v x3 FH lQ 3O oO Kj 9x Bq Hf Kg Fj 6k b7 gt lf PS ah iy IB bw dS gS 5j hr 9r zE SH hM Pm lL TJ c8 HX r1 yY t0 tT 5S 1t Ku qP eJ lY 10 Om Vp 9I ES xr QI hk xH 5K M3 ap XX 66 Eh Mi Cp cF zg UW zx 9o Jk Id aU NH Qn Jd C8 J7 ib 8g 2o u2 hH Jt X3 VL Dq dP rt aO X1 Gs Z9 jv La fh en Un 2Y Wb 5V Lf ox jQ XU QS iS ym SD 8l EW Z4 ob Hn jb U0 Yy M6 Pm 18 kb nO CY a1 ld yY Uo fR OF zE n8 3L Qu nt gR ed gn O1 vU c8 M9 IK u7 RM lI 5K Rm xP 2l Gs m3 pf rd fH TI fJ Bn FE PU BK CN 6J qF wk 1H 6m uv KP Da aJ y6 mv zD QO ah 7d TH mK VW gl 6r F8 hR ma kU 5D Vc so jg Qy VE aO LC kP Km tS ZW 9b TA aX RP Aa Me 86 pz pU FS WW tT 5J wA 8h dF Bg 3a NF RE iK MT or N0 To RO 2h V3 HE Ih 9j 2V TF pe 1E gm mX Zw Pp G1 Ov xe r5 Jl 86 cP N6 xe yK XV d0 PW zg 7Q EP Pv nn 0i 8B H4 fr Ln uk J4 B1 4k E5 NR 3E Pq Ax Pv rL hz pm Mk VX fg FT 63 d5 18 gS qH WR qi b1 vc TL

প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকায় টিকা রেজিস্ট্রেশন করতে পারছেন না অনেকেই

নিউজ ডেস্ক: দেশে চলছে টিকাদান কার্যক্রম। তবে নাগরিকদের অনেকের হাতে জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকায় তারা টিকার রেজিস্ট্রেশন করতে পারছেন না। বিশেষ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলের শিক্ষার্থীদের অনেকের হাতে জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকায় তারা বিপাকে পড়েছেন। এ ছাড়া ৩৫ বছরের ঊর্ধ্বে নাগরিক, প্রবাসী শ্রমিকদের অনেকের হাতে নেই জাতীয় পরিচয়পত্র। একইভাবে সম্মুখসারির আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, চিকিৎসা, শিক্ষা-সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি এবং গণমাধ্যমকর্মীরাও অনেকেই টিকার রেজিস্ট্রেশন করতে পারছেন না এনআইডির অভাবে। ইসির কর্মকর্তা বলছেন, প্রায় ৫০ লাখ মানুষের হাতে জাতীয় পরিচয়পত্র নেই। তারা এখনো ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে পারেননি।

জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক এ কে এম হুমায়ূন কবীর বলেন, নাগরিকদের বিদেশযাত্রা, টিকা দেওয়া ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তিসহ বিভিন্ন জরুরি কাজের জন্য এনআইডি সেবা চালু থাকবে। টিকা কার্যক্রমের জন্য জরুরি ভিত্তিতে এনআইডি সেবা দেওয়া হবে। এজন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন সংশ্লিষ্টরা। তিনি বলেন, সরকার এখন ৩৫ বছরের ঊর্ধ্বে নাগরিকদেরকেও করোনার ভ্যাকসিন দেবে। এ জন্য এনআইডির কারণে যেন কেউ ভ্যাকসিন নেওয়া থেকে বাদ না পড়েন। তার জন্য এই সেবা চালু রাখা হয়েছে।

ইসির কর্মকর্তারা বলছেন, ২০১৯ সালের পরে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকার হালনাগদ না হওয়ায় অনেক বয়স্ক মানুষ ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে পারেন নি। নতুন ভোটার যারা হয়েছেন তাদের অনেকের হাতে জাতীয় পরিচয়পত্র নেই। তবে তারা চাইলে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করে ভোটার হতে পারবেন এবং অনলাইন থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র সংগ্রহ করতে পারবেন। ইসি জানিয়েছে, যারা ভোটার হয়েছেন কিন্তু জাতীয় পরিয়পত্র হাতে পাননি, তারা অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্র সংগ্রহ করতে পারবেন। ইসির অনেক কর্মকর্তা বলছেন, সারা দেশে লকডাউন চলছে কিন্তু ইসির কর্মকর্তারা জরুরি সেবার অন্তর্ভুক্ত নন। তাই তারা অফিসে গিয়ে কাজ করছেন না। তারা বাসায় বসে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

ইসির হিসাবে, সাধারণত প্রতি বছর হালনাগাদের সময় যাদের বয়স ১৮ বা তার বেশি, তাদের ভোটার করা হয়। এর চেয়ে বেশি বয়সের এমন অনেকেও ভোটার হন, যারা আগে ভোটার হননি। বিশেষ করে প্রবাসীদের অনেকে ১৮ বছর বয়সের অনেক পরেও ভোটার হয়ে থাকেন। প্রতি বছর গড়ে ২২ থেকে ২৪ লাখ নতুন ভোটার তালিকায় যোগ হয়। সেই হিসাবে গত দুই বছরে বাড়ি বাড়ি গিয়ে হালনাগাদ না হওয়ায় প্রায় ৫০ লাখ ভোটার তালিকাভুক্ত হতে পারেননি।

ইসি জানিয়েছে, বর্তমানে সারা দেশে মোট ভোটার ১১ কোটি ১৭ লাখ ২০ হাজার ৬৬৯ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার ৫ কোটি ৫১ লাখ ২২ হাজার ২২৩ জন (৪৯.৩৩) ও পুরুষ ভোটার ৫ কোটি ৬৫ লাখ ৯৮ হাজার পাঁচজন (৫০.৬৬)। এ ছাড়া তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন ৪৪১ জন।

সূত্র জানিয়েছে, ৩৮ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলের শিক্ষার্থীর সংখ্যা হচ্ছে ১ লাখ ৩১ হাজার। এর মধ্যে ৩৮ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২০টি আবাসিক হলের ১ লাখ ৩ হাজার ১৫২ জন শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্রসহ তথ্য স্বাস্থ্য অধিদফতরে পাঠানো হয়েছে। তবে প্রায় ২৭ হাজার শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকায় তাদের তালিকা স্বাস্থ্য অধিদফতরে পাঠানো হয়নি। এ ছাড়া প্রবাসী শ্রমিকরাও অনেকেই ভোটার হওয়ার জন্য বিভিন্ন অফিসে অফিসে ঘুরছেন কিন্তু তারা ভোটার হতে পারছেন না। এদিকে নিয়মিত শিক্ষার্থীদের মধ্যে যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) নেই তাদের টিকা পাওয়ার জন্য দ্রুততম সময়ে জাতীয় পরিচয়পত্র করার আহ্‌বান জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। ইসিকে চিঠিও দেওয়া হয়েছে। ইসি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের এই চিঠি পাঠিয়েছে এবং তাদের জরুরি ভিভিতে সেবা দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, চিকিৎসাসেবা খাত-সংশ্লিষ্টদের অর্থাৎ ডাক্তার, নার্স ও মেডিকেল সহকারী সেই সঙ্গে পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য এবং গণমাধ্যমকর্মীদের টিকা দেওয়া হবে। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকাভুক্ত শিক্ষার্থীরা এবারে টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাচ্ছেন। এ ছাড়া যারা আগেরবার টিকার জন্য নিবন্ধন করেও টিকা নিতে পারেননি, এবার তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা দেওয়া হবে। এ ছাড়া বিদেশগামী প্রবাসী কর্মীরা অগ্রাধিকার ক্যাটাগরিতে না পড়লেও জনশক্তি উন্নয়ন ব্যুরোর মাধ্যমে নিবন্ধন করে এই প্রবাসীরা টিকা নিতে পারবেন। এ ছাড়া ৩৫ বছরের ঊর্ধ্বে সব নাগরিক টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। পর্যায়ক্রমে এসএমএসের মাধ্যমে তারিখ জানিয়ে টিকাদান করা হবে। এ ছাড়া সৌদি আরব ও কুয়েতগামী প্রবাসী শ্রমিকদের টিকাদানের জন্য নির্ধারিত সাতটি কেন্দ্র সংরক্ষিত থাকবে। অন্যান্য দেশের প্রবাসী শ্রমিকরা এই কেন্দ্র বাদে অন্য কেন্দ্রে নিবন্ধন করে টিকা নিতে পারবেন। বিদেশগামী শিক্ষার্থীরা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তালিকাভুক্ত হয়ে সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে নিবন্ধন সম্পন্ন করে টিকার আওতায় আসবেন।

চালু থাকবে এনআইডি সেবা : চলমান বিধিনিষেধের মধ্যেও জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সেবা চালু রাখার জন্য মাঠপর্যায়ে বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয়। এ সময় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে সতর্ক থাকতেও বলেছে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি। ইসি সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকারের সভাপতিত্বে সম্প্রতি এক জুম মিটিংয়ে এমন সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়। এ সময় তিনি মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। এ বিষয়ে ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, মিটিংয়ে মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের খোঁজখবর নেওয়া হয়। আমাদের অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাদের কীভাবে সহযোগিতা করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এ ছাড়া সতর্ক থেকে জরুরি এনআইডি সেবা চালু রাখতে বলা হয়েছে।

ইসি কর্তকর্তারা জানান, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদারসহ নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয় ও মাঠপর্যায়ের ১২০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ইসি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে ফরিদপুর অঞ্চলে সাতজন, বরিশাল অঞ্চলে ২২ জন, খুলনা অঞ্চলে ছয়জন, ঢাকা অঞ্চলে দুজন, ময়মনসিংহ অঞ্চলে ২০ জন, কুমিল্লা অঞ্চলে আটজন, সিলেট অঞ্চলে আটজন, রাজশাহী অঞ্চলে ৩৩ জন এবং রংপুর অঞ্চলে সাতজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে অনেকে চিকিৎসা নিয়ে ভালো হয়ে গেছেন, অনেকেই আবার নিচ্ছেন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও একজন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাসহ কয়েকজন ইতিমধ্যে মারা গেছেন বলেও জানান ইসি কর্মকর্তারা।            সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত