প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] খেলাঘরের কাছে হেরে জয়রথ থামল আবাহনীর

নিজস্ব প্রতিবেদক: [২] ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের (ডিপিএল) বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনী লিমিটেড। শিরোপার খেতাব ধরে রাখতে এবারও জাতীয় দলের একাধিক তারকা ক্রিকেটার নিয়ে দল গড়েছে আকাশী-নীলরা। চলতি মৌসুমে নিজেদের খেলা শুরুর তিন ম্যাচেই জয় তুলে নেয় আবাহনী। তবে চতুর্থ রাউন্ডে এসে খেই হারিয়েছে মুশফিকুর রহিমদের দল। তুলনামূলক দুর্বল প্রতিপক্ষ খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতির কাছে ৮ রানে ম্যাচ হেরেছে তারা।

[৩] দলের হারের ম্যাচে আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়েন জাতীয় দলের তরুণ দুই ক্রিকেটার নাঈম শেখ ও নাজমুল হোসেন শান্ত। দুজনই ফিফটি থেকে ১ রান দূরে অর্থাৎ ৪৯ রানের মাথায় আউট হয়েছেন। এই ম্যাচ হারের ফলে ৪ ম্যাচে ৩ জয়ে ৬ পয়েন্ট আবাহনীর দখলে। সমান ৪ ম্যাচে ২ জয় খেলাঘরের।

[৪] বিকেএসপির ৩ নম্বর মাঠে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন খেলাঘরের অধিনায়ক জহুরুল ইসলাম আমি। উদ্বোধনী জুটিতে ঝড়ো শুরু এনে দেন ইমতিয়াজ হোসেন ও রাফসান আল মাহমুদ। এই পার্টনারশিপ থেকে ২৪ বলে আসে ৪২ রান। রাফসান ১২ বলে ১৮ রান করে আউট হলে ইমতিয়াজের সঙ্গে জুটি গড়ে দলের সংগ্রহ বড় করেন মেহেদী হাসান মিরাজ। দ্বিতীয় উইকেটে দুজনের জুটি থেকে আসে ৬২ রান। ৩৩ রানে থাকা মিরাজকে নিজের প্রথম শিকার বানিয়ে ফেরান মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

[৫] এরপর এক ফাঁকে ব্যক্তিগত ফিফটি তুলে নেন ইমতিয়াজ। পরে মোসাদ্দেকের বলে আউট হয়ে ফেরেন ৪৬ বলে ৬৬ রান করে। শেষদিকের ব্যাটসম্যানরা সুবিধা করতে না পারলে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে খেলাঘরের ইনিংস থামে ১৬৪ রানে। আবাহনীর হয়ে মোসাদ্দেক ও আরাফাত সানি সমান ২টি করে উইকেট নেন।

[৬] ১৬৫ রানের লক্ষ্য টপকাতে নেমে ইনিংসের শুরুর ওভারেই মুনিম শাহরিয়ারের উইকেট হারিয়ে বসে আবাহনী। দলীয় ১২ রানের মাথায় মুশফিক আউট হন ৮ রান করে। বিপদে পরা আবাহনীকে টেনে তোলেন নাঈম ও শান্ত। তৃতীয় উইকেটে দুজনের পার্টনারশিপ থেকে আসে ৮৫ রান। ৩৩ বলে ৪৯ রান করে শান্ত সাজঘরে ফিরলে খানিক পর একই পথ অনুসরণ করেন নাঈমও। তিনিও আউট হন ফিফটির ঠিক আগে ৪৯ রানের মাথায়।

[৭] শেষদিকে মোসাদ্দেক ও আফিফ হোসেন চেষ্টা করলেও লাভ হয়নি। তাদের অপরাজিত ইনিংস জয়ের ব্যবধানই কমিয়েছে শুধু। শেষ ২ ওভারে জয়ের জন্য ২৫ রান প্রয়োজন পড়লে ১৬ রান তুলতে পারে আবাহনী। এতে ৮ রানে ম্যাচ জিতে মাঠ ছাড়ে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতি। আবাহনীর হয়ে মোসাদ্দেক ১৯ বলে ২১ এবং আফিফ ১৮ বলে ২২ রানে অপরাজিত থাকেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত