প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জান্নাতুল নাঈম প্রীতি: নতুন শিক্ষানীতিতে ‘ভালো থাকা’ নামের বিষয়টায় কী শেখাবে?

জান্নাতুল নাঈম প্রীতি : নতুন শিক্ষানীতিতে ‘ভালো থাকা’ নামের বিষয়টায় কী শেখাবে, তাতে আমি কৌতুহলী। সেখানে কী শেখাবে যিনি বিসিএসে প্রথম হয়ে তথাকথিত প্রথম শ্রেণির সরকারি চাকরি পেয়ে নারীদের ছবিতে অবমাননাকর বিভিন্ন বক্তব্য লেখেন এবং বীরদর্পে ঘোরেন, এতে কী প্রমাণিত হয়? দুর্জন বিদ্যান হলেও পরিত্যাজ্য? না, আমাদের সমাজ ব্যবস্থায় এরকম মানুষ মোটাদাগে পরিত্যাজ্য না। বরং ক্যারিয়ার নিয়ে ফ্রাস্ট্রেশনে ভোগা দেশের দুই তৃতীয়াংশ শিক্ষিত বেকারের কাছে সফলতার আইকন।

ভালো চাকরি আর ভালো থাকা খাওয়ার গ্যারান্টিপ্রাপ্ত নীতিহীন মানুষটিই কী ভালো থাকা বিষয়ে ‘ভালোর’ সংজ্ঞা হবে? এই যে জীবনানন্দ দাশ ঘুরেফিরে একটা তথাকথিত ভালো কলেজে চাকরি পাননি অথচ আপনারা তার নামে বিশ্ববিদ্যালয় চান এইটাই আপনার শিক্ষার ব্যার্থতা আর জীবনানন্দ দাশের সাফল্য।

আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা আরেকটা বিশ্ববিদ্যালয়ে না পড়া মানুষের কাছে গিয়ে মার খাচ্ছে। এতে কি টের পান যে আপনার শিক্ষা তেমন মহান কিছু না? যে শিক্ষা একজন সৃজনশীল মানুষকে ভালো থাকতে দেয়নি সেই শিক্ষায় অন্তর্ভুক্ত বিষয়ের নাম ‘ভালো থাকা’ হলেও তা কি ভালো থাকতে দেবে? আমি মনে করি সৎ মানুষ আর ভালো মানুষ এক না। যেমন ধরেন আমার মোহের প্রধান জায়গা প্রতিভা।

প্রতিভাবান মানুষ বিখ্যাত হতেও পারেন বা নাও হতে পারেন। মিথ্যা জনপ্রিয় হলেও তা সত্য হয়ে যায় না। আইনস্টাইন ভয়াবহ প্রতিভাবান, কিন্তু বৈবাহিক সম্পর্কের দিক থেকে ভয়ংকর অবিশ^স্ত। এই মানুষটি কি সৎ না ভালো? আবার এপিজে আব্দুল কালাম আপনার কাছে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হলেও আমার তাকে কিছুক্ষেত্রে অদ্ভুত মনে হয়। একদিকে মানবতার কথা বলেছেন, সাধারণ জীবনযাপন করেছেন। আবার অন্যদিকে ‘মিসাইল ম্যান’ হয়েছেন। সেইসব মিসাইল দিয়ে কি দুনিয়ায় ফুল ফোটানো হবে? নাকি মানুষ মারা হবে? সেক্ষেত্রে তিনি কি ভালো না খারাপ?

আমি বুঝি আপনারা সফলতার কথা বলে মোটিভেশান স্পিচ দিয়ে বড়জোর সুশান্ত পাল আর আয়মান সাদিক হবেন। অস্ত্র বানিয়ে এবং সাধারণ জীবনযাপন করে হবেন মানবতা রক্ষাকারী। সেই সফলতা একেক সমাজে একেক রকম। ইংরেজি ভাষায় ‘Rich man’ Avi ‘Great man’ যেমন আলাদা, বাংলায় বড়লোক মানেও কি তাই? যেখানে সফলতারই স্কেল নেই, সেখানে ভালো খারাপের স্কেল কীভাবে বানানো হচ্ছে? আধুনিক জামানা এই হিপোক্রেসিরই জামানা। সেই হিপোক্রেসিকেই কীভাবে ভালো না খারাপ বলা হবে?

মাথাভর্তি এইরকম একগাদা প্রশ্ন নিয়ে ‘ভালো থাকা’ নামক আসন্ন বিষয়টি নিয়ে আমি ব্যাপক কৌতুহলী। প্রার্থনা করি ভবিষ্যতে ‘ভালো থাকা’ বিষয়ে ফেল করা শিশুটির যেন ‘ভালো থাকা’ বিষয়টাই ভালো না থাকার কারণ না হয়। তাহলে অন্তত আমরা ভালো থাকতাম তাইনা?

সর্বাধিক পঠিত