প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] যুবককে পিটিয়ে হত্যার পর আগুন দিয়ে পোড়ানোর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

ইসমাঈল ইমু, নূরনবী সরকার : [২] কোরআন অবমাননার গুজব ছড়িয়ে লালমনিরহাটের বুড়িমারীতে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করে মরদেহ আগুনে পোড়ানোর ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

[৩] শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সকালে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন জেলা প্রশাসক আবু জাফর।

[৪] এর আগে বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) বিকেলে পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে। নিহত যুবক শহিদুন্নবী জুয়েল রংপুর শহরের শালবন মিস্ত্রীপাড়া এলাকার আব্দুল ওয়াজেদ মিয়ার ছেলে। এ সময় তার সঙ্গী সুলতান যোবাইয়ের আব্দার নামে একজন আহত হয়।

[৫] লালমনিরহাট জেলার পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা জানান, তদন্তে ঘটনার সঠিক কারণ জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। যদিও স্থানীয় লোকজনের মধ্যে কেউ কেউ নিহত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগ করেছেন। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে নিহত ব্যক্তিসহ দু’জন পাটগ্রামের বুড়িমাড়ী এলাকায় একটি মসজিদে গতকাল আছরের নামাজ পড়তে যায়।

[৬] নামাজের পর তিনি কোরআন শরিফ রাখার জায়গায় পা দিয়ে অবমাননা করেছেন-এমন গুজব ছড়ায়। তখন শত শত মানুষ জড়ো হয়ে ঐ ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করে এবং হত্যার পর মৃতদেহ আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। এখন স্থানীয় লোকজন পুলিশের কাছে ঘটনা সম্পর্কে বিভিন্নরকম তথ্য দিচ্ছে। পুলিশ ঘটনাটির তদন্ত শুরু করেছে। ঘটনাস্থলে ধারণ করা ভিডিও ফুটেজগুলো দেখে জড়িতদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।

[৭] এদিকে ঘটনাটি তদন্তে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট টিএমএ মমিনকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৩ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। অপরদিকে র‍্যাবের পক্ষ থেকেও ছায়া তদন্ত করা হচ্ছে।

[৮] পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন্ত কুমার মোহন্ত বলেন, এ ঘটনায় নিহতের পরিবার পুলিশের ওপর হামলা ও ইউনিয়ন পরিষদ ভাঙচুরের দায়ে পৃথক তিনটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার সম্ভব হয়নি। অপরাধীদের চিহ্নিত করতে কাজ করছে পুলিশ।

[৯] লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর বলেন, এ ঘটনায় মামলা করা হচ্ছে। একইসঙ্গে ঘটনা তদন্তে ৩ দিনের সময় দিয়ে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। রিপোর্ট পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

[১০] বর্তমানে ওই এলাকায় বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে এবং পরিস্থিতিও শান্ত আছে। ঘটনাস্থলে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে বলে জানান পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা।

[১১] এদিকে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থল বন্দর জামে মসজিদে কোরআন অবমাননার মত কোনো ঘটনা ঘটেনি। গুজব ছড়িয়ে আবু ইউনুছ মো.সহিদুন্নবী জুয়েলকে প্রথমে মারধর পরে পিটিয়ে হত্যা করে তার লাশ পুড়ে ফেলা হয়েছে। শুক্রবার সকালে ওই মসজিদের ঈমাম সৈয়দ আলী ও খাদেম জোবেদ আলীর সাথে কথা বলে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

[১২] এছাড়া লালমনিরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আলামত সংগ্রহ করেছে। সিআইডিসহ অন্যান্য সংস্থা ঘটনার বিষয়ে তদন্ত করছে। এই ঘটনায় একাধিক মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলমান। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

সর্বাধিক পঠিত